পলিব্যাগে বন্দী

হঠাত বৃষ্টিতে থমকে যায় নগরী
বিভ্রান্ত হয় পথচারী
রাস্তায় যেন হঠাত্‍ করেই
যানজটের মেলা বসে যায়।

বারান্দায় প্রায় শুকিয়ে যাওয়া
কাপড়গুলো ভিজে যাওয়ায়
বিরক্ত হয় ঘরণীরা।
কাপড়গুলো কোনমতে ঘরের ভিতর
রেখে তবেই তার স্বস্তি মেলে।



হঠাত বৃষ্টিতে থমকে যায় নগরী
বিভ্রান্ত হয় পথচারী
রাস্তায় যেন হঠাত্‍ করেই
যানজটের মেলা বসে যায়।

বারান্দায় প্রায় শুকিয়ে যাওয়া
কাপড়গুলো ভিজে যাওয়ায়
বিরক্ত হয় ঘরণীরা।
কাপড়গুলো কোনমতে ঘরের ভিতর
রেখে তবেই তার স্বস্তি মেলে।

তখন সে গ্রিলের ফাঁকে
হাত বাড়ায় বিশুদ্ধতার দিকে।
পথিকরাও তাদের মহামূল্য সামগ্রী
পলিব্যাগে বন্দি করতে পারলে নির্ভাবনায়
স্নান করে উন্মুক্ত সড়কে।
নিজেদের আকুতি,আনন্দ তখনই
তারা প্রকৃতির কাছে সোপর্দ করে
যখন তাদের জাগতিক সামগ্রী
ঠাই পায় নিশ্ছিদ্র পলিব্যাগে।

ভ্যাপসা নগরীর মানুষ বৃষ্টি চেয়েছিল
আটপৌরে বৃষ্টি,হঠাত্‍ বৃষ্টি নয়।

ঈশ্বর মানুষের কামনা বাসনা হুট করে পূরণ করে।
নাগরিক মানুষ আর মানবিক মানুষের টানাপোড়ন দেখে
সে হাসে।
বাতাসে উড়ন্ত পতাকার মত
সে হাসতে থাকে।

১০ thoughts on “পলিব্যাগে বন্দী

  1. ভাল লাগলো পড়ে , মানব জীবনে
    ভাল লাগলো পড়ে , মানব জীবনে একটি বর্ষার দিন আপনার শিল্পের মাধ্যমে অংকন করতে পেরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *