বর্ষা-নিদ্রা

আসমানটা বড্ড ফুটো ফুটো হয়ে গ্যাছে
ভাঙা চালুনির ফাঁক গলে চাল ধোয়া পানি যেমন গলে যায়-
তেমন গলে গলে স্বচ্ছ করুনাজল ঝরে চলেছে
প্রতি ফোটা জল শত করুনা অবিচল
ঢেউ উঠে গ্যাছে হৃদয় জমিনে।
ডুবে যাচ্ছে অনাগত সকল উর্বরতা
ধ্বংসের দ্বারগোড়ায় গিয়ে ঠেকছে আসন্ন ভবিষ্যত।

তবুও জল ধরে তরী চলে যায়
একলা মাঝি পাল তুলে অচিন কোন গায়



আসমানটা বড্ড ফুটো ফুটো হয়ে গ্যাছে
ভাঙা চালুনির ফাঁক গলে চাল ধোয়া পানি যেমন গলে যায়-
তেমন গলে গলে স্বচ্ছ করুনাজল ঝরে চলেছে
প্রতি ফোটা জল শত করুনা অবিচল
ঢেউ উঠে গ্যাছে হৃদয় জমিনে।
ডুবে যাচ্ছে অনাগত সকল উর্বরতা
ধ্বংসের দ্বারগোড়ায় গিয়ে ঠেকছে আসন্ন ভবিষ্যত।

তবুও জল ধরে তরী চলে যায়
একলা মাঝি পাল তুলে অচিন কোন গায়
আষাড় মাইস্যা গানের মূর্ছনায়
যদি কোন বধু নাইওর যেতে উঠে এই নায়।

শহরের কোলাহলে সোঁদা মাটির গন্ধ হারিয়ে গ্যাছে
এখানে কড়া কৃত্রিম সুগন্ধি ভেসে আসে নাকে
কদম ধোয়া জল পড়ে না হঠাৎ গায়
প্রথম সে ফুল দেওয়া হয় না কোন সখীকে।
এ শহর বড়ই নিষ্ঠুর, নির্মম, যান্ত্রিক
প্রতিটা ইট এখানে বয়ে বেড়ায় একেকটা আত্মকদ্রিকতা
সীসা, কার্বন মনো বিষে এসিড হয়ে যায় কাব্যের সেই বৃষ্টি।

তবুও একলা মন ছুটে যেতে চায়
জীবনানন্দের রূপসী কোন বাংলায়
যেখানে বৃষ্টি-জল ভিজে জোছনায়
কাব্যে কাব্যে যে জল হঠাৎ আসে ভাবনায়।

আজ বৃষ্টি আছে
জলের ধারা আছে
শুধু টিনের চালের রিমঝিম ধ্বনি নেই
সৃষ্টিরা তাই বুঁদ গ্যাছে বর্ষা-নিদ্রায়।

৬ thoughts on “বর্ষা-নিদ্রা

  1. একটা ভালো কবিতা হতে হতেও হতে
    একটা ভালো কবিতা হতে হতেও হতে পারেনি প্রচুর ভুল বানানের চোটে। তবুও প্রচেষ্টা অব্যহত থাকুক।

Leave a Reply to শওকত খান Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *