কৃতজ্ঞতা বা স্নেহের মুল্য !!

ঢালিউডে তখন চরম ভিলেন সংকট, গোলাম মোস্তফা, হূমায়ূন ফরিদী, খলিল, রাজিব, এটিএম- এদের সবাই বয়োবৃদ্ধ ,কেউ কেউ মারাও গেছেন তদ্দিনে । এসময় হঠাত্‍ই “ডিপজল” নামের এক কড়া ভিলেনের আবির্ভাব ঘটল ! প্রথম ছবিতেই মেগা হিট, এলাম-দেখলাম-জয় করলাম টাইপ অবস্থা ! দূর্দান্ত ভয়ঙ্কর চেহারা এবং ততোধিক আতঙ্কময় এক্সপ্রেশন মিলিয়ে বিদঘুটে এক প্যাকেজ ! তার অভিনয় ও একেবারেই বাস্তবমূখী ।
কিছুদিনের মধ্যেই জানা গেল, তিনি একজন পেশাদার এবং নেশা’দার সন্ত্রাসী, বিম্পির ওয়ার্ড কমিশনার ! তার দৈনন্দীন কর্মকান্ড হচ্ছে- চান্দাবাজী এবং ধান্ধাবাজি !


ঢালিউডে তখন চরম ভিলেন সংকট, গোলাম মোস্তফা, হূমায়ূন ফরিদী, খলিল, রাজিব, এটিএম- এদের সবাই বয়োবৃদ্ধ ,কেউ কেউ মারাও গেছেন তদ্দিনে । এসময় হঠাত্‍ই “ডিপজল” নামের এক কড়া ভিলেনের আবির্ভাব ঘটল ! প্রথম ছবিতেই মেগা হিট, এলাম-দেখলাম-জয় করলাম টাইপ অবস্থা ! দূর্দান্ত ভয়ঙ্কর চেহারা এবং ততোধিক আতঙ্কময় এক্সপ্রেশন মিলিয়ে বিদঘুটে এক প্যাকেজ ! তার অভিনয় ও একেবারেই বাস্তবমূখী ।
কিছুদিনের মধ্যেই জানা গেল, তিনি একজন পেশাদার এবং নেশা’দার সন্ত্রাসী, বিম্পির ওয়ার্ড কমিশনার ! তার দৈনন্দীন কর্মকান্ড হচ্ছে- চান্দাবাজী এবং ধান্ধাবাজি !

আসলে পেশা আর নেশা একই সরল রেখায় মিলে গেলে, উভয় ক্ষেত্রেই তার পারর্ফম্যান্স দূর্দান্ত হবে ! এটা অনিবার্য !

কিন্তু এক/এগারোর নাটকীয় পট পরিবর্তনের সাথে সাথেই অন্য আরো বহুকিছুর মত ডিপজল ও নগদে গায়েব ! অবশ্য যেখানে ‘হাওয়া ভবন’ই ‘হাওয়া’ হয়ে যায়, সেখানে ডিপজল ত কোন ছার ! এরপর তাকে আর কোথাও দেখা যায় নাই ! জাতি হারাল মেধাবী সন্ত্রাসীকে আর ঢালিউড হারাল এক ঐতিহাসিক ভিলেন কে !!

তবে টেনশনের কিচ্ছু নাই । রাজা গেলে মহারাজা আসে !! শামীম ওসমান গতকাল জাতীয় সংসদ অধিবেশন থেকে ঢালিউডি পরিচালক দের বার্তা দিয়েছেন – কিসকা হ্যায় এ তুমকো ইন্তেজার- ম্যায় হু না !!

গতকালই বুঝলাম যে, ডিপজলের যোগ্য রিপ্লেসমেন্ট হতে পারেন একমাত্র শামীম ওসমান, তিনি প্রথম চালেই ডিপজল কে ছাড়িয়ে গেছেন ! এমন কি নিঃসন্দেহে এটাও বলা যায় যে, ডিপজলের আগে যদি এফডিসি তে শামীমের ডেব্যু হত, তাইলে পাবলিক ‘ডিপজল’ নামটাই শুনত না কখনো !

রাজনীতিবিদরা রক্ত,লাশ ইত্যাদি দেখতে দেখতে এতই অভ্যস্ত যে এসব জিনিস তাদের মনে তেমন একটা প্রভাব ফেলে না সাধারণত । অথচ শামীম ওসমানের মাত্র কয়েক মিনিটের বক্তব্যে আবেগাপ্লুত হয়ে তারা কেদেই ফেললেন !! সুবহানাল্লাহ, কি নরম কোমল হৃদয়ের অধিকারী তারা ! উল্লেখ্য, সাধারণ মৃত্যু বা হত্যাকান্ড তাদের মনে তেমন ভাবে প্রভাব বিস্তার না করলেও ; গ্যাং মার্ডারের ক্ষেত্রে, যেমন সেদিনের ৭ খুনের মত নৃশংসভাবে মেরে শীতলক্ষায় ভাসিয়ে দেয়াকিন্তু ভালভাবেই তাদের মনে প্রভাব বিস্তার করার কথা । কিন্তু কৈ এ ব্যাপারে তাদের কোন প্ররতিক্রিয়াই দেখা যায় নাই , অথচ নাসিমের স্বাভাবিক মৃত্যুতে তারা এতটাই আবেগাপ্লুত ! আসল ব্যাপার হচ্ছে শামীমের বক্তব্য ,তার অভিনয়ে “সহজাত” দক্ষতা, মাধুর্য়পূর্ণ ভাষার ব্যাবহার, সঠিক সময়ে চোখের পানি বিসর্জন ইত্যাদি সকল জিনিসের কম্বিনেশন এতটাই পার্ফেক্ট ছিল যে, উপস্থিত কঠিন হৃদয়ের অধিকারী সাংসদরা পর্যন্ত অতি মূল্যবান চোখের পানি বিসর্জন দিয়েছেন, কিংবা দিতে বাধ্য হয়েছেন ! এইখানে শামীম ওসমানের কেরামতি, ওস্তাদের মাইর শেষ রাইতে !!

তো এই লোক রে শ্রেষ্ঠতম অভিনেতার স্বীকৃতি না দিয়া উপায় আছে !? এটা এখন সময়ের দাবী !

আশা করি অচিরেই শামীম ওসমানের কাছে চলচ্চিত্র পরিচালকরা পাল্টা বার্তা পাঠাবে – তোমরা আমাদের একটি শামীম ওসমান দাও ,আমরা তোমাদের অভিনয় শাখায় একটি “অস্কার পুরস্কার” দেব !!
শামীম ওসমানের উচিত যথা শীঘ্রী অভিনয়ে যোগদান করা, বাংলাদেশ থেকে কেউ যদি অস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পায় – সে হবে শামীম ওসমান ! জাগাত খাড়াই এতগুলা পাবলিক রে বিদিক কৈরা দিল ! এলেম আছে মাইরি ! সাকিব আল হাসান যদি বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার হতে পারে ,তাইলে শামীম ওসমান কেন বিশ্বের সেরা অভিনেতা হৈতে পারবে না !? অবশ্যই পারবে, তিনি সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থনাপূর্বক দোয়া চেয়েছেন । তাই দোয়া রৈল – তিনি অবশ্যই একদিন অস্কার বিজয় করে দেশবাসীকে গর্বিত করবেন নিশ্চয়ই !

আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ, বঙ্গবন্ধু যে ভূলটা করছেন , সেই একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করবেন না প্লিজ । ‘র’ এর প্রধাণ কাই খুনীদের নাম ধাম সহ উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধুকে বহুবার বলেছেন যে ,স্যার এরা আপনাকে হত্যা করবে ,আমাদের কাছে তথ্য আছে । বঙ্গবন্ধু তাকে উল্টা ধমক দিয়ে বলতেন ,তুমি যাদের কথা বলছে তারা আমার সন্তানসম । এরা আমাকে হত্যা করবে ? তুমি তোমার চরকায় তেল দাও । বঙ্গবন্ধুকে সেই ভূলের মাশুল দিতে হয়েছিল ‘সন্তানসম ঘাতক”দের হাতে স্বপরিবারে নিহত হয়ে ! স্নেহের মূল্যটা ছিল খুব বেশি !
শামীমের প্রতি অপাত্য স্নেহের বশবর্তি হয়ে তাকে আরো প্রশ্রয় দেয়াটা বোধয় ঠিক হবে না । সিংহভাগ দেশবাসী এটা পছন্দ করতেছে না । ‘প্রয়োজনে ওসমান পরিবার কে দেখা শোনা করব’ প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর ৭ খুন মামলায় শামীমের সংশ্লিষ্টত বিষয়ক তদন্তকাজ প্রভাবিত হবার সম্ভাবনা ব্যাপক ! এদেশের পুলিশ প্রধানমন্ত্রীর পছন্দ-অপছন্দকে ইগনোর করবে , এটা ভাবাটাই ত বোকামি !

গণতান্ত্রিক দেশে একজন শামীম বা ওসমান ফ্যামিলির সমর্থন পাবার চেয়ে ,পুরো দেশের জনসমর্থন অগ্রাহ্য করাটা কি উচিত হবে !? শামীম ওসমান ত আজকের না, বহু আগে থেকেই সিল মারা আইটেম, সবাই তাকে সন্ত্রাসী হিসাবেই চেনে ! আরো দুঃখজনক হচ্ছে, শামীমের কর্মকান্ডের সম্পূর্ণ দায় কিন্ত আওয়ামীলীগ কেই নিতে হচ্ছে ! অথচ …

সে এ বিযয়ে দিনের পর দিন আওয়ামীলীগের সঙ্গেই মিথ্যাচার করে গেছে ! অথচ নূর হোসেনের সাথে তার কথোপকথনের অডিও লিক হবার পর, শামীমের সংশ্লিষ্ঠতা দিনের আলোর মতই পরিস্কার ! শামীম বলে , সে নাকি নূরকে আত্নসমর্পন করতে বলছিল ! অথচ তার পরদিন রাইফেলস ক্লাবে নূরের সাথে “ডেটিং” করতে দেখছে ,দেশের সব সাংবাদিক ! শামীম যদি নূর কে আর্তসমর্পন করতেই বলে ,তাইলে সেদিন কেন তারে পুলিশ বা র্যাবের কাছে হস্তান্তর করল না !?

নারায়নগঞ্জের পুলিশ প্রশাসন কিংবা র্যাবের যারা দায়িত্বরত ছিলেন , তাদেরকে শামীম ওসমানই ট্রান্সফার করে বিভিন্ন জায়গা থেকে নারায়ন গঞ্জে এনেছেন ।পরবর্তিতে এদের কারো ট্রান্সফার অর্ডার এলে ও কিছু দিনের মধ্যেই আবার তাদের ফিরিয়ে আনত ক্ষমতার জোরে !!
সেই মূলত নাটের গুরু !
স্বীয় স্বার্থ সিদ্দির জন্য সে ক্রমাগত আওয়ামীলীগ কেই ব্যাবহার করে যাচ্ছে । লাভ তার ,কিন্তু দায়ভার আওয়ামী লীগের !

কথায় বলে , এক ঝুড়ি আমের মধ্যে একটা পচা থাকলে, ঝুড়িতে থাকা সকল আমেই পচন ধরে ! মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ, দেশ এবং দল- উভয় স্বার্থেই তাকে আরো আশকারা দিয়ে উত্‍সাহিত না করে এক ‘পচা আম’ টাকে আওয়ামীলীগের ঝুড়ি থেকে ছুড়ে ফেলে দেন , নৈলে পুরা আওয়ামীলীগেই পচন ধরা সময়ের ব্যাপার মাত্র !

১৪ thoughts on “কৃতজ্ঞতা বা স্নেহের মুল্য !!

  1. আলীগের যে পচন চলতেছে তা ৭৪/৭৫
    আলীগের যে পচন চলতেছে তা ৭৪/৭৫ সালের কথা মনে করিয়ে দেয়।তখন আলীগের নেতারা রক্ষিবাহিনীর অপব্যবহারের মাধ্যমে দেশজুড়ে ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করছিলেন।বর্তমান সময়ও তার ব্যতিক্রম নয়।

    1. তা হয়ত ঠিক কিন্তু সেই
      তা হয়ত ঠিক কিন্তু সেই রক্ষীবাহিনীকে ত জিয়া এরশাদ, খালেদা এরা সবাই’ই অপব্যাবহার করছে । রক্ষীবাহিনীর সিংহ ভাগ সদস্যকেই সেনাবাহিনীতে রিক্রুট করা হইছিল । যেমন, ১/১১র সময় সেনাবাহিনীর ২য় প্রধান ব্যাক্তি মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী ও রক্ষীবাহিনী থেকেই সেনাবাহিনীতে নিয়োগ পেয়েছিলেন !! এটাই এদেশের রাজনীতির ধর্ম, খারাপ জিনিসের অপব্যাবহার করতে সকলেই উদ্গ্রিব !

      1. হুম। আমরা বাঙালিরা ভাল নিজে
        হুম। আমরা বাঙালিরা ভাল নিজে কিছু করতে না পারলেও অপর বাঙালির ভাল জিনিসকে নষ্ট করতে বেশ পারদর্শী।

    2. ইতিহাস কি ঘুরে ফিরে আসাটাই এই
      ইতিহাস কি ঘুরে ফিরে আসাটাই এই জাতির কপাল লিখন? আমি জানিনা শেখ হাসিনা মাথায় কি চিন্তা কাজ করছে। এসব নিয়ে কিছু বলাও তো বিড়ম্বনার। চেলা চামুণ্ডার দল এসে ঝাঁপায়ে পড়ে ছাগু, খাসি ইত্যাদি উপাধি দিয়ে দেবে।

      1. চেলা চামুণ্ডার দল এসে ঝাঁপায়ে

        চেলা চামুণ্ডার দল এসে ঝাঁপায়ে পড়ে ছাগু, খাসি ইত্যাদি উপাধি দিয়ে দেবে।

        এদের ভয়ে থেমে থাকলে তো হবেনা। এইসব আম্লীগর গরুদের প্রতিরোধ করতে হবে সম্মিলিতভাবে।

      2. হাসিনার মাথা পুরো ক্রাক হয়ে
        হাসিনার মাথা পুরো ক্রাক হয়ে আছে। ভারতীয় দাদারা যা বলবেন তাই হবে। এর বাইরে গেলে হাসিনাকে তার পিতার পরিণতি ভোগ করতে হবে।

      3. আতিক ভাই যুক্তি যেখানে অচল
        আতিক ভাই যুক্তি যেখানে অচল ,সেখানেই গালাগালির কথা আসে । কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটা ষ্ট্যাটাস মারছিলাম সিপি গ্যাংয়ের উদ্দেশ্যে ,নগদে চ্যালাচামুন্ডা সহ আইজু গ্যাং হাজির । তার চ্যালারা আউল ফাউল কথা বলতে আসছিল, ঠান্ডা কৈরা দিছি । বিস্ময়ের ব্যাপার , আইজু কেবল একটা কথাই বলছে “সেলাম, পোষ্ট ভাল হৈছে ” !! জাষ্ট এটুকুই , ভাগ্য বোধয় আমার একটু বেশি ভালো ….
        বিষয়টা হৈল , আপনার ভেতর যুক্তিবোধ না থাকলে , গালাগালি দিয়া বেশিদিন চলতে পারবেন না ,ধরা খাইতে হবে ।
        আশার বিষয়, এরা ব্যাপারটা ইদানীং ভালমতই বুঝতেছে

      4. আতিক ভাই যুক্তি যেখানে অচল
        আতিক ভাই যুক্তি যেখানে অচল ,সেখানেই গালাগালির কথা আসে । কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটা ষ্ট্যাটাস মারছিলাম সিপি গ্যাংয়ের উদ্দেশ্যে ,নগদে চ্যালাচামুন্ডা সহ আইজু গ্যাং হাজির । তার চ্যালারা আউল ফাউল কথা বলতে আসছিল, ঠান্ডা কৈরা দিছি । বিস্ময়ের ব্যাপার , আইজু কেবল একটা কথাই বলছে “সেলাম, পোষ্ট ভাল হৈছে ” !! জাষ্ট এটুকুই , ভাগ্য বোধয় আমার একটু বেশি ভালো ….
        বিষয়টা হৈল , আপনার ভেতর যুক্তিবোধ না থাকলে , গালাগালি দিয়া বেশিদিন চলতে পারবেন না ,ধরা খাইতে হবে ।
        আশার বিষয়, এরা ব্যাপারটা ইদানীং ভালমতই বুঝতেছে

  2. (No subject)
    :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ:

  3. আসল ব্যাপার হচ্ছে শামীমের

    আসল ব্যাপার হচ্ছে শামীমের বক্তব্য ,তার অভিনয়ে “সহজাত” দক্ষতা, মাধুর্য়পূর্ণ ভাষার ব্যাবহার, সঠিক সময়ে চোখের পানি বিসর্জন ইত্যাদি সকল জিনিসের কম্বিনেশন এতটাই পার্ফেক্ট ছিল যে, উপস্থিত কঠিন হৃদয়ের অধিকারী সাংসদরা পর্যন্ত অতি মূল্যবান চোখের পানি বিসর্জন দিয়েছেন, কিংবা দিতে বাধ্য হয়েছেন ! এইখানে শামীম ওসমানের কেরামতি, ওস্তাদের মাইর শেষ রাইতে !!

    শামীম অষমানের নাম দেয়া হোক শীতজল ( শীতলক্ষা নদীর জলে…) !

Leave a Reply to যুবায়ের তনিম Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *