ব্রহ্মার বাঙালী দর্শন

ব্রহ্মা সর্গে থাকিতে থাকিতে ক্লান্ত হইয়া পড়িলেন, অবশেষে মনস্থির করিলেন বিশ্বব্রহ্মাণ্ড ভ্রমণে বাহির হইবেন, তিনি বিষ্ণু কে ডাকিয়া কহিলেন, ওহে ভ্রাতা আমি বিশ্বব্রহ্মাণ্ড ভ্রমণে বাহির হইবো তুমি কি আমার ভ্রমণ সাথি হইবে? বিষ্ণু কহিলেন আপনার জন্মানো সন্তানেরা বড় বেশি বেয়াড়া আপনাকে তারা শ্রদ্ধা করিবে না। এই কথা শুনিয়া ব্রহ্মা মনে মনে সিদ্ধান্ত লইলেন তিনি গুপ্তচরের মত আসিবেন। অবশেষে প্রাতরাশ সেরে দ্রুত বাহির হইলেন অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হইবে কি’না। তিনি পৃথিবীতে আসিয়া অনেক দেশেই ঘুরিলেন। ঘুরিতে ঘুরিতে এক সময়ে তিনি বাংলাদেশে আসিলেন। এ দেশে আসিয়া তিনি মনেমনে ভাবিলেন এই ভূখণ্ডে এত বিশ্বাসী থাকতেও এরা এত নোংড়া কেন। আমার সর্গের কথা শুনিয়াও কি এদের বোধোদয় হয় না নোংড়ামী আমি পছন্দ করি না।



ব্রহ্মা সর্গে থাকিতে থাকিতে ক্লান্ত হইয়া পড়িলেন, অবশেষে মনস্থির করিলেন বিশ্বব্রহ্মাণ্ড ভ্রমণে বাহির হইবেন, তিনি বিষ্ণু কে ডাকিয়া কহিলেন, ওহে ভ্রাতা আমি বিশ্বব্রহ্মাণ্ড ভ্রমণে বাহির হইবো তুমি কি আমার ভ্রমণ সাথি হইবে? বিষ্ণু কহিলেন আপনার জন্মানো সন্তানেরা বড় বেশি বেয়াড়া আপনাকে তারা শ্রদ্ধা করিবে না। এই কথা শুনিয়া ব্রহ্মা মনে মনে সিদ্ধান্ত লইলেন তিনি গুপ্তচরের মত আসিবেন। অবশেষে প্রাতরাশ সেরে দ্রুত বাহির হইলেন অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হইবে কি’না। তিনি পৃথিবীতে আসিয়া অনেক দেশেই ঘুরিলেন। ঘুরিতে ঘুরিতে এক সময়ে তিনি বাংলাদেশে আসিলেন। এ দেশে আসিয়া তিনি মনেমনে ভাবিলেন এই ভূখণ্ডে এত বিশ্বাসী থাকতেও এরা এত নোংড়া কেন। আমার সর্গের কথা শুনিয়াও কি এদের বোধোদয় হয় না নোংড়ামী আমি পছন্দ করি না। ঘুরিয়া ফিরিয়া বসিলেন এক চায়ের দোকানে, একজনের কাছে প্রশ্ন করিলেন ওহে ভ্রাতা শুনিলাম তোমাদের দেশে ৩২ কোটি হস্থ তা এগুলি কি কর্মে লাগে শুনি, এই কথা শুনিয়া বাঙালী হাসিয়া উঠিলো, ব্রহ্মা জিগাইলেন হাসো কেন বৎস? বাঙালী কহিলো ১৬ কোটি হস্থ অন্যের পটুতে আঙ্গুল ঢোকানোর জন্য গর্ত খুঁজিয়া বেড়ায়। ব্রহ্মা কহিলেন আরো তো ১৬ কোটি বাকি থাকে সে গুলো কর্মে লাগাইলে দেশের চেহারা পাল্টে যেত, এই ১৬ কোটি কি ক’রে? বাঙালী হাসিয়া কয় ১৬ কোটি নিজের পটুতে হাত দিয়া ফুটো বন্ধ রাখে যেন অন্যরা গর্ত খুঁজিয়া না পায়। অবশেষে ব্রহ্মা কহিলেন আমার পটুও এ দেশে নিরাপদ নয় আমি সর্গেই ফিরিয়া যাই।

৩ thoughts on “ব্রহ্মার বাঙালী দর্শন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *