আমার স্মৃতিআকাশ-২ : ক্ষুদ্রকাল

আমার স্মৃতিগুলো সামনে এনে দেয় দখিনা বাতাস। আজ ক’দিন পূবালী বাতাস মনে করিয়ে দিচ্ছে বছর ৭ এর আগের কথা।

…… ডুবন্ত বিকেলে আমার গ্রামের মাঠের মাঝে বসে থাকতাম। তখন মটরসাইকেল যার থাকত তার একটা আলাদা ভাব ছিল। আমি একা বা কিছু বন্ধুসকল রাস্তার পাশে বসে মটরসাইকেলের ধূলা খেতাম, ভাল লাগত। তবে নছিমনের ধূলা একদম সহ্য হত না। দিতাম মুখ ছেড়ে।

…… সেদিন ও পূবাল হাওয়া বন্ধুর দেখা হবার আশ্বাস দিচ্ছিল। রাস্তাটা উত্তর দক্ষিণ চলেগেছে। আমরা পূর্বপাশে বসে ফাইজলামী করছিলাম। কি মনে করে কিছু ধূলা ঊড়িয়ে যেই না দিয়েছি, অমনি আওওওও শব্দ!! পিছন ফিরে আমরা অবাক!


আমার স্মৃতিগুলো সামনে এনে দেয় দখিনা বাতাস। আজ ক’দিন পূবালী বাতাস মনে করিয়ে দিচ্ছে বছর ৭ এর আগের কথা।

…… ডুবন্ত বিকেলে আমার গ্রামের মাঠের মাঝে বসে থাকতাম। তখন মটরসাইকেল যার থাকত তার একটা আলাদা ভাব ছিল। আমি একা বা কিছু বন্ধুসকল রাস্তার পাশে বসে মটরসাইকেলের ধূলা খেতাম, ভাল লাগত। তবে নছিমনের ধূলা একদম সহ্য হত না। দিতাম মুখ ছেড়ে।

…… সেদিন ও পূবাল হাওয়া বন্ধুর দেখা হবার আশ্বাস দিচ্ছিল। রাস্তাটা উত্তর দক্ষিণ চলেগেছে। আমরা পূর্বপাশে বসে ফাইজলামী করছিলাম। কি মনে করে কিছু ধূলা ঊড়িয়ে যেই না দিয়েছি, অমনি আওওওও শব্দ!! পিছন ফিরে আমরা অবাক!

… দুরন্ত বাতাসে উজ্জ্বল আভায় ভাসছে চুলগুলো, পিছনের সূর্য ওড়নার মত আড়াল করেছে মুখটা। হ্যাঁ একটা মেয়ে।

…… কে মেরেছে ধুলা এই প্রশ্নে আসামী ধরা খেল। মেয়েটি ইচ্ছামত ইতর বদমাস যা পারল বলল। কিছু শুনেছিলাম কিছু শুনিনি।

…… অবাক হয়নি মোটেই, ভাল লেগেছিল, মজা লেগেছিল।

….. সেদিন কিন্তু অবাক হয়েছিলাম। সেদিন বাতাস ছিলনা। বৃষ্টি হচ্ছিল। আমি কলেজে পড়ি। বাসায় ফেরার পথে এক মহিলা গলার স্বরটা শক্ত করে বলল’ “ভাই ছাতাটা দিবেন, আমার বাচ্চাটা ভিজে যাচ্ছে।” চিনতে কষ্ট হলনা। সেই মেয়েটি, আজ তিনি মহিলা………

আমার স্মৃতিআকাশ এর সিকুয়াল লেখা…

১ thought on “আমার স্মৃতিআকাশ-২ : ক্ষুদ্রকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *