নিশব্দ ভালবাসা

“কি হয়েছে ?”

“আমার দ্বারা মস্ত বড় ভুল হয়ে গেছে ।”

“কি ভুল হয়েছে ?”

“তোমাকে খুব ভাল লেগে গেছে ”

“কি ! বামন হয়ে চাঁদ ছোয়ার চেষ্টা করো না ।”

“চেষ্টা করছি না । চাঁদ ছোয়ার স্বপ্ন দেখছি মাত্র”

” ঐ স্বপ্নও দেখো না । স্বপ্ন কথনও সত্যি হয় না ।”

” মানলাম স্বপ্ন সত্যি হয় না তবে দেখতে সমস্যা কি ?”



“কি হয়েছে ?”

“আমার দ্বারা মস্ত বড় ভুল হয়ে গেছে ।”

“কি ভুল হয়েছে ?”

“তোমাকে খুব ভাল লেগে গেছে ”

“কি ! বামন হয়ে চাঁদ ছোয়ার চেষ্টা করো না ।”

“চেষ্টা করছি না । চাঁদ ছোয়ার স্বপ্ন দেখছি মাত্র”

” ঐ স্বপ্নও দেখো না । স্বপ্ন কথনও সত্যি হয় না ।”

” মানলাম স্বপ্ন সত্যি হয় না তবে দেখতে সমস্যা কি ?”

“মিথ্যে স্বপ্ন দেখে কি লাভ ?”

“আমাদের গরীবদের স্বপ্নই সব । স্বপ্নই আশা আমাদের ।”

“কিন্তু ঐ মিথ্যে আশা করে কি লাভ ?”

“মানুষ আশাকে কেন্দ্র করেই বাঁচে । আশাই মানুষকে আলোর পথ দেখায় ।”

“আ ! আদ্যিক্ষেতা”

“যা ইচ্ছা হয় বল”

“নাহ আর ফাজলামি করতে ভাল্লাগছে না । ”

“কেন মহারানী কি হয়েছে ? পারছেন না ? আমাকে বামন বানিয়ে চাঁদ ছোয়াবেন না আপনি ? আলো হয়ে আমাকে আপনার পিছনে ছোটাবেন না !”

“ভাল্লাগছে না । আমার আর ভাল্লাগছে না । বন্ধ কর প্লীজ ।”

“আচ্ছা করলাম বন্ধ । বিয়ে কবে ?”

“২৫ তারিখ ।”

“ও”

“তুমি কি খুশি ”

“হুম খুব খুশি”

“আমি তোমায় ছেড়ে অন্য কাউকে বিয়ে করছি তোমার একটুও খারাপ লাগছে না ?”

“….”

“কি হল ?”

“কি ?

“কিছু বলছো না যে ?”

“কি বলবো ?”

“তোমার কি সত্যি খারাপ লাগছে না ?”

“না ।”

“সত্যি খারাপ লাগছে না ? ”

“বললাম তো না ।”

“তাহলে আমার সাথে প্রেমের অভিনয় কেন করলে কিছুক্ষন আগে ? আমার এতো দিনের সেইসব চাওয়া কথা গুলো বলতে গেলে ?”

মেসেজগুলোর রিপ্লাই দিতে গিয়েও হাত কাঁপছে । বিষাদগ্রস্থ আঙ্গুল চাচ্ছে না আর টাইপ করতে । তবুও লিখে চলছি । ওর সাথে আজই আমার শেষ চ্যাটিং যে । কি করে বোঝাই যে আমি তাকে আমি কতটা ভালবাসি ? এই প্রথম যখন আমি তাকে ভালবাসতে গেলাম তখনি তার বিয়ে ঠিক হল । সমাজ পরিবারের এই অদ্ভুদ মায়াজাল ছিন্ন করে না বেরিয়ে আসতে পারছি আমি না পারছে সে । কি অদ্ভুদ এ জ্বালা ! আজ তাকে না পারা সত্ত্বেও ভুলতে হবে । করতে হবে এক প্রতারনার অভিনয় ।

“কি উত্তর দিবে না তুমি ?”

“সব অভিনয় , সাজানো নাটক ।। উত্তর পেয়েছো ।”

“পেয়েছি আজ আমি সব উত্তর পেয়েছি । নিষ্পাপ ভালবাসা নিয়ে খেলা করা একটা লোকের প্রেমের পড়েছি । বুঝিনি এসব তোমার অভিনয় ছাড়া আর কিছুই না ।”

“এখন তো বোঝেছ ।।”

“হুমম । কেন করলে এটা ?”

“খুব খ্রাপ লোক তো তাই”

“তুমি তো এমন ছিলে না ?”

“তো কি ? মানুষ বদলায় , সময়ে অসময়ে ।”

“তাই বলে এতটা ! ভাবিনী কখনও ।”

“ভাবতে হবে না তোমার । যাও সংসার কর । আজ থেকে তুমিও মুক্ত আমিও মুক্ত ।”

“তোমার গলা কাঁপছে ।”

গলাখানির কন্ঠে না পারা সত্ত্বেও যথেষ্ট দৃঢ়তা এনে ,
“না কাপঁছে না”

“হা হা হা , তুমি আমায় আজও ভালবাসো ।”

“ভালবাসিনা ভালবাসিনা ভালবাসিনা ।”

“তুমি না চাইলেও ভালবাসতেই হবে ।”

“কেন ?”

তারপর আর রিপ্লাই আসে নাই সেই প্রোফাইলটা হতে । আমিও আবার জিজ্ঞেস করতে যাইনি “কেন ?” এইতো ছয় মাস । জীবন থেকে চলে গেছে সে । ওকে আর এই জীবনে ফিরিয়ে আনার কোনো মানে হয় না । তবুও মন মানে না । মন স্বপ্ন দেখে তাকে নিয়ে । সেই স্বপ্ন ,

কোন এক কাক ডাকা ভোরবেলা কপালে চুমু দিয়ে বলবে , I LOVE YOU , এবার তো ঘুম থেকে উঠো …

follow me in facebook: http://facebook.com/tanzid.da

২ thoughts on “নিশব্দ ভালবাসা

  1. আচ্ছা, ম্যাসেজের মধ্যে গলা
    আচ্ছা, ম্যাসেজের মধ্যে গলা কাঁপানো বুঝানোর কি কোন ইমো আছে? নইলে টের পাইলো ক্যামনে? :O :O

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *