বাংলাদেশে সার্চ ইঞ্জিনের প্রভাব : ইন্টারনেট মার্কেটিং এ সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন তুরুপের তাস

যে কোন করপোরেশন চায় তাদের হাতে যে কোনো ব্যবসা অবরুদ্ধ করতে। বিশ্বখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন কম্পানী গুগল তাদের অন্যান্য ব্যবসাকে শক্তভাবে দাঁড় করাতে এক ধরণের মনোপলি ব্যাবসার চারা রোপন করে। দুনিয়াতে ট্রিলিয়নের উপর ওয়েবসাইট আছে। এদের প্রতিনিয়ত ডিএনএর মতো যুদ্ধ করে প্রথম গর্ভজাত শিশু হিসেবে সার্চ রেজাল্টে টিকে থাকার জন্য কোমর বেঁধে নামতে হয়। একই প্রোডাক্ট যেমন কোকাকোলা কিংবা পেপসি একটা ফ্লেভার একই সময়ে বের করলো। এখন দেখা যাচ্ছে যার যার সাইটে আপডেট দেয়ার পর আরসি কোলা ধাম করে নতুন আরেকটি প্রোডাক্ট প্রমোট করে দিলো। অন্য সব প্রোডাক্ট ফেলে উপর উঠে গেল সার্চে। মানুষ এখন ‘কোলা’ সার্চ দিলেই আরসি কোলাকে প্রথম লিংকে পায় সার্চ পেজে। গেল মাথা খারাপ হয়ে বাকি দু কম্পানির। এইবার আইটি বিশেষজ্ঞকে ঠ্যালা দিলো “ওই ব্যাটা কিরে ট্রাফিক নিচে নাইমা গেলো ক্যান? উপ্রে উঠা”।

২০১২ সালে আমরা যারা এই সমস্ত কাজগুলো শিখছিলাম তারা ঘুণাক্ষরেও জানতাম না সামনে কঠিন একটা দিন আসছে। তখন ফেসবুক, টুইটারের মতন সোশ্যাল সাইটে লিংক শেয়ার করে যে কোনো সাইটে পেইজ রেংক বাড়িয়ে দিয়ে বা ঐ সাইট সংক্রান্ত হালকা পাতলা লিখে সাইটকে গুগলের সার্চে তুলে দিতাম। গুগল এটা বুঝতে পেরে নিয়মকানুন আরো কড়া করে দিলো। বললো লিংকের হাংকি পাংকি বন্ধ। তাইলে?

বলা হলো লিংক শেয়ার দাও ঠিকাছে কিন্তু সাইটের ভেতরের লেখার ঘনত্ব বা কন্টেন্টের কিওয়ার্ড ডেনসিটি বাড়াও। ব্যস বেড়ে গেলো মিলিয়ন মিলিয়ন রাইটারের সংখ্যা। তারা নামলো কন্টেন্ট মার্কেটিং এ। শুরু হলো মাল্টি সোশ্যাল এক্টিভিটি। অনলাইনপ্রেমী বা অনলাইনহোলিকদের চোখের সামনে চলে এলো শত প্রকারের অনলাইন মার্কেটিং কনসেপ্ট।

এই যে একটা ওয়েব পেজকে সার্চ রেজাল্টে নেয়ার যে প্রতিযোগিতা একেই বলে ‘সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন’ যা ইন্টারনেট মার্কেটিং সাবজেক্টের কয়টা স্ট্র্যাটেজি বা পরিকল্পনার একটি কার্যকরি মাধ্যম। এই জিনিস নিয়ে সামনে শীতল যুদ্ধ আসবে। হয়তো একদিন ভার্সিটিগুলোতে মার্কেটিং এর অপ্রচলিত কনসেপ্ট বাদ দিয়ে এই নতুন ধারার মার্কেটিং এর পড়াশোনার প্রচলন করবে। CA, ACCA এর পর এর দামও হবে আকাশচুম্বী। ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ইন্টারনেট মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজির পড়াশোনা শুরু হয়েছে।

এই চামে আমিও বিবিএ এমবিএ সেরে এইটার পড়া ধরছি। ফাঁকতালে সার্টিফায়েড হয়েও যাবো নাইলে 😀

১০ thoughts on “বাংলাদেশে সার্চ ইঞ্জিনের প্রভাব : ইন্টারনেট মার্কেটিং এ সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন তুরুপের তাস

Leave a Reply to শওকত খান Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *