হুইস্কি-ভদকা, বার ও একটি প্যারোডি-প্রয়াস!


“প্রতিবার, প্রিয় ‘বার’, বারবার”
——————————-
(সকল চরিত্র চরিত্রহীন ও কাল্পনিক!)

[দাদা আর ছোটু গেছে “বারে”
দেখে যেন মনে হয় চিনি উহারে!]

টাকা লাখ-দুই, ছিল মোর ভুঁই,
সবি চলে গেছে ‘জলে’
দাদা কহিলেন “বুঝেছ উপেন,
একেই হুইস্কি বলে।
আজি এ দিবসে, মনের হরষে
গিলছি দ্রাক্ষা রস,
সোডাটা, চিপ্সটা অর্ডার দিয়ে
আমার পাশেতে বস।
আমাদের এই ছোট্ট ফিগার
লিভারের আঁকে-বাঁকে,
বৈশাখ হতে চৈত্র ধরিয়া
স্কচ হুইস্কিই থাকে।
বলিতে বলিতে ওয়েটার আসে
বলিলেন দাদা রেগে,
“ওরে কে আছিস?
দুই দুটো গ্লাস ভরে দে দু-দশ পেগে”



“প্রতিবার, প্রিয় ‘বার’, বারবার”
——————————-
(সকল চরিত্র চরিত্রহীন ও কাল্পনিক!)

[দাদা আর ছোটু গেছে “বারে”
দেখে যেন মনে হয় চিনি উহারে!]

টাকা লাখ-দুই, ছিল মোর ভুঁই,
সবি চলে গেছে ‘জলে’
দাদা কহিলেন “বুঝেছ উপেন,
একেই হুইস্কি বলে।
আজি এ দিবসে, মনের হরষে
গিলছি দ্রাক্ষা রস,
সোডাটা, চিপ্সটা অর্ডার দিয়ে
আমার পাশেতে বস।
আমাদের এই ছোট্ট ফিগার
লিভারের আঁকে-বাঁকে,
বৈশাখ হতে চৈত্র ধরিয়া
স্কচ হুইস্কিই থাকে।
বলিতে বলিতে ওয়েটার আসে
বলিলেন দাদা রেগে,
“ওরে কে আছিস?
দুই দুটো গ্লাস ভরে দে দু-দশ পেগে”

(ড্রিঙ্ক সার্ভড)

মুচকি হেসে আমার হাতেতে
গ্লাসটা দিলেন দাদা,
“নাহ” বলতেই বললেন “আরে,
লেটস এঞ্জয় ব্রাদা!”
ওহ মাই গড, রিয়ালি,
তুই যে কি খামখিয়ালি!”

(কষে কয়েকটা সিপ দিয়ে অতঃপর)

এই?
খামখেয়ালী, খামখেয়ালী
হুইস্কি দেখছি খাস,
ব্র্যান্ডি-বিয়ার খাস?
জিন-ভদকাও খাস?
(ভাবলাম, “কি হবে করে এ ছলনা?)
“দাদা, তুমি কি যে বল না!

এম্নিতে বেশি খাই না!
চাইলেও তো পাই না,
মাগার, একবার যদি পাই,
অম্নি ধরে বোতলখানেক খাই!”

(দুঘণ্টা পরের ঘটনা)

পথচারীরা কানা চোখে দেখে, কি যেন কিসের খেয়ালে,
দুইটি পুরুষ হিসু করছে আপনমনে দেয়ালে!!

১ thought on “হুইস্কি-ভদকা, বার ও একটি প্যারোডি-প্রয়াস!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *