গনজাগরন মঞ্চ এবং ধর্মসংকট

গন জাগরন মঞ্চের উৎপত্তি কিন্তু হয়েছিল প্রতিবাদের মানসিকতা নিয়ে । কাদের মোল্লাকে যখন যাবৎজীবন দেয়া হলো তখন প্রতিবাদী স্লোগান নিয়ে তরুনরা রাস্তায় নামলো । জড়ো হলো শাহবাগে । জনে জনে স্লোগান দিতে লাগলো কসাই কাদেরের ফাঁসি চাই । কসাই কাদেরের ফাঁসি চাই । দলে দলে লোক জড়ো হতে লাগলো শাহবাগে । সরকার অলিখিতভাবে আন্দোলনকারীদের শাহবাগ দিয়ে দিলো । বিএনপি পন্থীরা বলা শুরু করল আন্দোলনকারীরা নাস্তিক । আমার এক বন্ধু আমাকে বলল নাস্তিকের বাচ্চারা দেখ কি শুরু করছে ? আমি বললাম ওরা যে নাস্তিক কিভাবে বুঝলি ? ও বলল দেখস না মেয়াগুলা কত বড় বড় টিপ পড়ছে । শালা হিন্দু নাস্তিকেরা । আমি রাগ না করে বললাম তুই কি জানস নাস্তিক কাকে বলে ? ও উত্তর দিল যে সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করে না সে নাস্তিক । আমি তাকে জিজ্ঞেস করলাম তাহলে হিন্দুরা নাস্তিক হয় কেমনে ? হিন্দুরা তো সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করে । ও একটুক্ষণ চুপ থেকে বলল আমি অত কিছু জানিনা ওরা নাস্তিক আমার নেত্রী বলছে তাই ওরা নাস্তিক । আমি আর কি বলব আমি বললাম ও আচ্ছা । অদ্ভুত বাংলাদেশের রাজনীতি রাজাকারের বিচার চাইলে নাস্তিক হয়ে যায় মানুষ । একসময় গনজাগরন মঞ্চে বিরানির প্যাকেট যাওয়া শুরু হলো সরকারের পক্ষ থেকে । গন জাগরন মঞ্চের আন্দোলনে শেষ পর্যন্ত কসাই কাদেরকে ফাঁসি দেওয়া গেলো । জামায়াত নিয়ে যারা এতো মাতামাতি করে তারা কি জানে জামায়াতের যেখানে উৎপত্তি সেই পাকিস্তানেই জামায়াত নিষিদ্ধ । বাংলাদেশের মানুষ সহজ সরল ধর্মভীরু দেখে বাংলাদেশে জামায়াত এতো কিছু করতে পারে । আসলে ধর্ম ব্যবসায়িরা কখনো কারো ভালো কিছু করতে পারেনা । ধর্ম একজনের মনের অভ্যন্তরীণ ব্যপার । কাজী নজরুল ইসলাম বলেছেন কোন ধর্ম কতটা মহান তা নির্ধারণ করা হয় অন্য ধর্মের প্রতি এর আচরন দেখে । আপনারা ধর্ম পালন করবেন করেন সংখ্যালঘুদের প্রতি আপনাদের নির্যাতন কেনো ? নাকি ইসলাম ধর্মে কোথাও আছে যে অধর্মীদের মারা হালাল ? আমি তো জানি ইসলাম অন্য ধর্মের প্রতি যথেষ্ট সহানুভূতিশীল । গন জাগরন মঞ্চের বর্তমান অবস্থা তো আমরা দেখতেই পারছি । ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে গণজাগরণ মঞ্চ ধ্বংসপ্রায় । কিন্তু গনজাগরন মঞ্চের চেতনা কিন্তু ধ্বংস হয়নি । আগেউ বলছি এখন বলছি রাজাকারমুক্ত বাংলাদেশ চাই । অভিযুক্ত সব রাজাকারের ফাঁসি চাই । সরকার দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হয়ে যুদ্ধপরাধির বিচার ধীরগতিতে চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার অপপ্রয়াস চালাচ্ছে । এই চেষ্টা কখনো সার্থক হবেনা । শহীদ জননী জাহানারা ইমামের আন্দোলন বৃথা যাবেনা । যুদ্ধাপরাধীর বিচার এদেশের মাটিতেই হবে । নাস্তিক বলেন আর যাই বলেন আমি সবসময় এর মতো বলতে চাই আমি যুদ্ধাপরাধীর বিচার চাই ।।

১৪ thoughts on “গনজাগরন মঞ্চ এবং ধর্মসংকট

  1. ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে

    ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে গণজাগরণ মঞ্চ ধ্বংসপ্রায় । কিন্তু গনজাগরন মঞ্চের চেতনা কিন্তু ধ্বংস হয়নি

    একমত!

  2. নাস্তিক মেয়েরা বড় বড় টিপ পরে,
    নাস্তিক মেয়েরা বড় বড় টিপ পরে, নতুন তথ্য জেনে নিলাম। শালা বুলশিটের বাচ্চারা :ক্ষেপছি:

    ================================================

    1. আমি একজন আস্তিক ,ধর্ম বিশ্বাস
      আমি একজন আস্তিক ,ধর্ম বিশ্বাস ইসলাম কিন্তু আমি ছোট বড় সব রকমের টিপ পড়ি

      1. টিপ নিয়ে একটা কথা আছে মুসলিম
        টিপ নিয়ে একটা কথা আছে মুসলিম মেয়েরা টিপ পড়া হারাম আমি ঠিক জানিনা ।। জানলে আপনাকে নিশ্চয় হাদিস শুনিয়ে দিতাম ।।

  3. ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে

    ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে গণজাগরণ মঞ্চ ধ্বংসপ্রায়

    কথাটা এমন বললে ভালো শোনাত,

    ছাত্রলীগ এবং আওয়ামীলীগের নগ্ন হস্তক্ষেপে গণজাগরণ মঞ্চের জোয়ারে সামান্য ভাঁটা পড়েছে।

    1. জী ভাইয়া পরবর্তীতে খেয়াল
      জী ভাইয়া পরবর্তীতে খেয়াল রাখবো কিভাবে লেখা পাঠকের কাছে আরো আকর্ষণীয় করে তোলা যায় 🙂

  4. একসময় গনজাগরন মঞ্চে বিরানির

    একসময় গনজাগরন মঞ্চে বিরানির প্যাকেট যাওয়া শুরু হলো সরকারের পক্ষ থেকে ।

    তব্দা খাইলাম বাহে !!! এতোদিন গেছি, আমারে কেউ এক প্যাকেটও সাধলোনা গণপ্রজান্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক রন্ধনকৃত সুস্বাদু বিরাণীর প্যাকেট। ক্যাম্নে কি !!! সরকার এত্তোগুলা খ্রাপ ক্যানু ??

  5. শওকত খান > বিরানির প্যাকেট ও
    শওকত খান > বিরানির প্যাকেট ও গেছে টাকাউ বিতরণ হইছে । কিন্তু সেটা এখন অতিত । পারলে সরকার এখন গনজাগরন মঞ্চ কে নিষিদ্ধ ঘোষনা করে দেয় ……।

    আপনি কেন যে বিরানির প্যাকেট থেকে বঞ্চিত হলেন আমি কিছু বলতে পারলাম না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *