Posted in Uncategorized

চমৎকার প্রতিদান

একটা ভালো কাজ করতে গেলে দশবার নেগেটিভ চিন্তা মাথায় আসে। রাত দুটোর দিকে ফুটপাথে যেতে ভয় পাই। ডাকাত বা ছিনতাইকারীর কোন ভয়ে নাহ। পুলিশের ভয়ে। দেশটা কোথায় যাচ্ছেরে ভাই??? যেই ছেলেমেয়েরা নিজেদের টাকায়, নিজেদের কষ্টে, নিজেরদের শ্রমে, নিজেদের হাতে অনাথ, দুস্থ, পথশিশুদের মুখে খাবার তুলে দিয়েছে, মুখে এক চিলতে হাসি…

বিস্তারিত পড়ুন... চমৎকার প্রতিদান
Posted in Uncategorized

এরাই ইন্সপেরেইশন

বাসে বসে মেয়েটার কোরআন শরীফ পড়া দেখে ছেলেটার মনে প্রচুর কৌতূহল জাগে। ভিড়ের মধ্যে মেয়েটার সাথে কথা বলার উপায় খুঁজতে থাকে সে। অনেক চেষ্টায় উপায় হয়। মেয়েটার পাশের সিটে গিয়ে বসে ছেলেটা। কথা বলাও হয়। জানতে পারে মেয়েটার ক্যান্সার। খুব বেশীদিন বাঁচবে নাহ। ”আমি আপনাকে বিয়ে করতে চাই”- ছেলেটার সরাসরি…

বিস্তারিত পড়ুন... এরাই ইন্সপেরেইশন
Posted in Uncategorized

অনুমোদিত পতিতালয় আছে কিন্তু নেই কোন অননুমোদিত কবিতালয়

এদেশে অনেক অনুমোদিত পতিতালয় থাকলেও নেই কোন অননুমোদিত কবিতালয়। যেখানে রুদ্রের মতো দু’লাইন কবিতা লিখতে শেখাবে। এদেশে কোন স্কুল নেই যার প্রধান ফটকে লেখা থাকবে, ”এসো গল্প পড়ি”। গল্প লেখা শেখাবে। বরং ব্যাগের মধ্যে দু একটি গল্পের বই পাওয়া গেলে তা স্কুলে বসেই ছিঁড়ে ফেলা হয় এদেশে। একদিন পড়ার বইয়ের…

বিস্তারিত পড়ুন... অনুমোদিত পতিতালয় আছে কিন্তু নেই কোন অননুমোদিত কবিতালয়
Posted in Uncategorized

ছেলের বাবা

সাইকোলজির টিচার ক্লাশে ঢুকেই বললেন, ”আজ পড়াবো না” সবাই খুশি। টিচার ক্লাশের মাঝে গিয়ে একটা বেঞ্চে বসলেন। বাইরে বৃষ্টি। বেশ গল্পগুজব করার মত একটা পরিবেশ। স্টুডেন্টদের মনেও পড়াশুনার কোন প্রেশার নেই। টিচার খুব আন্তরিকতার সাথেই পাশের মেয়েটাকে বললেন, ”জননী তোমার কি বিয়ে হয়েছে?” মেয়েটা একটু লজ্জা পেয়ে বলল, ”জ্বী স্যার।…

বিস্তারিত পড়ুন... ছেলের বাবা
Posted in Uncategorized

বাসে মেকাপ অতঃপর….

আয়না বড়ই অদ্ভুত বস্তু। নিজের মতো আরেকটাকে দেখা যায় ওটার ভেতরে। মেয়েরা মেয়েদের জীবনের অনেকটা সময়ই এই আয়না দেখে পার করে দেয়। কোন অন্ধকার রুমের ভেতরেও কিভাবে যেন মেয়েরা খুব সাবলীল ভাবে দেয়ালের ছোট্ট আয়নাটিও খুঁজে বের করতে পারে। এই ক্ষমতা বুঝি মেয়েদেরকেই দেয়া হয়েছে। আয়না জাতীয় সকল বস্তু এদেরই…

বিস্তারিত পড়ুন... বাসে মেকাপ অতঃপর….
Posted in Uncategorized

পুস্প

পুষ্প। এটা কোনো ফুলের প্রতিশব্দ নয়। এটা কোনো রোম্যান্টিক গল্পের শিরোনাম নয়। নামটি কোনো এক অতিপ্রাকৃত মানবীর। যাকে শেষ দেখেছিলাম হুডি পরে বাজারের ব্যাগ হাতে রাস্তার কোনো এক কোণায় অপ্রস্তুতভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে। রাস্তার ছেলেরা তার দিকে আড়চোখে তাকিয়ে ছোট ছোট মন্তব্য করে যাচ্ছিল। আর আমি দূর থেকে তা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন... পুস্প
Posted in Uncategorized

কি করব আমি ওরকম শিক্ষিত বন্ধু দিয়ে?

কি করব আমি ওরকম শিক্ষিত বন্ধু দিয়ে?

বিস্তারিত পড়ুন... কি করব আমি ওরকম শিক্ষিত বন্ধু দিয়ে?
Posted in Uncategorized

শিরোনাম বাদ

”এসএসসিতে ফেল করায় না ফেরার দেশে চলে গেলো শারমিন!” এইতো নিউজ আসতে শুরু করেছে। কাল পত্রিকায় এরকম আরও নিউজ আসবে। তবে তাতে কি? পাশের হার তো ঠিক আছে। চা বিক্রি করে এ প্লাস পাওয়া খবরের কাছে এসব ঢাকা পড়ে যাবে। আমরা সবসময়ই একটা মিথ্যা কথা বলে বেড়াই, সবার ব্রেইন এক…

বিস্তারিত পড়ুন... শিরোনাম বাদ
Posted in Uncategorized

চিঠি

চিঠি। একদা মানুষের সুখ দুঃখের বিস্তারিত অনুভূতিনামা যেখানে প্রত্যেক্ষ সঞ্চিত করা হতো। আর পরোক্ষভাবে যেখানে থাকত অপেক্ষা। সে অপেক্ষা এ অপেক্ষার মতো এতো বিষাদ ছিল না। সে অপেক্ষা ছিল বড়ই মধুময়। দিনের পর দিন অপেক্ষা। একটা কাগজের জন্য অপেক্ষা। যে কাগজে থাকতো প্রিয় মানুষের ঘ্রাণ, আবেগ, অনুভূতি, প্রেম, ভালোবাসা কতকিছু।…

বিস্তারিত পড়ুন... চিঠি
Posted in Uncategorized

নীলে নীলে নীলাম্বরী

১০ টাকা দিয়ে সেদিন ফার্মগেট থেকে একটা চিরুনি কিনেছিলাম। নীল কালারের। বাসায় এসে আম্মু সেই চিরুনি দেখে জিজ্ঞেস করল, – এটা কার ? – আমার – এটা তো মেয়েদের চিরুনি ! – চিরুনির ভিতরেও এতো বৈষম্য ? – আরে দেখছ না বড় বড় ফাকা। নাকি তোরে কেউ দিছে ? –…

বিস্তারিত পড়ুন... নীলে নীলে নীলাম্বরী