মুক্ত

মুক্ত বাতাস তাকে বলে,
প্রাণবন্ত পানি তাকে বলে,
উর্বর মাটি তাকে বলে,
তোমাদের প্রতিটি শ্বাসে,প্রতিটি বিশ্বাসে
তোমাদের প্রতিটি উচ্চারণে, স্পষ্ট হয়ে,
মুখোমুখি,
শুধু তোমাদের সাথে কথা বলে।



মুক্ত বাতাস তাকে বলে,
প্রাণবন্ত পানি তাকে বলে,
উর্বর মাটি তাকে বলে,
তোমাদের প্রতিটি শ্বাসে,প্রতিটি বিশ্বাসে
তোমাদের প্রতিটি উচ্চারণে, স্পষ্ট হয়ে,
মুখোমুখি,
শুধু তোমাদের সাথে কথা বলে।

জন্মের পরেই সবাই বলে, তুমি সেই জন
যে জনের কথা আমরা ভেবেছিলাম
তোমার জন্মের আগে থেকে।
তোমার ধর্ম সত্য, তোমার বংশ গৌরবের
তোমার জাতীয়তা সর্বশ্রেষ্ঠ
তোমার পতাকা সবচেয়ে উচুতে দোলে,
তুমি গর্বিত,তুমি গর্বিত
তোমার ধর্ম ছাড়া আর কোন ধর্মে শান্তি নেই,
তাই খেয়াল রেখ,
অশান্তি সৃষ্টিকারী কেউ যেন মাথা তুলে না দাড়ায়।
তোমার জাত সবচেয়ে সভ্য,সুহৃয়ের জাত,
সচেতন থেকো, ইতিহাস বদলে ফেলো,
তোমার নীচ মানবিকতা আড়াল কর গৌরবে।
তুমি চুম্বন কর এই মাটি,
এই মাটি ছাড়া তোমার নিজের কোন মাটি নেই,
তোমার স্বজাত ছাড়া সহানুভূতি দেওয়ার মত কোন জাত নেই।

আমার নিজের মুক্ত বাতাসটা কোথায়?
উচ্ছল প্রাণের স্রোতময় পানিটা কোথায়?
উজ্জল রঙ্গিন গাছের সারিগুলো কোথায়?
দেখা হয়না,দেখা হয়না শুধু তাদের সাথে কোনদিন
প্রাণ ছুয়ে কেউ কোনদিন বলেনা,
তুমি মুক্ত
তোমার ধর্ম নেই,জাত নেই,দেশ নেই
তুমি মুক্ত
তোমার চিন্তায় কারো অধিকার নেই
তুমি মুক্ত
তোমার কোন সমাজ নেই
তুমি সব মানুষের, সাথে তোমার নিজস্ব সুর
তুমি এক পৃথিবীর
মহাকাল আর মহাকাশ চলাচল কর নিজের মত
যতদূর পার,বহুদুর।

১ thought on “মুক্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *