Posted in কবিতা

সংখ্যা ০১

‘আপনাকে মনে হয় আগেও এখানে দেখেছি’ একথা বলার পর মনে মনে বললাম, সে তো দেড়’শ বছর আগের কথা তোমার মনে থাকার কথা না। এরপর সে বলল, ‘কমন ফেস, সবাই বলে একথা’ আমি বললাম, আমার ফেস ঠিক আপনার উল্টো অনেক সময় চেনা মানষও চেনে না। সে হাসল আর হাসি থামিয়েই বলল,…

বিস্তারিত পড়ুন... সংখ্যা ০১
Posted in চলচ্চিত্র

অপরাজিত

বিভুতিভুষণ বন্দ্যোপাধ্যায় এর উপন্যাস, রবিশঙ্কর এর সঙ্গীত এবং সত্যজিৎ রায় এর পরিচালনা হলে সেটা তো অপরাজিত হয়েই থাকবে। মা-ছেলের জীবন সংগ্রামের গল্প ‘অপরাজিত’। স্বামীর মৃত্যুর পর অপুই ছিল মায়ের একমাত্র ভরসা। মায়ের সমস্ত পৃথিবী ছিল একজন অপু। আর অপুর পৃথিবী স্কুরের মাস্টার মশাইয়ের দেয়া একটা গ্লোব। গ্লোবটাকে হাতের মুঠোয় নিয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন... অপরাজিত
Posted in রিভিউ

কবি

উপন্যাস : কবি। লেখক : তরাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রকাশকাল : ১৯৪২ সালের মার্চ মাস। ‘কালো যদি মন্দ তবে কেশ পাকিলে কাঁদ কেনে?’ দুই কবিয়ালে মুখে মুখে গান বেঁধে পাল্লা দিয়ে গান করলে হয় কবি গান। সাধারণত শীতকালে গ্রামের মেলাগুলোতে এই কবি গানের আসর বসে। এমনই এক কবিয়ালকে নিয়ে তরাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস…

বিস্তারিত পড়ুন... কবি
Posted in অনুকাব্য

নিরুদ্দেশ

আজ আমার কবিতা লেখার রাত। বৃষ্টি পড়ছে। শহর ভিঁজছে। গভীর রাতে সে এলে, কেউ একজন বলে দিও আমি নেই। শব্দ শেষ। কবিতাকে নিয়ে ফিরব না আজ।

বিস্তারিত পড়ুন... নিরুদ্দেশ
Posted in অনুকাব্য

বাউণ্ডুলে

আর কত বছর দাঁড়িয়ে থাকবে? পাখি হতে পার না? উড়ে উড়ে বেড়াতে। আমি তো মানুষ হয়েছি। একটা বাউণ্ডুলে। শুধু পারি ঘুরে ঘুরে বেড়াতে।। উৎসর্গ : বৃষ্টিতে ভেজা ঢাকা শহরের কোন এক গাছকে ।

বিস্তারিত পড়ুন... বাউণ্ডুলে
Posted in উপন্যাস

আমার একটি গল্প আছে- কিস্তি-০১

পাখির নীড়ের মত চোখ তুলে তাকাবেন না। আমার মনকেমন হয়ে যায়। কথা বলবার কী অসামান্য ধরণ! সেদিন স্কুল পালাবার সময় আমার বন্ধু রাজ এই পঙক্তিটি বলেছিল এক বড়-আপুর উদ্দেশে। আমরা স্কুলের পেছনের প্রাচীর পার হচ্ছিলাম। অনেক বড় সেই প্রাচীর- ইটের দেয়ালের উপর আরো কিছুটা অংশ তাড়কাঁটা দিয়ে উঁচু করে দেয়া।…

বিস্তারিত পড়ুন... আমার একটি গল্প আছে- কিস্তি-০১