সাদা কাফন

না,কিশোরী না !
তোমার শুভ্র বসনে এ হৃদের রক্তক্ষরণ মুছে দিও না ৷
নিস্তেজ আমার ধমনীপুঞ্জ
না, পারবে না বুকে আগলে রাখতে অবশ দেহটাকে ৷
তোমার সুউচ্চ অট্টালিকা পরে
রক্তমাখা শুভ্র বসনে-
না- জয়ের পতাকা তুমি উড়িও না
এক বুক ধূসর মেঘে মেঘে
ভেসে যেতে দাও বিষাক্ত ক্যাকটাসের স্তুপ ৷
পুত পবিত্র মুকুরের সুঘ্রাণ
আমার প্রশ্বাস দ্বারে ঠেলে নাইবা দিলে ৷
কংকরের সমভূমি- সাগরের নীলজল সম
ঢেউ খেলে যায়- আহা !



না,কিশোরী না !
তোমার শুভ্র বসনে এ হৃদের রক্তক্ষরণ মুছে দিও না ৷
নিস্তেজ আমার ধমনীপুঞ্জ
না, পারবে না বুকে আগলে রাখতে অবশ দেহটাকে ৷
তোমার সুউচ্চ অট্টালিকা পরে
রক্তমাখা শুভ্র বসনে-
না- জয়ের পতাকা তুমি উড়িও না
এক বুক ধূসর মেঘে মেঘে
ভেসে যেতে দাও বিষাক্ত ক্যাকটাসের স্তুপ ৷
পুত পবিত্র মুকুরের সুঘ্রাণ
আমার প্রশ্বাস দ্বারে ঠেলে নাইবা দিলে ৷
কংকরের সমভূমি- সাগরের নীলজল সম
ঢেউ খেলে যায়- আহা !
ময়ূরপঙ্খী ভিরলো না কোন কালে ৷
দিগ্হীন মরু তেপান্তরের একরাশ
ধূ-ধূ পথ রোমন্থন করা আমি এক তীর্থের যাত্রী ৷
এক স্তুপ ধবল কুয়াশার তিমিরের ভিরে
থামিও না রথ ওগো সারথি কিশোরী মেয়ে ৷
গায়ের বসন খুলে নাইবা দিলে
অতীত স্মৃতির মৃত লাশের পরে
এক টুকরো সাদা কাফন ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *