উজবুক সরকার; বেকুব জনগন পর্ব-০২

রাজনীতির এই ঘেরাটোপ থেকে বন্দি আওয়ামীলীগের মুক্তির উপায় কি?

বিশ্বাস করুন আর নাই করুন, এই বন্দি দশা থেকে মুক্তির মন্ত্র এক মাত্র আওয়ামীলীগের হাতেই তবে এখানে একই সাথে কঠোর এবং কমল হওয়া ছাড়া তাদের গত্যন্তর নেই। কঠোর হতে হবে নিজের সাথে, নিজের বিবেকবোধের সাথে, লুটপাটে ব্যাস্ত আমলা মন্ত্রীদের সাথে, দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে, আঁচলে পোষা ফণা তোলা গোখরার সাথে এবং অবশ্যই নিজের ক্ষমতা-লিপ্সার সাথে। সেই সাথে কোমল হতে হবে বিরোধী মতবাদের সাথে, বিরোধী দলগুলোর সাথে। মতগত পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও যে রাজনৈতিক দলগুলো দেশীয় উন্নয়নের পথে অন্তরায় নয় তাদের সাথে সমঝোতার ভিত্তিতে রাষ্ট্র পরিচালনার ভার ভাগাভাগি করার মানসিকতা তৈরি করতে হবে।



রাজনীতির এই ঘেরাটোপ থেকে বন্দি আওয়ামীলীগের মুক্তির উপায় কি?

বিশ্বাস করুন আর নাই করুন, এই বন্দি দশা থেকে মুক্তির মন্ত্র এক মাত্র আওয়ামীলীগের হাতেই তবে এখানে একই সাথে কঠোর এবং কমল হওয়া ছাড়া তাদের গত্যন্তর নেই। কঠোর হতে হবে নিজের সাথে, নিজের বিবেকবোধের সাথে, লুটপাটে ব্যাস্ত আমলা মন্ত্রীদের সাথে, দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে, আঁচলে পোষা ফণা তোলা গোখরার সাথে এবং অবশ্যই নিজের ক্ষমতা-লিপ্সার সাথে। সেই সাথে কোমল হতে হবে বিরোধী মতবাদের সাথে, বিরোধী দলগুলোর সাথে। মতগত পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও যে রাজনৈতিক দলগুলো দেশীয় উন্নয়নের পথে অন্তরায় নয় তাদের সাথে সমঝোতার ভিত্তিতে রাষ্ট্র পরিচালনার ভার ভাগাভাগি করার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। এখানে উল্লেখ্য যে, এ দেশের মাটিতে বসে যে বা যারা অন্য দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে তাদেরকে কঠোর হস্তে দমন করাও একজন যোগ্য সরকারের দক্ষতার পরিচায়ক।

আওয়ামীলীগকে সাধারন মানুষের চিন্তা চেতনার দিকে মনোসংযোগ দিতে হবে। যে যাই বলুক, যেন তেন একটা নির্বাচন দিয়ে সরকার গঠন করা সত্ত্বেও সাধারন শ্রেণীর ভোটার এখনও নিশ্চুপ তার কারন এখনও মানুষ আশায় বুক বেঁধে আছে যে আওয়ামীলীগ সরকার দেশের উন্নয়নে যা হোক একটা কিছু করবেই। কিন্তু বিগত নামকাওয়াস্তে নির্বাচনের পর দলীয় মন্ত্রী-আমলা-নেতা-কর্মীদের স্বেচ্ছাচারিতা এমন পর্যায়ে পৌঁছে গেছে যে সাধারন মানুষ আর কতদিন এভাবে নিশ্চুপ থাকবে তা সময়ই বলে দেবে এবং সাধারন মানুষ একবার ক্ষেপে গেলে এই সরকারের পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ হবে তা কল্পনাতীত। তাই, সরকার যদি এখনই এই বিষয়গুলো সম্পর্কে ত্বরিত কোন সিদ্ধান্ত না নিতে পারে তবে তার ভয়াবহ ফলের জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না।

বি এন পি দলীয় নেত্রী এবং তার ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব প্রায় প্রত্যেক জনসভায় বলে থাকেন যে এই সরকার ব্যর্থ তাই এই সরকারের আর এক মুহূর্ত ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। অনলাইনেও এটি প্রায় একটি বহুল প্রচারিত বুলি। যা হোক, যারা চাইছেন এই সরকার ক্ষমতাচ্যুত হোক তারা জেনে শুনেই এই বুলি কপচিয়ে থাকেন যাতে সবার কানে এই ম্যাসেজ পৌঁছে যায় যে এই সরকার ব্যর্থ এবং তাদেরকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই হবে। এই কথার সারবত্তা প্রমানে দেশজুড়ে যে গুম খুনের বহুল প্রচলন শুরু হয়েছে তার কি কোন যোগসাজশ নেই? আওয়ামী দলীয় স্বার্থপরতার রাজনীতির সুযোগে এই সব কাজে কি অন্য দলীয় রাজনৈতিক শক্তির কোন ইন্ধন নেই? সারা দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করে সরকারকে অকর্মণ্য প্রমাণ করতে কেউ যে পর্দার অন্তরালে সাপ-লুডুর খেলা খেলচে না, সেটাই বা কি করে নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব? জামাতে ইসলামের ইন্টারন্যাশনাল জঙ্গি কানেকশন ইতিমধ্যেই একটি প্রমানিত সত্য হিসেবে প্রকাশ হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচালে তারা কি বসে বসে আঙ্গুল চুষছে? দেশ জুড়ে যে আওয়ামী নেতা-কর্মী খুনের মহোৎসব চলছে , তার সাথে কি এদের কোনই যোগসূত্র নেই? ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি ভেবে এই জঙ্গিদের কি মদদ দিচ্ছে না খোদ বি এন পি নিজেই?

আওয়ামীলীগের এখন দশের চাপে ভগবান অস্থির অবস্থা, তার উপর যদি নিজেদের অন্তঃকোন্দল এবং দলীয় বিশৃঙ্খলা যোগ হয় তবে নিশ্চিত থাকা যেতে পারে যে এ সরকারের আর খুব বেশি দিন নেই। “ আর কোনদিন এ রকম সুযোগ আসবে কি না কে জানে “ এ রকম ভেবে যে নেতা কর্মীরা যা পাচ্ছেন তাই গোগ্রাসে গিলছেন তাদের টুঁটি এখনই টিপে ধরতে না পারলে সাধারন জনগন যে সে কাজটা করবেই তা সন্দেহাতীত। দেখতে হবে, কাকে আগে তাদের দায় টা পরিশোধ করার জন্য এগিয়ে আসতে হয়। শুদ্ধি অভিযানে নামলে হয়তো আওয়ামীলীগকে সাময়িক অসুবিধায় পড়তে হবে কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে সাধারন মানুষের যে আশীর্বাদ তাদের মাথায় বর্ষিত হবে তার ফলটাও নেহায়েত তেঁতো হবে না।

উজবুক সরকার; বেকুব জনগন পর্ব-০১

১৯ thoughts on “উজবুক সরকার; বেকুব জনগন পর্ব-০২

  1. এই সরকার ব্যর্থ এবং তাদেরকে

    এই সরকার ব্যর্থ এবং তাদেরকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই হবে। এই কথার সারবত্তা প্রমানে দেশজুড়ে যে গুম খুনের বহুল প্রচলন শুরু হয়েছে তার কি কোন যোগসাজশ নেই? আওয়ামী দলীয় স্বার্থপরতার রাজনীতির সুযোগে এই সব কাজে কি অন্য দলীয় রাজনৈতিক শক্তির কোন ইন্ধন নেই? সারা দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করে সরকারকে অকর্মণ্য প্রমাণ করতে কেউ যে পর্দার অন্তরালে সাপ-লুডুর খেলা খেলচে না, সেটাই বা কি করে নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব? জামাতে ইসলামের ইন্টারন্যাশনাল জঙ্গি কানেকশন ইতিমধ্যেই একটি প্রমানিত সত্য হিসেবে প্রকাশ হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচালে তারা কি বসে বসে আঙ্গুল চুষছে? দেশ জুড়ে যে আওয়ামী নেতা-কর্মী খুনের মহোৎসব চলছে , তার সাথে কি এদের কোনই যোগসূত্র নেই? ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি ভেবে এই জঙ্গিদের কি মদদ দিচ্ছে না খোদ বি এন পি নিজেই?

