Posted in Uncategorized

লাবণ্য নগর

ঘুড়ি উড়ানো বন্ধ করো পথ পরিচ্ছন্ন হলে ভ্রমণে যাবে কার্পাস তুলো কতো কতো খেলা হলো বিভ্রমে বিভ্রমে থেমে গেছে বাঁশি; মথুরা নগর দীর্ঘ লুকিয়ে পড়েছে চাঁদ গোপিনীদের কলসে কলসে আমি তো বিভ্রান্ত পেতেছিলাম দ্বিখণ্ডিত শরীর করাতকলের নিচে অতঃপর জন্ম দেই ভূমিপুত্র; নাড়ি কেটে আমার শাবক কতোকাল দাঁড়িয়েছিলাম জীবনের পেছন দরোজায়…

বিস্তারিত পড়ুন... লাবণ্য নগর
Posted in Uncategorized

ভাঙনের শব্দ ছাড়া কোনো সিম্ফনি নেই

ঝুলে আছি অন্তঃসত্তা বোধে তটস্থ আলোয় ম্রিয়মাণ ঘাসের গ্রীবা বেঁকে গেলে জননীরা খুলে রাখে চক্ষু ও দাঁত বাতাসে বাতাসে দূরতম দেশের সৌরভ দৃশ্যান্তের মিথুনবিচ্যুত নারী ও টিকটিকি নেমে পড়েছে জলের অতলে ভাঁজ খুঁলে যাচ্ছে ধীরে মুছে গেছে বিগতরাতের স্মৃতি হারিয়ে ফেলেছি অলৌকিক জুতো স্বপ্নের ভেতর হায় পিতা! কোন সে সুদৃশ্য…

বিস্তারিত পড়ুন... ভাঙনের শব্দ ছাড়া কোনো সিম্ফনি নেই
Posted in Uncategorized

আত্মজার জন্য লেখা : দুই

কন্যা আমার এ কথাগুলো তোমার কাছে একটু কঠিন মনে হতে পারে। তবু তোমার জানা প্রয়োজন। নারী নেত্রী সুজান গ্রিফিন বলেন- আমি কখনই ধর্ষণের ভয় থেকে মুক্ত হতে পারিনি।

বিস্তারিত পড়ুন... আত্মজার জন্য লেখা : দুই
Posted in Uncategorized

আত্মজার জন্য লেখা : এক

কন্যা আমার! ঘুরে দাঁড়াও। ফুল পাখি লতা পাতা নিয়ে ভাববার পাশাপাশি নিজেকে শক্তভাবে মাটির ওপর দাঁড়ানোর জন্য তৈরি করো। তুমি যখন ছোটো ছিলে তখন তোমাকে বলেছিলাম পথের বাঁধাগুলোকে হাত দিয়ে সরিয়ে দাও। চলতি পথে তোমার গায়ে লাগতে পারে কামার্ত হাতের স্পর্শ। তুমি তাকে ধরে সরিয়ে দাও। তোমার লজ্জা পাওয়ার কিছু…

বিস্তারিত পড়ুন... আত্মজার জন্য লেখা : এক
Posted in Uncategorized

উপক্রমণিকা

অথচ কিছুই বলবো না ভাবছি কেন। কতো কিছুই তো বলার থাকে। ব্যক্তিগত, অব্যক্তিগত, রাষ্ট্রিক কিংবা বৈশ্বিক। প্রতিদিন অজস্র ঘটনাবলী নাড়া দিয়ে যায়। আজ বলি কাল বলি করে বলা হয় না। ছোটবেলায় শেখানো হয়েছে আগে নির্ধারণ করো কী কী তুমি বলবে না। সব কথা বলার কোনো প্রয়োজন নেই তোমার। এভাবে প্রথম…

বিস্তারিত পড়ুন... উপক্রমণিকা