হাল-ফ্যাশন…নাস্তিকতা…ও কমিউনিজম !!!

মানুষের কিছু ব্যাপার-স্যাপার বরাবরই আমার কাছে নেহাত ফ্যাশন বলে মনে হয়…|

মানুষের কিছু ব্যাপার-স্যাপার বরাবরই আমার কাছে নেহাত ফ্যাশন বলে মনে হয়…|
ছোট বেলা একবার বাঁ-হাতে খাওয়ার অভ্যাস করার চেষ্টা করেছিলাম| আমি তখন আমেরিকার ব্যাপক ফ্যান| বিশেষ করে বুশের| মেলায় তখন প্লাষ্টিকের এক ধরনের খেলনা পাওয়া যেত| এক মাথায় সাদ্দাম,আরেক মাথায় বুশ| নিচের লিভারটায় চাপ দিলেই দু’জনে কূস্তি আরম্ভ করে দিত| আমি সব সময় বুশের সাপোর্ট করতাম, আর আপু সাদ্দামের| আমাদের দু’ভাই-বোনের যুদ্ধটাও কম ভয়াবহ ছিল না| তার দু-একটা চিহ্ন এখনও আমার গালে পাওয়া যায়| আপুর হয়ত আরো বেশি পাওয়া যাবে| হারা তো যায় না,ছেলে বলে কথা!!! মাঝে মধ্যে লোকজন মিছিল করে,হৈচৈ করে বুশের কুশ-পূত্তলিকা পোড়াত| দেখে আমার বেশ মন খারাপই হত| যাহোক,বোঝা ই যাচ্ছে আমার আমেরিকা প্রিতী তখন কতটা তূঙ্গে..!!!

এক দিন কারো কাছে শুনলাম,ওদেশের লোকেরা নাকী বাঁ-হাতে খাবার খায়| আমারও তা-ই করা চাই| মনোযোগ দিয়ে প্রাক্টিসে লেগে গেলাম| শুকনো খাবার-দাবার বাম হাতে খাওয়া শুরু করে দিয়ে নিজেকে বেশ আমেরিকান-আমেরিকান ভাবতে লাগলাম| বিপত্তিটা বাঁধল ভাত খাওয়ার প্রাক্টিস সেশনে গিয়ে| মা’র হাতে রাম-ধোলাই খেয়ে আমার ভূত পেত্নী সব ছাড়ল…|

আরেকটা কমন ফ্যাশনের কথা বলি| নাস্তিকতা….
সবারই পরিচিত মহলের দু-এক জন আছেন যারা এই ভূতে আক্রান্ত| নিজেকে একটু ভিন্ন ধারার কোন একজন প্রমান করার তাগিদ থেকে, নাকী অন্য কোন কারনে,কিংবা অকারনে…ঠিক কোন কারনে যে তারা বগল বাজিয়ে নিজেদের নাস্তিক ঘোষনায় উদ্দ্যোগী হয়,ব্যাপারটা আমার কাছে ঠিক স্পষ্ট নয়| তবে এতটুকু নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি যে,বড়-সড় কোন বিপদে পড়লে তারাও হায় ঈশ্বর,হায় খোদা,হায় ভগবান বলে চ্যাচামেচি জুড়ে দেয়| মুখে না বললেও অবচেতন মনে ঠিকই বলে| কারন লোকের কাছে কিংবা নিজের কাছে যতই অস্বীকার করুক, সৃষ্টিকর্তার উপস্থিতি তারা ঠিকই বুঝতে পারে| বুঝতে না পারার মত অতটা হাবাগোবা হলে তো নিজেদের নাস্তিক ঘোষনা করার বুদ্ধিটাও রাখত না| বেশি উদাহরন দেব না| এত বড় মহা বিশ্ব এতটা নিয়মতান্ত্রিক ভাবে চলে কিভাবে এই চিন্তাটা মাথায় আসার জন্য মহা জ্ঞানী হতে হয় না..|
আমার কথায় বিজ্ঞ জনদের কেউ হয়ত বলে ফেলবেন ওসব তো প্রকৃতির নিয়মে চলে…|
প্রকৃতির নিয়ম বলতে যে তারা কোন আলু-সিদ্ধ আর পেঁপেঁ-ভর্তা বোঝেন,আমি জানি না| আর প্রকৃতির ঐ নিয়মটাই বা কে বানালো সে প্রশ্নের উত্তরটাও হয়ত তারা দিতে পারবে না…|

একদিন এক ভদ্রলোক কোন এক কথার প্রসঙ্গে নিজেকে বেশ গর্বের সাথে নাস্তিক দাবি করে ফেলল| কারন সে নকী কমিউনিস্ট আদর্শে বিশ্বাসী.!!! ব্যাপারটা বেশ অদ্ভুত লাগল !

একটা ব্যাপার কখনই ঠিক বুঝতে পারি না,কমিউনিজম নিঃসন্দেহে একটা যুগান্তকরী ধারনা| civilization এর সম্ভবত সর্বোচ্চ ধাপ এটা| হয়ত পৃথিবীর মানুষ এখনও সেই পরিমান সভ্য হতে পরে নাই বলেই ও বস্তু এখনও পৃথিবী জুড়ে প্রতিষ্ঠা পায় নাই| আদৌ কোন দিন মানুষের সভ্যতার লেভেল ও পর্যন্ত গড়াবে কি না সে ব্যাপারেও বলতে পারব না| কিন্তু এরকম একটা স্বচ্ছ-সুন্দর ধারনার সাথে নাস্তিকতার যোগাযোগটা ঠিক কোন খানে, ব্যাপারটা রহস্যই থেকে গেল| কার্ল-মার্ক্স, লেনিন, টিটো, মাওসেতুং, চে, হোচিমিন, ফিদেল ক্যাস্ত্রো, হুগো চেভেজ, সূর্য সেন এদের সবাই ও যে নাস্তিক ছিলেন কি না তাও ঠিক জানি না| তবে আমাদের দেশের কিছু কিছু তথাকথিত কমিউনিস্ট পর্টির লোকেরা কমিউনিজমের চেতনায় উদ্দিপ্ত হোক বা না হোক নিজেকে নাস্তিক প্রমানের জন্য যে ব্যাপক ডেডিকেটেড সেটা নিঃসন্দেহেই বলা যায়| রাজনৈতিক ভাষায় হয়ত এটাকে বলা যেতে পারে মূল উদ্দেশ্য থেকে সরে যাওয়া| তবে আমি বলব,সূর্যের থেকে বালি গরম..| ব্যাপারটা কিছুটা আমাদের দেশের তাবলীগ-জামায়েতের মত| পাবলিক ভার্সিটিতে পড়ার সুবাদে ওদের কর্মকান্ড খুব কাছ থেকে দেখার সৌভাগ্য হয়েছে| তারা যদি ৫০ টা কথা বলে তার মধ্যে ৫ বার হয়ত নামাজ পড়ার কথা বলবে,বাকি ৪৫ বারই বলবে তাদের সাথে চিল্লায় যাওয়ার জন্য|
কমিউনিজমের প্রতি একটা দুর্বলতা ছোট বেলা থেকেই ছিল| হয়ত সেটা উত্তরাধীকার সূত্রেই পেয়েছি| বাবা একসময় কমিউনিস্ট রাজনীতি করতেন| তার রাজনৈতিক মতাদর্শ কিরকম ছিল সেটা জানার সুযোগ হয়নি ঠিকই, কিন্তু তার নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি,নীতিবোধ বা আদর্শের যতটুকু দেখেছি তাতে কখনও মনে হয়নি সে ভূল কিছু করতে পরে| কিন্তু আমাদের দেশের বর্তমান কমিউনিস্ট চর্চা দেখে আমার দুর্বলতাটার কথাটা স্বীকার করতেও লজ্জা করে| এখন বুঝতে পারি বাবা কেন আশির দশকে রাজনীতি থেকে সরে এসেছিল..!!!

জানি বিষযটা ঢিল ছোড়ার মত হয়ে গেল| অনেকেই তেড়ে আসতে পারেন| তবে আগেই বলে নিচ্ছি এটা নিতান্তই আমার ব্যক্তিগত অভিমত, কোন বাইবেল না| নাস্তিতা সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না| তবে যতটুকু বুঝি কিংবা বুঝতে পারি না তাই বলেছি মাত্র| কেউ আমার এ স্ব্ল্প জ্ঞানকে ব্যক্তিগত ভাবে নেবেন না দয়াকরে| তবে এটা কথা বলব, আমি আমার স্বল্প জ্ঞান এবং সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাস নিয়ে বেশ শান্তি পাই| হয়ত ধর্মের প্রোয়োজন ওখানেই…

১৯ thoughts on “হাল-ফ্যাশন…নাস্তিকতা…ও কমিউনিজম !!!

  1. বাহ! চমৎকার সাবলীল লিখেছেন।
    বাহ! চমৎকার সাবলীল লিখেছেন। আমি নিজেও কমিউনিস্ট আদর্শে বিশ্বাসী। নাস্তিকতার ফ্যাশন মানে বলে বেড়ানোর বাতিক অনেকের আছে। আমি সহমত । আসলে তারা কমিউনিস্ট কম নাস্তিক বেশী। কমিউনিস্ট আদর্শ যারা লালন করে তারা অন্ততঃ নিজেদের নাস্তিকতার ফ্যাশন ঝেড়ে ওটাকে ব্যক্তিগত পর্যায়ে রাখে আমাদের দেশে। তবে একটা কথা বলে রাখি জামাত মানে যেমন ইসলাম না। কমিউনিস্ট মানেই নাস্তিক না। পৃথিবীতে যে পরিমান নাস্তিক আছে তারা যদি কমিউনিস্ট হত পৃথিবীতে কমিউনিজম প্রতিষ্ঠা পেত। তেমনি আমাদের দেশে যে পরিমান ধার্মিক আছে তারা যদি ধর্মভিত্তিক রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকতো বাংলাদেশ আফগানিস্তান বা পাকিস্তান হতো। মোদ্দা কথা, কমিউনিজম হোক আর প্রচলিত গনতন্ত্র হোক ধর্ম বা আস্তিকতা, নাস্তিকতা ব্যক্তিগত বিশ্বাসের পর্যায়ে থাকলেই শুভ। :খুশি:

    1. জামাত মানে যেমন ইসলাম না।

      জামাত মানে যেমন ইসলাম না। কমিউনিস্ট মানেই নাস্তিক না।

      না বলে বলতেচেয়েছিলাম …নাস্তিক মানেই কমিউনিস্ট না।

    2. সহমত…এই ব্যাপারটায় ১০০ ভাগই
      সহমত…এই ব্যাপারটায় ১০০ ভাগই মিলে গেল…ব্লগ নতুন, আমরাও নতুন| ভবিষ্যতে তর্ক-বিতর্কে ইস্টিশন গরম করে ফেলা যাবে| আশা করি সহযাত্রী থাকবেন|

  2. একটা ব্যাপার কখনই ঠিক বুঝতে

    একটা ব্যাপার কখনই ঠিক বুঝতে পারি না,কমিউনিজম নিঃসন্দেহে একটা যুগান্তকরী ধারনা| civilization এর সম্ভবত সর্বোচ্চ ধাপ এটা| হয়ত পৃথিবীর মানুষ এখনও সেই পরিমান সভ্য হতে পরে নাই বলেই ও বস্তু এখনও পৃথিবী জুড়ে প্রতিষ্ঠা পায় নাই| আদৌ কোন দিন মানুষের সভ্যতার লেভেল ও পর্যন্ত গড়াবে কি না সে ব্যাপারেও বলতে পারব না| কিন্তু এরকম একটা স্বচ্ছ-সুন্দর ধারনার সাথে নাস্তিকতার যোগাযোগটা ঠিক কোন খানে, ব্যাপারটা রহস্যই থেকে গেল|

    এই জিজ্ঞাসাটুকু আমারও। যাদের জানা আছে একটু ক্লিয়ার করলে ভালো হতো।

    1. আতিক ভাই, নাস্তিকতা এবং
      আতিক ভাই, নাস্তিকতা এবং কমিউনিজম নিয়ে বেশ কিছু পড়াশুনা করার ইচ্ছা আছে| আপাতত ব্যক্তিগত কিছু ঝামেলার জট ছাড়াতে গিয়ে সময় বের করতে পারছি না| তবে ভবিষ্যতে এবিষয়ে আরো কিছু লেখার ইচ্ছা আছে| তখন হাইপোথিসিস না শুধু, আশা করি কিছু নির্ভর যোগ্য রেফারেন্স সাথে যোগ করতে পারব|

  3. কমিউনিজমের প্রতি একটা

    কমিউনিজমের প্রতি একটা দুর্বলতা ছোট বেলা থেকেই ছিল| হয়ত সেটা উত্তরাধীকার সূত্রেই পেয়েছি| বাবা একসময় কমিউনিস্ট রাজনীতি করতেন| তার রাজনৈতিক মতাদর্শ কিরকম ছিল সেটা জানার সুযোগ হয়নি ঠিকই, কিন্তু তার নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি,নীতিবোধ বা আদর্শের যতটুকু দেখেছি তাতে কখনও মনে হয়নি সে ভূল কিছু করতে পরে| কিন্তু আমাদের দেশের বর্তমান কমিউনিস্ট চর্চা দেখে আমার দুর্বলতাটার কথাটা স্বীকার করতেও লজ্জা করে| এখন বুঝতে পারি বাবা কেন আশির দশকে রাজনীতি থেকে সরে এসেছিল..!!!

    :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:
    পুরা লেখাটাই অসাধারণ।

  4. কমিউনিজম এর প্রতি আমারও
    কমিউনিজম এর প্রতি আমারও প্রচণ্ড দুর্বলতা ছিল। কিন্তু কেন জানি বাংলাদেশের কম্যুনিস্ট দের আমার কাছে গ্রহনযোগ্য মনে হয় না।
    একটা ব্যাপার কখনই ঠিক বুঝতে পারি না,কমিউনিজম নিঃসন্দেহে একটা যুগান্তকরী ধারনা| civilization এর সম্ভবত সর্বোচ্চ ধাপ এটা| হয়ত পৃথিবীর মানুষ এখনও সেই পরিমান সভ্য হতে পরে নাই বলেই ও বস্তু এখনও পৃথিবী জুড়ে প্রতিষ্ঠা পায় নাই| আদৌ কোন দিন মানুষের সভ্যতার লেভেল ও পর্যন্ত গড়াবে কি না সে ব্যাপারেও বলতে পারব না| কিন্তু এরকম একটা স্বচ্ছ-সুন্দর ধারনার সাথে নাস্তিকতার যোগাযোগটা ঠিক কোন খানে, ব্যাপারটা রহস্যই থেকে গেল|
    এই কথাগুলোর সাথে সহমত এবং এই প্রশ্ন আমারও, লেখা ভাল হয়েছে :তালিয়া: :তালিয়া:

    1. হুমম…এদেশের শীর্ষস্থানীয়
      হুমম…এদেশের শীর্ষস্থানীয় বেশ কয়েকটি কমিউনিষ্ট দলকে যখন হাসি মুখে গনতান্ত্রিক দলের সাথে কোয়ালিশান করতে দেখি,তখন তাদের কমিউনিজমের আদর্শ কতটুকু আছে সে বিষয়ে প্রশ্ন উঠাই স্বাভাবিক… :ভাবতেছি: :ভাবতেছি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *