Posted in ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা রাজনীতি

সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প নিপাত যাক সর্বত্র

‘ঈশ্বর থাকেন ওই গ্রামে, ভদ্রপল্লিতে। এখানে তাহাকে খুঁজিয়া পাওয়া যাইবে না।’ মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় সমাজের তথাকথিত ‘ভদ্র’ লোকদের হাতে হতদরিদ্র মানুষদের নির্যাতিত হবার চিত্র তুলে ধরতে গিয়ে তাঁর ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ উপন্যাসে এই উক্তিটি করেছিলেন। তিনি দেখাতে চেয়েছিলেন গরীবের জন্য কোন ঈশ্বর নাই! কারণ গরীব আজীবনই গরীব থাকে আর বড়লোকদের হাতে…

বিস্তারিত পড়ুন... সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প নিপাত যাক সর্বত্র
Posted in অনুকাব্য কবিতা সাহিত্য

মেঘবৃতা

হে মেঘবৃতা,আর কতকাল তোমার দৃষ্টিবানে ভিজবো। বৃষ্টিযুগ শুরু হয়ে গেলে আমি লতা গুল্মের মত লালিত হতে থাকি তোমার প্রাসাদের চত্বরে কতকটা স্নেহে কতকটা অবহেলায় । তাকিয়ে তুমি খুশি হও অথচ কাছে ডাকার নাম গন্ধ নেই । আমার লেখা তোমার খারাপ লাগেনা এমন ভাব দেখালেও ওটা যে লোক দেখানো তা আমি…

বিস্তারিত পড়ুন... মেঘবৃতা
Posted in সমসাময়িক সমালোচনা স্যাটায়ার

এদেরকে বড্ড ভয় লাগে

মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী, পিনাকী আর ব্রাত্যকে দেখলে আমার আতংক লাগে! ভবিষ্যত বাংলাদেশে যারা টিভি-সিনেমা-খবরের কাগজকে দখল করে থাকবেন বা আছেন তারা নিজেদের ‘বাংলাদেশপন্থি’ বলে দাবী করেন। অথচ এরা কাশ্মীর নিয়ে যতখানি চুলকানি অনুভব করেন ততখানিই বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটিতে মিলিটারি শাসন বিষয়ে একদমই চুপ!বালুচিস্থান,সিন্ধ গিলগিট ও বালটিস্থান এর বিষয়ে তো তারা…

বিস্তারিত পড়ুন... এদেরকে বড্ড ভয় লাগে
Posted in ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা সমালোচনা

শত শত গরু ছাগলের মাঝে দুু একজন মউলানা আছে তাদের মুরিদ হতে মনচায়।হয়তো তাদের জন্যই ধর্মটা টিকে আছে।

এই দেশে আপনি যখন কারো ভুল ধরে দেবেন তখন আপনি নাস্তিক হয়ে যাবেন,যারা দিন রাত ব্যাবসা করছে ধর্মকে নিয়ে,আপনি তা বলতে পারবেন না তাহলে আপনি নাস্তিক।আর যে যে কারনে আপনি নাস্তিক হতে পারন- #যারা মুসলিম হয়ে রাজাকারের বিচার চায় তারা নাস্তিক! নিজেকে বাঙ্গালী মনে করে তারা নাস্তিক! যারা সকল ধর্মের…

বিস্তারিত পড়ুন... শত শত গরু ছাগলের মাঝে দুু একজন মউলানা আছে তাদের মুরিদ হতে মনচায়।হয়তো তাদের জন্যই ধর্মটা টিকে আছে।
Posted in অনুকাব্য কবিতা

তুই আমার প্রিয়তম ভুল

তোমার আঙ্গুল ছুলো আমার চুল একটি জীবন অনেক অনেক ভুল ঘুমপাড়ানী রাতে পেঁচার ডাক জলের জন্য বসে থাকা কাক আমার কেবল একটু শুধু চাওয়া চৈত্র দিনে হঠাৎ দমকা হাওয়া রক্তজবা চোখে আষাড় শ্রাবন, ভাসিয়ে দেওয়া ভালোবাসার প্লাবন তোমার আঙ্গুল ছোবে আমার ঠোঁট, কয়টা আদর জমবে সর্বমোট? তোমার আংগুল যখন আমার…

বিস্তারিত পড়ুন... তুই আমার প্রিয়তম ভুল
Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

একটি নতুন পৃথিবী

এদেশের মানুষ কিন্তু কোনও কালেই সাম্প্রদায়িক নয়। বরঞ্চ সকল ধর্মের জনগোষ্ঠী পারস্পরিক সৌহার্দ-সম্প্রীতি বজায় রেখেই যার-যার ধর্মীয় পালা-পার্বন উদযাপন করে আসছে। অথচ ধর্মের নামসর্বস্ব কিছু রাজনৈতিক দলবাজ-ধর্মবাজের উস্কানিমূলক অপকর্মে ইন্ধনদাতা-মদতদাতার যোগসাজশেই শান্তির সহাবস্থানটি জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে ছারখার করার হীন-উদ্যেশ্য সংগঠিত হয়েই চলেছে । একের পর একেক অমানবিক হামলা শিকার বানাচ্ছে নিরীহ মানুষদের।…

বিস্তারিত পড়ুন... একটি নতুন পৃথিবী
Posted in কবিতা

আমি চাই

আমি তোমার গলার লকেট হতে চাই তোমার বুকের কাছে থেকে সেখানে থাকা নামটা জানতে চাই। আমি তোমার কামিজের বোতাম হতে চাই, কখনো হারিয়ে গিয়ে তোমার বুকে শূণ্যতা অনুভব করাতে চাই। আমি তোমার হাতের ব্রেসলেট টা হতে চাই, যখন তুমি চুলে হাত বোলাবে আমি থেমে গিয়ে সময়টাকে সেখানেই আটকে দিতে চাই।

বিস্তারিত পড়ুন... আমি চাই
Posted in স্যাটায়ার

মানুষরা আবার যাদের মারে তাদের আবার একটু বেশিই খাতির করে

কাল সকালের পর আমি আর এ পৃথিবীতে থাকব না।তোর সাথে আর দেখা হবে না। তাই শেষ একটা উপদেশ দিয়ে রাখি- ” মানুষকে যত পারিস শুধু কষ্ট দিবি মারবি, দরকার হলে ঘার মোটকে দিবি । তবেই মানুষের ভালবাসা পাবি।মানুষ তোর গুন গাবে । সন্মান করবে সমীহ করবে ।” হাট থেকে কোরবানির…

বিস্তারিত পড়ুন... মানুষরা আবার যাদের মারে তাদের আবার একটু বেশিই খাতির করে
Posted in অনুকাব্য কবিতা সাহিত্য

গুচ্ছ প্রেম

প্রহেলিকা, পড়ে থাকে নিঃশ্বাস, যেখানে ছুঁয়েছে চুল কাঁধের সীমানা, কতটা নিয়েছি শ্বাস, তোমার ঠোঁটের আছে জানা! কতটা অবাধ্য হাত! কতটা সে ভেঙ্গেছে বারণ, তুমিই বলতে পারো, কবিতার কার্য কারণ। কখন জড়াবো কটি, ছদ্মবেশী ঘুমের আবেগে, কখন রাত্রি কাটে, অনায়াসে অন্ধকারে জেগে। কখন নিঃশব্দ রাত, হাজার না বলা কথা জানে কতটা…

বিস্তারিত পড়ুন... গুচ্ছ প্রেম
Posted in উৎসব ও দিবস একাত্তর রাজনীতি

রাজাকারের ঠাই নাই

যুগেযুগে দেশদ্রোহীদের কবর হয়ে আসছে গণশৌচাগার, -আবু জাহেলের কবর পাবলিক টয়লেটে পরিণত হয়েছিলো। -মির জাফরের কবর ফলকে লেখা আছে “এখানে জুতা নিয়ে উঠুন”। -ইটালিতে এরিক প্রাইবেক নামের এক নাৎসি যুদ্ধাপরাধী মারা গেছে, কোথাও তার কবর হচ্ছে না। ইটালির মানুষ তাকে তাদের দেশে কবর দিতে দেবে না। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল…

বিস্তারিত পড়ুন... রাজাকারের ঠাই নাই