    এতো প্রশ্নের উত্তর একসাথে খুঁজতে গেলে নির্ঘাত ভজঘট লেগে যাবে।

    1. সব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবে
      সব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবে ভাই না হলে এই প্রশ্নগুলোর ফাঁকে ফাঁকে আরো অনেক প্রশ্ন উঁকি ঝুকি মারতে পারে।

    1. বাহে আপ্নার পথ দেখানো ভাল

      বাহে আপ্নার পথ দেখানো ভাল লাগ্ল। কিন্তুক.

      কিন্তুক কি? প্যাচাইতে ইচ্ছে করতেছে?

  2. পোস্টের প্রথম প্যারা ইস্কে
    পোস্টের প্রথম প্যারা ইস্কে জাফরান কালি দিয়ে পাতলা কাগজে লিখে সকল আওয়ামীলীগ নেতা -কর্মীর গলায় তাবিজ ঝুলায়া রাখা উচিত। যতদিন পার্টির সাথে জড়িত থাকবে, ততদিন গলায় এই তাবিজ ঝুলাইতে হইবে। আপনার অবশ্য তাবিজ ঝুলানোর দরকার নাই। সাতদিন পানিতে চুবায়া এক গ্লাস করে পানি খাইলে উন্নতি হওয়ার চাঞ্জ আছে।

    দ্বিতীয় প্যারার চর্চা গত ছয় বছর ধরেই করে আসছেন। আর কত? এই কথা এখন আর মার্কেটে খায় না!

    তৃতীয় প্যারার ভবিষ্যত নির্ভর করছে মদিনা সনদ বাস্তবায়নের উপর!

    1. (No subject)
      :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:
      :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য:

      1. দেইক্ষেন, হাসতে হাসতে জ্যান
        দেইক্ষেন, হাসতে হাসতে জ্যান কাপড় খুইল্লা পইড়া না যায়!
        পাবলিক তাইলে কইলাম ল্যাঞ্জা খান দেইক্ষালাইবো!

    2. পোস্টের প্রথম প্যারা ইস্কে

      পোস্টের প্রথম প্যারা ইস্কে জাফরান কালি দিয়ে পাতলা কাগজে লিখে সকল আওয়ামীলীগ নেতা -কর্মীর গলায় তাবিজ ঝুলায়া রাখা উচিত। যতদিন পার্টির সাথে জড়িত থাকবে, ততদিন গলায় এই তাবিজ ঝুলাইতে হইবে। আপনার অবশ্য তাবিজ ঝুলানোর দরকার নাই। সাতদিন পানিতে চুবায়া এক গ্লাস করে পানি খাইলে উন্নতি হওয়ার চাঞ্জ আছে।

      তা কোন হুজুরের কাছে যেতে হবে ভায়া?
      শফি হুজুর না আপনাদের ফাদারে আজম সাহাবের কাছে?
      ঐ খোঁজগুলো তো আপনাদের কাছেই থাকার কথা!

        1. আরে! ফর্মুলা দিলেন আপনি,
          খুপ

          আরে! ফর্মুলা দিলেন আপনি,

          খুপ খ্যাল কৈরা, তাবিজ কবজের ফরমুলা কিন্তুক আপনিই দিচেন!

          1. তাবিজ আপনার জন্য না। আপনিতো
            তাবিজ আপনার জন্য না। আপনিতো লাইনে একটু হইলেও লাইনে আছেন। অন্তত আপনার দল ভুল করছে, এই উপলব্দিটুকু আছে। যাদের নাই তাদের জন্য তাবিজ। আপনার জন্য তাবিজ ধোয়া পানি হইলেই যথেষ্ঠ!

            আপনার ফর্মূলা, আমার বাস্তবায়নের নির্দেশনা!

          2. তাবিজ আপনার জন্য না, আপনার

            তাবিজ আপনার জন্য না, আপনার জন্য তাবিজ ধোয়া পানি হইলেই যথেষ্ঠ!

            সেই তাবিজটাই তো আপনার কাছে চাইতেছি, পাইলে একটু ধুইয়া খাইতাম।
            দিবেন নি?

      1. দেশ বাঁচাইতে হইলে শুধু লীগের
        দেশ বাঁচাইতে হইলে শুধু লীগের কর্মীদের ভাল হইলে চলবে না। সব দল আর সাধারণ মানুষকে ভাল হইতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *