Posted in অনুকাব্য ঝালমুড়ি ব্যক্তিগত কথাকাব্য

পাগলের বাড়ির বিয়ে, শুয়রে বাজায় ঢোল !

  কথাটি মা প্রায়ই বলতেন। এর মানে হচ্ছে, পাগলের বাড়ির বিয়েতে শুকরেও ঢোল বাজাতে পারে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে ঐ বিয়ের কি অবস্থা হয় তখন! : ১ ফেব্রুয়ারি/১৮ খুলনা গিয়েছিলাম ডুমিরিয়াতে ফুলকলির সংবর্ধনা নিতে। ফিরতে হলো ৪ তারিখ। দুদিন আগেই এক্সপ্রেস চিত্রা ট্রেনের (হায়! মনে পড়লো চীনের এক্সপ্রেস ম্যাগলেভের কথা!) টিকেট…

বিস্তারিত পড়ুন... পাগলের বাড়ির বিয়ে, শুয়রে বাজায় ঢোল !
Posted in গল্প ঝালমুড়ি ব্যক্তিগত কথাকাব্য

উরাধুরা বাতাসে ধূতি ওড়ে আকাশে !

স্কুলে পড়ার সময় প্রায় সব টিচারই ভালবাসতেন আমায় কেবল গণিত টিচার শ্যামল ঠাকুর ছাড়া। গণিতে খুব কাঁচা ছিলাম আমি। কারণ সারাক্ষণ আমি সাহিত্য পত্রপত্রিকা নিয়ে পড়ে থাকতাম, গণিতের ধারে কাছেও যেতাম না। নদী নৌকোতে গেলেও ২/৪টা সোভিয়েত পত্রিকা নিয়ে যেতাম সাথে করে এবং সময় পেলেই উল্টে দেখতাম তার পাতা। কিন্তু…

বিস্তারিত পড়ুন... উরাধুরা বাতাসে ধূতি ওড়ে আকাশে !
Posted in জাতীয় সম্পদ ঝালমুড়ি দর্শন

গগন হরকরার কথা ও সুর চুরি করেছে কে?

গগন হরকরা ছিলেন একজন ডাকহরকরা। প্রত্যেকদিন রবীন্দ্রনাথের কুঠিরের সামনে দিয়ে নিজ রচিত একটি গান গাইতে গাইতে যেতো গগন চিঠিপত্র বিলির কাজে। গানটি ছিল – : আমি কোথায় পাব তারে আমার মনের মানুষ আছে যে রে। হায়রে সেই মানুষে তার উদ্দেশে দেশে-বিদেশে বেড়াই ঘুরে।। লাগি সেই হৃদয়-শশী সদা প্রাণ রয় উদাসী,…

বিস্তারিত পড়ুন... গগন হরকরার কথা ও সুর চুরি করেছে কে?
Posted in ইতিহাস ঝালমুড়ি ধর্ম-অধর্ম

১০,০০০ গডের চিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করলে কেমন হয়?

সম্প্রতি আমার “আসুন সপ্তপদি গডকে জানি” শীর্ষক নানাবিধ বিলুপ্ত, চলমান গডদের গডের পোস্ট দেখে, ইনবক্সে আমার বন্ধু হাজারো গডের ছবি সংগ্রহ করে, তা প্রদর্শনের আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন। হ্যাঁ, হতেই পারে। : আগ্রহিরা প্রত্যেকে ন্যূনতম ১০-জন গডের ছবি একটা বিশেষ সাইজে প্রিন্ট করে, ঢাকাতে একত্রিত হয়ে এমন একটা প্রদর্শনীয় আয়োজন করা…

বিস্তারিত পড়ুন... ১০,০০০ গডের চিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করলে কেমন হয়?
Posted in আইন-আদালত কার্টুন ঝালমুড়ি

আজকের নির্বাচিত চুটকি “সাক্ষী” !

বরিশাল জজ কোর্টে অনেকদিন আগে একটি মামলায় সাক্ষী হিসেবে নারীবাদি “রমা দি”র ডাক পড়েছে। বাদীপক্ষের উকিল বিজন মজুমদার রমা দি’কে ঘাবড়ে দেবার জন্য প্রথমেই জিজ্ঞাসা করলেন : “আপনি আমায় চেনেন মিস রমা? রমা দির কুইক উত্তর: “ওমা চিনব না কেন? তুমি বিজন। তোমায় তো ল্যাংটা বয়স থেকেই চিনি! পুরোই বখে…

বিস্তারিত পড়ুন... আজকের নির্বাচিত চুটকি “সাক্ষী” !
Posted in ঝালমুড়ি ধর্ম-অধর্ম ব্যক্তিগত কথাকাব্য

ধর্মান্ধ-জঙ্গী ভার্সাস মুক্তমনা-নাস্তিক বিষয়ক রূপক গল্প : “তথাস্তু”

শেষ বিচারের (কিয়ামতের) পর গড সকল ধর্মান্ধ-জঙ্গীদের জান্নাত এবং মুক্তমনা-নাস্তিকদের জাহান্নামে প্রেরণ করলো। লাদেন, সাইদী, গোলাম আজম, তেতুল মাওলানাসহ তাদের লাখ লাখ সমর্থকে জান্নাত ভরলো। বিপরীতে ম্যাডোনা, লেডি গাগা, ঐশ্বরিয়া, ডারইউন, আইনস্টাইনসহ বিশ্বের লাখ লাখ নগ্নবাদি, বিজ্ঞানী, দার্শনিক মুক্তমনা-নাস্তিকরা ভরলো জাহান্নাম। ; জাহান্নামের আগুন থেকে রক্ষা পেতে সব নাস্তিক বিজ্ঞানীরা…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্মান্ধ-জঙ্গী ভার্সাস মুক্তমনা-নাস্তিক বিষয়ক রূপক গল্প : “তথাস্তু”
Posted in ঝালমুড়ি

প্রজেক্ট দেবিখা – ২

উপক্রমণিকা :- প্রজেক্ট দেবিখা মুসলিম সমাজের একটি বহুল প্রচলিত ও জনপ্রিয় প্রজেক্ট। এটি একটি বিজনেস পলিসিও বটে। এই প্রজেক্টের মূলধনের নাম দেনমোহর, অার বিনিমেয় পণ্যের নাম হালাল নারীর দেহ। সংজ্ঞা : দেবিখা দিয়ে বোঝানো হয় ‘দেহের বিনিময়ে খাদ্য।’ ফায়দা : এই প্রজেক্টের মাধ্যমে রথ দেখা এবং কলা বেচা দুটোই হয়।…

বিস্তারিত পড়ুন... প্রজেক্ট দেবিখা – ২
Posted in গল্প ঝালমুড়ি ব্যক্তিগত কথাকাব্য

ফিউজ ও ঋণ কাহিনি !

চীন থেকে সপ্তপদি ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্স জিনিস কিনে এনে এক সময় মধ্যপ্রাচ্যের “সুক আল জুনুবিয়া”তে বিক্রি করতাম আমি কন্টেনারসহ কিংবা হোলসেলারদের কাছে। কৈশোর থেকে এ পরিণত বয়স পর্যন্ত অনেক মানুষকে ঋণি করেছি আমি নানা উপাঙ্গে। আমার কাছে কেউ কোন ঋণ পাবে, এমন কথা স্মরণ নেই আমার। কৈশোরে একবার এক চোরকে…

বিস্তারিত পড়ুন... ফিউজ ও ঋণ কাহিনি !
Posted in আন্তর্জাতিক ইতিহাস ঝালমুড়ি

বিশ্বখ্যাত নাট্যকার : হেনরিক যোহান ইবসেন

একজন স্বনামধন্য নরওয়েজীয় নাট্যকার যিনি আধুনিক বাস্তবতাবাদী নাটকের সূত্রপাত করেছেন। তাকে সম্মান করে বলা হয় আধুনিক নাটকের জনক। ইবসেন নরওয়ের সর্বকালের শ্রেষ্ঠ লেখক এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নাট্যকার হিসেবে আসীন। তিনি নরওয়ের জাতীয় প্রতীকে পরিণত হয়েছেন বলা যায়।তার যুগে তার নাটককে রুচিশীল ভাবা হত না, কেননা তখন পারিবারিক জীবন ছিল ভিক্টোরীয়…

বিস্তারিত পড়ুন... বিশ্বখ্যাত নাট্যকার : হেনরিক যোহান ইবসেন
Posted in গল্প ঝালমুড়ি ব্যক্তিগত কথাকাব্য

মৃত ঘড়ির পেন্ডুলাম ও হাফসা

আমার মা একবার ঢাকা থেকে স্টিমারে আমার দ্বীপগাঁয়ে যাওয়ার পথে মা-বাবা-হীন একটা কিশোর ছেলেকে পান জাহাজে। সাথে করে নিয়ে যান তাকে আমাদের গাঁয়ের বাড়ি। অবশেষে এতিম ছেলেটা আমার মাকে ‘মা’ বলে ডাকতে থাকে, মাও তাকে নিজ ছেলের মতই লালন করে। ৭-৮ বছর ছেলেটা আমাদের ঘরে পরিবারের সদস্যের মতই বড় হলে,…

বিস্তারিত পড়ুন... মৃত ঘড়ির পেন্ডুলাম ও হাফসা