Posted in Uncategorized

গল্পঃ অসুস্থ

সাল ২০৩০। সাবিনার বাচ্চা হবে। মেয়ে বাচ্চা। কী সব ডাক্তারী যন্ত্র ছুঁইয়ে পেটের ভেতরটা আগেই মনিটরে দেখা হয়ে গিয়েছে। বাচ্চা মেয়েটার চেহারা সাবিনার মতন। দু’জন মহিলা ডাক্তার আর একজন নার্স এ রুমে আছেন। উনাদের সারা গা একদম ঢাকা। ভয়েস চেঞ্জারের মাধ্যমে পুরুষ কন্ঠে কথা বলছেন সকলে। তীক্ষ্ণ নিরাপত্তায় শিশুটি জন্মের…

বিস্তারিত পড়ুন... গল্পঃ অসুস্থ
Posted in সমসাময়িক

একটি নিমকহারাম জাতি আর লাল গোল্লা

আমাদের পতাকার মাঝখানের লাল গোল্লাটা আমার কাছে আমার মায়ের দুই ভ্রু-এর মধ্যেখানে গোল করে দেয়া লাল সিঁদুরের মত লাগে। সুন্দর লাগে। ভালো লাগে। ছোটবেলার একটা ঘটনা বলি। ফুটবল বিশ্বকাপের সময় সবাই আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ইতালির পতাকা টাঙ্গিয়েছে ছাদে, দেয়ালে, পানির ট্যাংকির ওপর। বাবার কাছে আমিও বায়না ধরলাম, পতাকা কিনে দাও প্লিজ।…

বিস্তারিত পড়ুন... একটি নিমকহারাম জাতি আর লাল গোল্লা
Posted in অনুগল্প

বাদশাদের দিনরাত্রি

চট্টগ্রামের ষোলশহর রেলস্টেশন। কিছু সময় পর পর এক একটা ট্রেন এসে থামে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীর পদচারণায় মুখর হয়ে উঠে চারপাশ। লোকে লোকারণ্য। বিশ্ববিদ্যালয় শাটল ট্রেনে চলতে থাকে ওঠানামা। এদের সবাই আবার শিক্ষার্থী নয়। শাটল ট্রেনে প্রতিদিনই কিছু মানুষ শিক্ষার্থীদের সাথে পাড়ি দেয় দীর্ঘ পথ। কারণটা শাটল ট্রেনের বিনা…

বিস্তারিত পড়ুন... বাদশাদের দিনরাত্রি
Posted in অনুগল্প

পদ্মা নদীর মাঝির অন্তিম কাহিনী

কুবের কপিলাকে নিয়ে রওনা দিয়েছে ময়না দ্বীপের উদ্দেশ্যে। সমাজের সকল শৃঙ্খল ভেঙ্গে ভালোবাসা নামক ব্যাধিকে প্রশ্রয় দিয়ে স্ত্রী-সন্তান সহ সকল কাছের মানুষকে রাতের আঁধারে ছুঁড়ে ফেলে কুবের কপিলাকে পেতে চায়। পদ্মার ঢেউ কেটে কেটে কুবেরের নৌকা এগিয়ে যায় নতুন জীবনের দিকে। এটাই তো চেয়েছিল কুবের। যে নারীর তনু-মন সে স্বপ্নের…

বিস্তারিত পড়ুন... পদ্মা নদীর মাঝির অন্তিম কাহিনী
Posted in অনুগল্প

এল ক্ল্যাসিকো!!!

এল ক্ল্যাসিকো ম্যাচ। মাঠে প্র..চু..র প্র..চু..র দর্শক। আমরা দুই দল-ই ন্যু ক্যাম্পের মাঠে দাঁড়িয়ে আছি। এখন রিয়েল মাদ্রিদের জাতীয় সঙ্গীত বাজছে… রোনাল্দো, বেনজেমা, ইস্কো, রামোস- সবাই জাতীয় সঙ্গীত গাইছে। “জন গন মন অধিনায়ক জয় হে… মার্সেলো ছেলেটা খায়েশ্টা…!! সে একমনে নাকে আঙ্গুল দিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে কি যেন বের করে ছোট…

বিস্তারিত পড়ুন... এল ক্ল্যাসিকো!!!
Posted in অনুগল্প

প্রুং প্রুং…

শুক্র-শনিবার বাসা থেকে বের হতে আমার প্রচন্ড আপত্তি। তার উপর শীতে কম্বল জড়িয়ে যে সুখ, সে সুখ কোন মানবীকে জড়িয়েও পাওয়া যায় না! প্রুং প্রুং.. প্রুং পুং… – হ্যালো… (ঘুম ঘুম কন্ঠে) – কি করো? – ঘুমাই। – উঠে যাও না প্লিইইইজ…. (মায়া জড়ানো কন্ঠে) – কেন? – এই… আজকে…

বিস্তারিত পড়ুন... প্রুং প্রুং…
Posted in কবিতা

নষ্ট হবি?

নষ্ট হবি? শেষ বিকেলে ছাদের কোণে রোদ মাখিয়ে চুমু খাবি? হুট করে চুল মুঠি ধরে চোখ রেখে চোখ ঝলসে দিবি? নষ্ট হবি? রোজ রাতে তোর দগ্ধ শরীর অালগা আদর বিকিয়ে খাবি? কষ্ট হলেও নষ্ট হবার নেশায় মেতে মর্ডাণ হবি? নষ্ট হবি? লাল রাঙ্গা ঠোঁটে নোংরা শরীরে নরম শিশির মিশিয়ে দিবি?…

বিস্তারিত পড়ুন... নষ্ট হবি?
Posted in অনুগল্প

চাকরী এবং বাকরীর গল্প

চাকরী করার অভিজ্ঞতা এর মধ্যেই বেশ হয়ে গিয়েছে। চাকরীগুলো যতটা না অদ্ভুত ছিলো, চাকরী চলে যাবার গল্প আরো বেশী অদ্ভুত! প্রথম চাকরী শুরু করেছিলাম একটা অনলাইন পত্রিকায়। পত্রিকা(!) হিসেবে এ অনলাইন দেশে অ-বদানের কথা দেশ জাতি মনে রাখুক না রাখুক, আমি পুরোদমে রাখবো! 😛 মালিক একজন হোটেল ব্যবসায়ী, তিনি সেই…

বিস্তারিত পড়ুন... চাকরী এবং বাকরীর গল্প
Posted in প্রবন্ধ

এই প্রথম লিখছি এখানে…

ফেসবুকে আমার খুব করে লেখা হয়। যা মনে আসে সব-ই লিখি। রুপকথা থেকে রোবটিক্স… পানপাতা থেকে সাইকোলজি… সব কিছু নিয়ে গল্প লেখা আমার সখ গুলোর একটা। মনের খুশির জন্য লিখি। তবে লেখাগুলোর প্রত্যেকটা সন্তানের মতন-ই আদর করে রাখার চেষ্টা করি। ফেসবুকের মত খোলা বারান্দায় আমার লেখাগুলো যাতে না উড়ে যায়……

বিস্তারিত পড়ুন... এই প্রথম লিখছি এখানে…