Posted in Uncategorized

গল্পঃ তবুও ভালবাসা

নিশা এসে চুপ করে বাবার পিছনে দাঁড়িয়েছে। বাবা পত্রিকা পড়ছেন।চোখে চশমা পরে। তিনি দিনে একবার চোখে চশমা পরেন, এই পত্রিকা পড়বার সময়। এখন তাকে কিছু বলা যাবে না। বললেই রেগে মেগে শেষ। নিশার বাবা দেশ সম্পর্কে যতটা সচেতন। নিশার মনে হয় না দেশ যারা চালায় তারাও এতো সচেতন। পত্রিকা নিবেন,…

বিস্তারিত পড়ুন... গল্পঃ তবুও ভালবাসা
Posted in Uncategorized

সব গল্পের নাম থাকে না

– এহ, ছিঃ ছিঃ। এইটা আপনি কি করলেন? – আমাকে বললেন? – হ্যাঁ, আপনাকে। মুখ থেকে ব্রাশ বের করেন। মুখ থেকে ব্রাশ বের করে হাতে নিল দীপ্ত।ঠোঁটগুলোতে এখনও টুথপেস্টের ফ্যানা লেগে, দুপাশ বেয়ে পড়ছে।সামনে দাঁড়ান মেয়েটাকে দীপ্ত চিনেনা।পার্কে কতজন ঘুরা ফেরা করে। সবাইকে চেনা কি করে সম্ভব?কিন্তু মেয়েটা এভাবে ডাক…

বিস্তারিত পড়ুন... সব গল্পের নাম থাকে না
Posted in Uncategorized

কষ্ট ছোঁয়া সুখ

মানিব্যাগটা অনেক মোটাসোটা।সুমন হাতে নিয়ে দেখল। কিন্তু টাকায় না, একগাদা কাগজ আর একটা পলিথিনে। এতো টাকা কখনও সুমনের মানিব্যাগে থাকেও না ,যে তা ফুলিয়ে দিবে। পলিথিন রাখার কারণ, বৃষ্টি নামলে নিজের কম দামি মোবাইলটা রক্ষা করা।পানি ঢুকলে মোবাইল এর জীবনী শেষ। তাছাড়া মাঝে মাঝেই সুমনের বৃষ্টিতে ভিজতে ইচ্ছা করে। ঝুম…

বিস্তারিত পড়ুন... কষ্ট ছোঁয়া সুখ
Posted in Uncategorized

রাতের শেষে রাত

পিছনে ঝুলানো ব্যাগের দিকে আর একবার তাকাল নিলু। নিলু নামটা কেমন যেন মেয়েলি লাগে। ওর নাম নিলয়।ছোট করে, আদর করে মা নিলু ডাকে। নাম নিয়ে ভাবার সময় নিলুর নেই। নিলুর চিন্তা পিছনে ঝুলানো ব্যাগটা ভরা নিয়ে।ব্যাগটা একটা চিনির। তবে ব্যাগে এখন চিনি নেই। আছে কিছু কাগজ, প্লাস্টিকের বোতল,কিছু টিনের কৌটা।…

বিস্তারিত পড়ুন... রাতের শেষে রাত
Posted in Uncategorized

ক্ষুধার্ত শিশু ও সোহরাওয়ার্দি উদ্যান

টি.এস.সি এর বিপরীত পাশে সোহরাওয়ার্দি উদ্যান। গেট দিয়ে ঢুকলে অনেকগুলো খাবারের দোকান। নানা রকমের খাবার।ফুচকা, পিঠা, চা, সিগারেট, ভাজা পোড়া খাবার, ডাব,ডিম আরও নানা কিছু। আমি ঢুকে অতি ভেজাল মুক্ত ডাব কিনলাম একটা।ডাবের পানি খেয়ে শাঁস খাচ্ছি আর ডাব বিক্রেতার সাথে সুখ দুঃখের আলাপ করছি। ডাব বিক্রি করা চাচার আজ…

বিস্তারিত পড়ুন... ক্ষুধার্ত শিশু ও সোহরাওয়ার্দি উদ্যান
Posted in Uncategorized

সম্পর্ক ও স্বার্থ

গায়ে ফতুয়ার মত একটা জামা ।বড্ড নোংরা ।সাথে একই রঙের একটা লুঙ্গী ।তাও নোংরা ।চুলের অবস্থা ও হাটাহাটির ভঙ্গী দেখেই বোঝা যায় যে এ পাগল ।সাথে কথা বলে জানতে হয় না ।আমার সামনে সামনে হেলেদুলে হাটছে ,রমনা পার্কের পাশ দিয়ে ।সামনে থাকাতে দাড়ি গোফ সম্পর্কে কোন ধারণা দিতে পারলাম না…

বিস্তারিত পড়ুন... সম্পর্ক ও স্বার্থ
Posted in Uncategorized

আমার বই পড়ার শুরু ও হুমায়ূন আহমেদ স্যার

আমি খুবই বাজে পাঠক। যা পড়তে গিয়ে প্রথম থেকে ভাল না লাগে, তা পড়ার ক্ষেত্রে আমি আগাই না। মানে ব্যাপারটা এমন হতে হয়, আমাকে দিয়ে কিছু পড়াতে হলে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত লেখার সাথে আটকে রাখতে হবে। ঠিক এই কারণে আমি খুব কমই গল্প, কবিতা, উপন্যাসের বই পড়েছি। খুব কমই…

বিস্তারিত পড়ুন... আমার বই পড়ার শুরু ও হুমায়ূন আহমেদ স্যার
Posted in Uncategorized

ফার্মগেটের ছোট পার্ক, মানুষের ভিড়ে মাদক

অনেক সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে হল থেকে হেঁটে হেঁটে ফার্মগেট চলে গেলাম। লক্ষ্য তেমন গুরতর কিছু না। শুধুই হাঁটাহাঁটি। তো হাঁটতে হাঁটতে ফার্মগেটের ছোট্ট পার্কটার ভিতর গেলাম। পার্কের অবস্থা খুবই খারাপ। যে যার মতন পরিবেশ নষ্ট করে যাচ্ছে। চোখ বুলালেই শুধু প্রস্রাব আর তার গন্ধ। মাঝে মাঝে হাগুও দেখা…

বিস্তারিত পড়ুন... ফার্মগেটের ছোট পার্ক, মানুষের ভিড়ে মাদক
Posted in Uncategorized

আধুনিকতা ও দুর্বলকে কটাক্ষ

ধানমণ্ডি লেকের পাড়ে বসে ছিলাম। একা একা । দেয়ালের উপর বসে পা ঝুলিয়ে।আমার সামনে স্কুল বা কলেজের ড্রেস পরে কিছু ছেলে গান গাচ্ছে। তার পাশে কিছু বন্ধু বান্ধবি সহ একটা ফ্রেন্ড সার্কেল। পোশাক দেখে বোঝাই যায় অতি উচ্চবিত্তের ছেলে মেয়ে তারা। নানা রকম ঠাট্টা তামাশা ,হই হুল্লোড় করে যাচ্ছে নিজেদের…

বিস্তারিত পড়ুন... আধুনিকতা ও দুর্বলকে কটাক্ষ
Posted in Uncategorized

এই ছোঁয়া ভালবাসার

একটা বেগুনি রঙের শর্ট পাঞ্জাবি পরেছে।বের হয়েই রিকশা খোঁজা শুরু করল। এক রিকশা না। কয়েকটা রিকশা দরকার। সবচেয়ে ভাল হয় রিকশা স্ট্যান্ড হলে।নাসিফ গিয়ে রিকশাচালকদের সামনে কতক্ষণ ঘুরাঘুরি করবে। যদি কয়েকজন বলে, ” মামা কই যাবেন? ” তার মানে নাসিফকে দেখতে সুন্দর লাগছে। চেহারায় একটা সাহেবি ভাব আছে। স্মার্টনেস এর…

বিস্তারিত পড়ুন... এই ছোঁয়া ভালবাসার