আমরা ব্যাচেলর !

আজকাল যা দেখছি তাতে অন্তত আমার মনে হচ্ছে কিছুদিন পর জেএমবি, হরকাতুল জিহাদ কিংবা হিজবুত তাহেরীরের মতো ব্যাচেলরদের(১) কেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে পারে । আমরা যারা স্টুডেন্ট বা অবিবাহিত চাকুরীজিবী এই প্রিয় রাজধানী শহরে তেলাপোকার মতো টিকে আছি, আমরা জানি কতটা খড়,কাঠ পুড়িয়ে, কত অপ্রিয় কথা,অকথা আর কুকথা সহ্য করে আমাদের থাকতে হয় ! এমন একটি অবস্থা, আমার মাঝে মাঝে মনে হয় আমরা ব্যাচলররা অবাধে,বিনামূল্যে এই শহরের অক্সিজেন পাচ্ছি, বিষাক্ত শ্বাস নিতে পারছি এটাই আমাদের জন্যে অনেক বেশী !


আজকাল যা দেখছি তাতে অন্তত আমার মনে হচ্ছে কিছুদিন পর জেএমবি, হরকাতুল জিহাদ কিংবা হিজবুত তাহেরীরের মতো ব্যাচেলরদের(১) কেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে পারে । আমরা যারা স্টুডেন্ট বা অবিবাহিত চাকুরীজিবী এই প্রিয় রাজধানী শহরে তেলাপোকার মতো টিকে আছি, আমরা জানি কতটা খড়,কাঠ পুড়িয়ে, কত অপ্রিয় কথা,অকথা আর কুকথা সহ্য করে আমাদের থাকতে হয় ! এমন একটি অবস্থা, আমার মাঝে মাঝে মনে হয় আমরা ব্যাচলররা অবাধে,বিনামূল্যে এই শহরের অক্সিজেন পাচ্ছি, বিষাক্ত শ্বাস নিতে পারছি এটাই আমাদের জন্যে অনেক বেশী !

বাসা খুঁজে পাওয়া থেকে শুরু করে প্রতিটি পদে পদে আমাদের “ব্যাচলর” কথাটি শুনতে হয় । কিন্তু এতেও আমার কোন সমস্যা নেই । আমার সমস্যা হয় যখন সবকিছুতেই এই অসহায়, নিরূপায় “ব্যাচলর” দেরকে টেনে আনা হয় । যেমনঃ
–বাসার সামনে কে ময়লা ফেলছে? উত্তরটা চোখ বন্ধ করে “ব্যাচলর” !
–অতি উচ্চ শব্দে গান শুনে, টিভি দেখে? “ব্যাচলর” !
–কার বাসায় এতো গেস্ট আসে? “ব্যাচলর” !
–রাতে গেট বন্ধ হয়ে যাবার পরেও কে নক করে? “ব্যাচলর” !
–পানি, বিদ্যুৎ কে বেশী অপচয় করে? “ব্যাচলর” !
–পাশের ফ্ল্যাটে সিগারেটের গন্ধ? নিশ্চই “ব্যাচলর” রা সিগারেট খায় !
–সিঁড়ি দিয়ে শব্দ করে উঠা নামা করে কে? ঐ যে “ব্যাচলর” আছে না !

অন্যদের কথা জানি না কিন্তু উপরোক্ত প্রত্যেকটি প্রশ্নের উত্তর আমাকে দিতে হয়েছে বিভিন্ন সময়ে । যা কিছুই হোক না কেন, প্রথমেই তালিকায় নাম আসে আমাদের, “ব্যাচলরদের” ।

আমি এখন যে ফ্ল্যাটে থাকি এর কিছু কখা বলবো । আমরা তিনজন মিলে বাসাটি খুঁজে পাই আর বাসার মালিকের সাথেই আমরা প্রথমে কথা বলি ।

আমরা কি করি এই প্রশ্নের উত্তর শুনেই ভদ্রলোক রীতিমতো আঁতকে উঠে আর পরিষ্কার গলায় বলে, “ব্যাচলরদের” বাসা ভাড়া দেয়া হবে না । আমরা কারন জিজ্ঞেস করলে উত্তরে আনেক কথা শুনিয়ে দেয় পূর্বের অভিজ্ঞতা থেকে । তার পরেও অমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করে বুঝিয়ে রাজি করিয়েছিলাম ।
দুটো ঘটনা বলি ।
নতুন বাসায় উঠার সম্ভবত ৫-৬ দিন পর বিকেলে আমি ছাদে যাই । ছাদে গেলাম নাকি কোন পাপ করলাম তা বুঝতে পারলাম পরদিন সকালে । গরম গরম অভিযোগ আসলো আমি নাকি কোন বাসার দিকে তাকিয়ে থেকে কি যেন দেখতেছিলাম ! বিস্বাস করুন, শুনে আমি হাসবো না কাঁদবো তা বুঝে উঠতে পারছিলাম না । এরপর আমার জন্মদিনে আমার ৩জন বন্ধু আসে বাসায় এবং ঐ রাতে আমরা গান শুনেছিলাম উচ্চ শব্দেই কিন্তু প্রত্যেকটা দরজা লাগানো ছিলো । কিন্তু তাতেও আমার পাশের ফ্ল্যাটের সদ্য বিবাহিতা আপু রাতে ইক ফুঁটাও ঘুমাতে পারেননি গানের শব্দে, ভোর অবধি নাকি তিনি শুধু গানই শুনতে পেয়েছেন যদিও রাত প্রায় ৩টার পর আমরা আর কোন গানই শুনি নি । তবে ঐবার কপাল গুনে আর মালিকের সাক্ষাত পেতে হয়নি ! এমন আরো অসংখ্য ঘটনার মুখোমুখি হয়েছি আমি ।

বছর খানেক হলো এখানে আছি । আছি বললে ভুল হবে, টিকে আছি ! অভিযোগও কম শুনিনি । এখন শুধু বাকিআছে বাসা ছাড়ার নোটিস !

আমার ধারনা আপনাদেরও এমন তিক্ত অভিজ্ঞতা আছে । আমার মনে হয় “ব্যাচলর” শব্দটা “খারাপ” শব্দের সমার্থক হয়ে গেছে ! ব্যাচেলর মানেই খারাপ ।

তবুও একটা কথা বলি !

ঘুমিয়ে আছে বাসার মালিক সব ব্যাচলরের অন্তরে …!

৪ thoughts on “আমরা ব্যাচেলর !

  1. ঢাকায় এখন বেশ কয়েক জায়গায়
    ঢাকায় এখন বেশ কয়েক জায়গায় ব্যাচেলর পাড়া গড়ে উঠেছে। ঐসব এলাকায় নাকি শুধু ব্যাচেলররাই থাকে। এরপর সমস্যা হলে ব্যাচেলর পাড়ায় আস্তানা ঘাড়তে পারেন।

  2. ঢাকা শহরের বাড়িওয়ালাদের ভাব
    ঢাকা শহরের বাড়িওয়ালাদের ভাব সাব দেখে মনে হয় যে হেরা জন্ম থেকেই ব্যাচেলর। পদে পদে মনে করিয়ে দেয় যে ব্যাচেলর হওয়া যেন বিশাল কোন অপরাধ । বাঙ্গালী মাত্রই হিপোক্রেট। ঢাকা শহরের বাড়ি ওয়ালারাই তার উপযুক্ত প্রমাণ।

  3. ব্যাচেলর হলে ফাৎরামি করবে, আর
    ব্যাচেলর হলে ফাৎরামি করবে, আর বিবাহিত হলে ভদ্রলোক হবে- বাড়িঅলাদের মাথায় এসব জিনিস ঢুকাইসে কে? বাড়িঅলাদের ব্যাপারে একটা আইন জারী করা দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *