আস্তিকতা – নাস্তিকতা – ধর্ম রক্ষা : ত্রিভুজ প্রেমের রক্তারক্তি যন্ত্রনা

“দেশ প্রেম ঈমানের অঙ্গ” সুতরাং যে নিজের দেশকে ভালবাসেনা তার ঈমান নাই …. আর যার ঈমান নাই, তার কখনই কাউকে “আস্তিক” – “নাস্তিক” সার্টিফিকেট দেয়ার অধিকার নাই”….. কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও এটাই চলতেছে ইদানিং, যার যে বিষয়ে কোন কিছু বলা ত দুরের কথা চিন্তা করারই অধিকার নাই, সে’ই দেখা যায় ঐ বিষয়ে সবচেয়ে বেশি মাথা ঘামায় …. মসজিদে যারা আগুন লাগায় তারা কোন ধরনের ধর্মপ্রান ব্যাক্তিত্ত জাতি তা জাইন্তে ঐত্যন্ত আগ্রহী…

মধ্য যুগের কবি আব্দুল হাকিম যদি আজবধি বেচে থাকতেন তাইলে বঙ্গবানী কবিতাটার দশা হত এমন –

দেশি ভাষা-পতাকায় যার মনে ন জুয়ায়,
নিজ দেশ ত্যাগী কেন ফাকিস্তান ন যায় !!


“দেশ প্রেম ঈমানের অঙ্গ” সুতরাং যে নিজের দেশকে ভালবাসেনা তার ঈমান নাই …. আর যার ঈমান নাই, তার কখনই কাউকে “আস্তিক” – “নাস্তিক” সার্টিফিকেট দেয়ার অধিকার নাই”….. কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও এটাই চলতেছে ইদানিং, যার যে বিষয়ে কোন কিছু বলা ত দুরের কথা চিন্তা করারই অধিকার নাই, সে’ই দেখা যায় ঐ বিষয়ে সবচেয়ে বেশি মাথা ঘামায় …. মসজিদে যারা আগুন লাগায় তারা কোন ধরনের ধর্মপ্রান ব্যাক্তিত্ত জাতি তা জাইন্তে ঐত্যন্ত আগ্রহী…

মধ্য যুগের কবি আব্দুল হাকিম যদি আজবধি বেচে থাকতেন তাইলে বঙ্গবানী কবিতাটার দশা হত এমন –

দেশি ভাষা-পতাকায় যার মনে ন জুয়ায়,
নিজ দেশ ত্যাগী কেন ফাকিস্তান ন যায় !!

পতাকা পুড়তে দেখার পর ওনার মত একজন কবির প্রতিক্রিয়া এ রকমই হবার কথা….. তবে তিনি যদি একটু গালিবান্ধব কবি হতেন, তাইলে কবিতার প্রথম দিকের কয়েক লাইন হত এমন –

যে সব বঙ্গে জন্মি পুড়ে পতাকা ,
সেসব বেজন্মার দল *** মুড়ি খা …

আসলে অপাত্রে বাইক্কা ক্যাচাল ছাড়তেছি – কাউয়া ও একটা পাখি , আর জামাত ও একটা দেশপ্রেমিক উইথ ধর্ম রক্ষাকারী রাজনৈতিক দল ( 2 in 1 package !! ) !!!

এই জামাত তাদের রাজনৈতিক ইতিহাসের আদি লগ্ন থেকেই তো ঘরের শত্রু বিভীষণ টাইপের ভূমিকা পালন করে গেছে এবং এখনো সেই ভূমিকাই পালন করে যাচ্ছে অবিরাম ..
জামাতের প্রতিষ্ঠাতা আবুল আলা মৌদুদি পাকিস্তানের স্বাধীনতার বিরোধিতা কৈরা গেছে সে চায় তার ব্রিটিশ আব্বুরা যাতে উপমহাদেশ ছেড়ে না যায় !! তার মানসিকতা যেমন, তার অনুসারী চামচা গুলোর মানসিকতা ও তো সেরকমই হবে, সুতরাং খুব স্বাভাবিক ভাবেই তার চামচা গোলামেরা এদেশে জন্ম নিয়া ও দেশের লগে বেইমানি করছে এবং বেইমানীর সেই ধারা এখনো অব্যাহত রাখছে !!

“ধর্ম ব্যাবসায়ী” হিসাবে ব্যাপক.পরিচিত এই দলের হেড কোয়ার্টার লাহরে !! যেন এ এক বহুজাতিক কর্পোরেট ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠানের বাংলাদেশী শাখা !! একটা দেশের রাজনৈতিক দলের হেড কোয়াটার কেন পাকিস্তানে হবে! !!! অভাবিত ব্যাপার ….
তারা বাংলাদেশে নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করলে , দেশ ডিরেক্ট পাকিস্তানি তত্ত্বাবধানে চলবে, অর্থাৎ শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ হবে পাকিস্তানের একটা কর্পোরেট ব্রাঞ্চ…. তারা ত খালি ধর্ম না, দেশ নিয়েও বাণিজ্য করার ক্ষেত্রে তুমুল পারদর্শী !!

‘এই যদি হয় একটা দলের হাল হকিকত, তাইলে সেই দলটারে কেন বাংলাদেশের রাজনীতিতে নিষিদ্ধ করা হবে না !!?

25.02.13

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *