দুঃখিত

বেশ কিছুদিন আগে নারী অধিকার নিয়ে একটা ADD দেখেছিলাম।
সবাই দুঃখিত বলে। আমরা নাকি নারীদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করছি, সম্মান দিচ্ছি না।
আমার প্রশ্ন for all নারী, আপানরা কি অধিকারের কথা বলছেন? কিসের অধিকার চাচ্ছেন? কেমন সম্মান চাইছেন?
পশ্চিমারা নাকি নারী অধিকার নিয়ে অনেক ভাবে। নারীকে সম্মান করে। হয়তো করে। কিন্তু একটু লক্ষ করে দেখবেন, তাদের সমাজে নারী অধিকার বলতে- অল্প বসনা নারী, অবাধ মেলামেশা আর যৌনতা, রীতিমতো নারী মানে ভোগ্যপণ্য।
নারী অধিকার বা সম্মান নিয়ে আমি কিছু হাদিস আর কুরআনের আয়াত Share করছি। দেখেন তো ইসলাম যেভাবে নারীকে সম্মানিত করেছে, অধিকার দিয়েছে এর বাইরে আর কিছু লাগবে কি না?


বেশ কিছুদিন আগে নারী অধিকার নিয়ে একটা ADD দেখেছিলাম।
সবাই দুঃখিত বলে। আমরা নাকি নারীদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করছি, সম্মান দিচ্ছি না।
আমার প্রশ্ন for all নারী, আপানরা কি অধিকারের কথা বলছেন? কিসের অধিকার চাচ্ছেন? কেমন সম্মান চাইছেন?
পশ্চিমারা নাকি নারী অধিকার নিয়ে অনেক ভাবে। নারীকে সম্মান করে। হয়তো করে। কিন্তু একটু লক্ষ করে দেখবেন, তাদের সমাজে নারী অধিকার বলতে- অল্প বসনা নারী, অবাধ মেলামেশা আর যৌনতা, রীতিমতো নারী মানে ভোগ্যপণ্য।
নারী অধিকার বা সম্মান নিয়ে আমি কিছু হাদিস আর কুরআনের আয়াত Share করছি। দেখেন তো ইসলাম যেভাবে নারীকে সম্মানিত করেছে, অধিকার দিয়েছে এর বাইরে আর কিছু লাগবে কি না?

সম্মান ও মর্যাদাঃ
রাসুল (সঃ) বলেছেন, “এই পৃথিবী এবং এর মধ্যস্তিথ সমস্ত কিছুই মূল্যবান। কিন্তু সবচাইতে মূল্যবান একজন আল্লাহভিরু নারী।” (মুসলিম)
আরও বলেছেন, “মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের জান্নাত” – “ঘরে তোমার (নারীরা) তোমাদের সন্তানদের যত্ন নাও আর এটাই তোমাদের জন্য জিহাদ”
নবীজি আরও বলেছেন, “যে বেক্তির কোন কন্যা সন্তান থাকে এবং তাকে সে উত্তম শিক্ষা দেয়, তার জন্য জান্নাত অবধারিত হয়ে যায়।”
এর থেকে সম্মান আর কি চান? পুরুষের সমান হতে চান? কই এতো বড় মর্যাদা তো পুরুষের বেলায় বলা হয় নাই।
রসুল পাক আরও বলেছেন, “শুধুমাত্র সম্মানিত লোকেরাই নারীদের প্রতি সম্মানজনক আচরন করে। আর যারা আসম্মানিত, নারীদের প্রতি তাদের আচরণও হয় অসম্মানজনক।” so my dear brothers evetising করে ইস্মারট হতে যাবেন না। আপনি যে সম্মানিত কেউ না, তার প্রমান হবে শুধু। rape করে পুরুষত্ব দেখাবেন না, একবার ভাব্বেন আপানর ঘরেও নারী আছে। so plz respect women.

অধিকারঃ
“নারীদের তেমনি ন্যায়সঙ্গত অধিকার আছে, যেমনি তাদের উপর আছে পুরুষদের। কিন্তু পুরুষদের রয়েছে নারীর উপর মর্যাদা। (সূরা বাকারাঃ ২২৮)।”
রাসুল (সঃ) বলেছেন, “যার একটি কন্যা সন্তান আছে এবং সে তাকে জীবন্ত কবর দেয়নি, তাকে নিগৃহীত করেনি এবং পুত্র সন্তানকে তার উপর প্রাধান্য দেয়নি, আল্লাহ্‌ তাকে জান্নাতে প্রবেশ করাবেন। (মুস্নাদে আহমাদ, হাদিসঃ১৯৫৭)।”
“তোমরা যা খাবে তাদেরকে তাই খেতে দেবে, তোমরা যা পরবে তাদের তাই পরিধান করাবে। আর তাদের প্রহার করো না, তিরস্কার করনা। (সুনান-ই-আবু দাউদ, হাদিসঃ২১৩৯)।”
“একজন বিধবা নারীর সাথে পরামর্শ করা ব্যতিত তাকে বিবাহ দেয়া উচিত নয় এবং একজন কুমারি নারীকে অনুমুতি ছাড়াও তার বিবাহ দেয়া উচিত হয়। (সহিহ বুখারি, খণ্ড ৭)।”
“মুমিন নারী এবং পুরুষের এ ব্যাপারে কোনও অধিকার নেই যে, যখন আল্লাহ্‌ ও রাসুল কোনও বিষয় তাদের নির্দেশ দেয় তখন সে ব্যাপারে তারা ভিন্ন মত প্রশন করে। আর যে কেউ আল্লাহ্‌ ও রাসুলের অমান্য করলে সে তো স্পষ্টতই পথভ্রষ্ট। (সূরা আল আহযাবঃ৩৬)।”
so, my dear women, what u think? What u really wants? Do u need more right n respect than men?
pls pls pls, open ur eyes, u all are already more respectable n u have already more right than any man.
Finally, really i m sry for u that, yet u dnt get what ISLAM gives u and sry for us, bcz we failed to show u the correct n true path pardon us

৩ thoughts on “দুঃখিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *