আমি বাঙালি,আপনি?

আমরা বাঙালি,পাঞ্জাবি বা বিহারী না।আমরা বাংলাদেশী,পাকিস্তানি না।পাকি দের মত পৈশাচিক উল্লাস আমাদের শোভা পায় না-কারণ আমাদের অবস্থান অনেক উচুতে,ওদের মত নরকে না।কাজেই বিহারী পল্লি তে আগুন লাগিয়ে ১১ জন নিহত হওয়ার ঘটনাকে (যার মধ্যে চারজন নারী, দুইজন শিশু) আমি মেনে নিতে পারলাম না,আপনাদের মত খুশিও হতে পারলাম না।এই ভেবে উল্লাস করতে পারলাম না যে- ‘যাহ শালাদের উচিত শিক্ষা হয়েছে’।


আমরা বাঙালি,পাঞ্জাবি বা বিহারী না।আমরা বাংলাদেশী,পাকিস্তানি না।পাকি দের মত পৈশাচিক উল্লাস আমাদের শোভা পায় না-কারণ আমাদের অবস্থান অনেক উচুতে,ওদের মত নরকে না।কাজেই বিহারী পল্লি তে আগুন লাগিয়ে ১১ জন নিহত হওয়ার ঘটনাকে (যার মধ্যে চারজন নারী, দুইজন শিশু) আমি মেনে নিতে পারলাম না,আপনাদের মত খুশিও হতে পারলাম না।এই ভেবে উল্লাস করতে পারলাম না যে- ‘যাহ শালাদের উচিত শিক্ষা হয়েছে’।

বিহারী পল্লিতে পাকিস্তানি পতাকা ওড়ানো হয়,জঙ্গি ট্রেনিং দেয়া হয়,সেখানকার মানুষেরা মনে-প্রাণে ভালবাসে পাকিস্তান কে।স্বাধিনতার এত বছর পরে এসেও এখানে আমাদের কি কোন ব্যর্থতা নেই?দেশের আটকে পড়া ছোট্ট একটা পাকিস্তান কে বাংলাদেশ বানানোর কোন চেষ্টা কি আমাদের ছিল?আজ যে দুটি শিশু(এই দেশেই যাদের জন্ম) আগুনে পুড়ে মারা গেল-তারা কি পাকিস্তান চিনত না চিনত বাংলাদেশ?তাদের মৃত্যুতে আনন্দিত হয়ে আমি কি নিজেকে সেই পাকিস্তানি পশুটির মত বানিয়ে ফেলছিনা যে আছড়ে মেরেছে দুধের শিশুকে?

আতশবাজি পটকা ফুটানোর মত একটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে আগুন লাগিয়ে এই মানুষ গুলোকে মেরে ফেলা কি করে সমর্থনযোগ্য হতে পারে?স্বাধীনতার এত বছর পরে আমরা আমদের স্বদেশী পশু গুলোর বিচার করতে পারলাম না,বিহারী দের মেরে বিরত্ব দেখাব এখন?রাজাকার দেরকে আমাদের ট্যাক্সের টাকায় আরামে রাখব,আর বিহারী বলে শিশু দের আগুনে পুড়িয়ে বাঙালিত্ব ফলাবো?জামাত শিবিরের বিরূদ্ধে কথা বলার সাহস নেই,বিহারী দের গালি দিয়ে আত্মতৃপ্তি পাব?পারলে জামাতের কার্যালয়ে আগুন জ্বালিয়ে আসুন,রাজাকার দের বাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে আসুন-পারবেন না।আমাদের দেশে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে আগুন জ্বলে,রাজাকাররা এসি রুমে আরামে থাকে!আর আমরা গরিব বিহারী পল্লিতে আগুন জ্বেলে বীরত্ব দেখাই!!

যে বিহারীরা এই দেশে আটকে পড়েছিল তারা হয়তো বেশিদিন নেই।কিন্তু তাদের পরবর্তী জেনারেশন এখানে থেকে যাবে।বিহারী পল্লির ঘিঞ্জি জায়গায় যে শিশুটির জন্ম হল আজ সে শুনবে এই দেশটা আসলে তাদের দেশ না,যেই দেশের আলো বাতাসে সে বেড়ে উঠবে সেই দেশের প্রতি সে ঘৃণা নিয়ে বড় হবে,সে জানবে এই দেশের মানুষ তাদের কে আগুনে পুড়িয়ে মেরে ফেলে- তখন তার প্রতিশোধ নিতে চাওয়াটা কি অস্বাভাবিক হবে?তখন হয়তো সেই তুলে নেবে অস্ত্র,সেই প্রসার করবে জঙ্গিবাদের,সেই বিভীষিকা তৈরি করবে এই দেশে!এই শিশুটি কে সন্ত্রাসি হিসেবে বড় করে তোলার পিছনে আমাদের কি কোন ভূমিকা নেই???

এই সমস্যাটার সমাধান করা হোক,আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে মেরে ফেলা তো সমাধান না।যদি তাদের এই দেশে রাখতেই হয় তাহলে ধীরে ধীরে তাদের মূল ধারায় আনার ব্যবস্থা করতে হবে।কাজটা সহজ না,তবে চেষ্টা টুকু তো করে যেতে হবে।আমাকে হয়ত অনেক সুশিল,মানবতাবাদি ইত্যাদি ইত্যাদি বলে গালি দিতে পারে- পাকিস্তানি দের আমি ঘৃনা করি।কিন্তু তাই বলে আমার সামনে কোন পাকিস্তানি শিশু এলে আমি তাকে হত্যা করবনা।আমরা সভ্য।আর সে জন্যই যুদ্ধাপরাধীদের আমরা বিচারের দাবি করছি,আইনের মাধ্যমে বিচার করছি।তা না হলে গুলি করেই মেরে ফেলতাম।এত আইন আদালত দরকার হতনা।বিহারিরা আমাদের এখানে টিউমারের মত।টিউমার আমরা কেটে পাকিস্তানি ফেলেও দিয়ে আসছি না,টিউমার এর চিকিৎসা করা সম্ভব কিনা সেটাও ভাবছিনা।টিউমারের চিকিৎসা না করে সেটাকে খোচাতে থাকলে ব্যাথা বাড়বে,টিউমার সাড়বে না।আর টিউমার যে একদিন ক্যান্সার হবে এ আর আশ্চর্য কি?

একটি শিশু,শিশু হিসেবেই জন্ম নেয়-বিহারী কিংবা বাঙালি হিসেবে জন্ম নেয়না।বিহারী পল্লিতে জন্ম নেয়া শিশুটিকে বাঙালি করার কোন ন্যুনতম চেষ্টা কি আমরা করেছি কখনও?যারা তুচ্ছ ঘটনার সুযোগ নিয়ে এসব করেছে তাদের কথা না হয় নাই বললাম,আমাদের মধ্যে যারা এই ঘটনায় উল্লাস প্রকাশ করছে-তাদের জন্য করুনা।আপনারা যারা নারী ও শিশুদের আগুনে পুড়িয়ে মারা কে কেবল সমর্থনই করছেননা,রীতিমত উৎসাহ দিচ্ছে্ন তারা একটু ভাবুন তো – আপনি না বাঙালি ?ও হ্যা,পাকিস্তানেও কিন্তু আটকে পড়া বাঙালি আছে…

১৪ thoughts on “আমি বাঙালি,আপনি?

  1. বলিলে; বলিবেন বলিয়াছি। এরপরেও
    বলিলে; বলিবেন বলিয়াছি। এরপরেও বলিব, এই জন্যেই বলিব যে, ৭১ ভুলিতে পারি নাই। একাত্তর টানিলে বলিবেন, ৭১ এ তো; এই বিহারীরা কিছু করে নাই। যাহারা করিয়াছিলো; তাহারা মরিয়া; ভুত হইয়া গিয়াছে। আবার বলিবেন; আমরা তাহাদের ন্যায় নই। জনাব; আপনি মানবতাবাদী হইতে পারেন, মানবতার বিশাল এক ভান্ডার লইয়া; বসিয়া থাকিতে পারেন। এই সকল মানবতা; বিশ্ব মানবতা, অন্ধ মানবতা। এদের মৃত্যুতে; আমি উল্লসিত নই যেমন, তেমনি ব্যাথিতও নই। এইটুকুনই বলিতে পারি, যত শীঘ্রই সম্ভব; পাকিস্তানের উচিত; এই বিহারীদের; পাকিস্তানে লইয়া যাওয়া। স্বাধীন দেশে; পাকি পতাকা উড়ানো; আপনি স্বাভাবিকভাবে দেখিতে পারেন, তাই বলে আমি কেন মানিয়া লইবো? খালেদা জিয়া উদ্বিগ্ন হইতে পারেন, তাই বলিয়া আমি উদ্বিগ্ন হইবো কেন?

    1. বিহারী মরেছে কিনা সেটা আমি
      বিহারী মরেছে কিনা সেটা আমি দেখিনি,শিশু মরেছে সেটিই দেখেছি।এই বিহারিরার পাকিস্তানে যেতে আগ্রহী কিন্তু পাকিস্তানি শুকরেরা তাদের জাত ভাইদের নিতে আগ্রহি না।অতএব এদের বোঝা আমাদের কেই বহন করতে হবে।যেহেতু এরা এখানেই থাকছে অতএব এদের কে কি করে মূল ধারায় আনা যায়,সমস্যা গুলো কিভাবে সমাধান করা যায়- সেটাই চিন্তার বিষয়।পুড়িয়ে মেরে ফেলা সমাধান নয় এটা মানবেন আশা করি।আর আপনি যদি উল্লসিত না হয়ে থাকেন-তাহলে এই লেখা আপনাকে উদ্দেশ্য করে না।ভাল থাকবেন 🙂

      1. এই বিহারিরার পাকিস্তানে যেতে

        এই বিহারিরার পাকিস্তানে যেতে আগ্রহী কিন্তু পাকিস্তানি শুকরেরা তাদের জাত ভাইদের নিতে আগ্রহি না

        যতদূর জানি, এই বিহারীগুলো পাকিস্তানী নয় বরং ভারতীয়।
        তাহলে তারা পাকিস্তানে ফেরত যেতে চাইবে কেন বা তাদের পাকিস্তান সরকার নেবে কেন?

        1. আমিও সেটাই জানি।তবে
          আমিও সেটাই জানি।তবে পাকিস্তানিরা স্বাভাবিক ভাবেই এদের নিতে চাইবে না।কত গুলো গরিব মানুষ কে নিয়ে দেশের উপর চাপ বাড়াবে না।অবশ্য পাকি দের আবার চাপ!! পাকিস্তান ও একটা দেশ!! যাই হোক,এদেশে আটকে পড়া বিহারিরা মূলত ৪৭ এ দেশ ভাগের পরে চলে আসা বিহারি,যারা মুসলমান পরিচয়ের কারণে পূর্ব পাকিস্তানে চলে আসে।পূর্ব পাকিস্তান বাংলাদেশ হয়ে গেলেও এরা থেকে যায়।এরা এখনও নিজেদের মনে প্রাণে পাকি মনে করে।

    2. এদের মৃত্যুতে; আমি উল্লসিত নই

      এদের মৃত্যুতে; আমি উল্লসিত নই যেমন, তেমনি ব্যাথিতও নই।

      কেন ভাই? আপনি কি ৭১-এ পাকিস্তানী হানাদার বর্বরদের জাতভাই নাকি? আপনি কি চান বাঙ্গালিরা পাকিস্তানীদের মত হয়ে যাক? আপনি কি চান বাংলাদেশিরা পাকিস্তানীদের কাছে হেরে যাক?

      দুঃখের বিষয়, আপনি সেটাই চান মনে হচ্ছে!

      আপনার মত দেশপ্রেমিকের স্থান হয়া উচিত পাকিস্তানিদের সাথে, বাংলাদেশিদের সাথে নয়!

  2. মানুষ একই ভুল বারবার
    মানুষ একই ভুল বারবার করে,পূর্ব পুরুষের হত্যাকারীর ভূত তার ভিতর নতুন করে জন্ম নেয়,একই পাশবিকতা তাকে মানসিক শান্তি দেয়

  3. একটি শিশু,শিশু হিসেবেই জন্ম

    একটি শিশু,শিশু হিসেবেই জন্ম নেয়-বিহারী কিংবা বাঙালি হিসেবে জন্ম নেয়না।বিহারী পল্লিতে জন্ম নেয়া শিশুটিকে বাঙালি করার কোন ন্যুনতম চেষ্টা কি আমরা করেছি কখনও?

    বিহারীদের বাঙ্গালিদের জাতিসত্তার সাথে মিশে যাওয়াটাই হতে পারে একটা সমাধান।

    1. আমান ভাই তা হলে ভাল হত।
      আমান ভাই তা হলে ভাল হত। কিন্তু আমি একটি লি খায় দেখিয়েছিলাম . ইহুদিদের. হিব্রু প্রেম বিহারী দের উর্দু প্রেম।

      জে জায় হোক. এই রকম হত্যাকাণ্ডের. তিব্র নিন্দা .

  4. হারামজাদারা সব মরে সাফ হয়ে
    হারামজাদারা সব মরে সাফ হয়ে যাক। আমার দেশের মানুষ যখন মরে, তখন কষ্ট পাই। কিন্তু বেজন্মা বিজাতীয় ফাকস্থানীদের দোসরদের মৃত্যুতে আমার কোনো কিছুই যায় আসে না।
    শেহজাদ আমান ভাইদের মতো সিজনাল মানবতাবাদী নই আমি। নিজ দেশের কোনো একটি দলের কর্মীরা মরলে তার কোনো কষ্ট লাগেনা, কিন্তু ফাকস্থানী জারজদের ভাই বেরাদররা মরলে উনার মানবতাবোধ চাগিয়ে ওঠে। এসব মানবতার মুখে আমি পিশাব করি।
    আমার দেশের মানুষ আগে, ফাকস্থানী বেজন্মা দোচার টাইম নাই।

    1. নিজ দেশের কোনো একটি দলের

      নিজ দেশের কোনো একটি দলের কর্মীরা মরলে তার কোনো কষ্ট লাগেনা………

      আজাইরা কথা বলেন কেন ভাই? আমি ব্লগে সবসময় শিবির কতৃক লীগের ছেলেদের রগ কাটারও প্রতিবাদ জানিয়ে গিয়েছি!

  5. নিজ দেশের কোনো একটি দলের

    নিজ দেশের কোনো একটি দলের কর্মীরা মরলে তার কোনো কষ্ট লাগেনা

    …আজাইরা কথা বলেন কেন ভাই? আমি ব্লগে সবসময় শিবির কতৃক লীগের ছেলেদের রগ কাটারও প্রতিবাদ জানিয়ে গিয়েছি!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *