অন্যভাবে দেখা

খুবই ক্লোজ তিন জন ফ্রেন্ড এর সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে নবীনগর থেকে প্রথমে ফার্মগেট তারপর বসুন্ধরা গিয়েছিলাম।

জমপেশ আড্ডা দেওয়ার পর এবার আমার কর্মস্থল নবীনগর যাওয়ার পালা। বাসায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে আব্দুল্লাহপুরের গাড়িতে উঠলাম।

আমার সামনের সিটে দুইজন ছাপোষা টাইপের লোক বসা। দেখে মনে হচ্ছে তারা দিন মজুর।

বেশ কিছুক্ষন বাস চলার পর কন্টাকটার এল ভাড়া নিতে। ঐ দুই জনের একজনের কাছে খুচরা টাকা না থাকায় অন্যজনকে অনুরোধ করল দশ টাকা দিতে কিন্তু ঐ লোক দশ টাকা দিতে নারাজ।

তার এহেন ব্যবহারে তার ঐ বন্ধু, কন্টাকটার এবং আশেপাশের সকল যাত্রী আহাম্মক বনে গিয়েছিল।


খুবই ক্লোজ তিন জন ফ্রেন্ড এর সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে নবীনগর থেকে প্রথমে ফার্মগেট তারপর বসুন্ধরা গিয়েছিলাম।

জমপেশ আড্ডা দেওয়ার পর এবার আমার কর্মস্থল নবীনগর যাওয়ার পালা। বাসায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে আব্দুল্লাহপুরের গাড়িতে উঠলাম।

আমার সামনের সিটে দুইজন ছাপোষা টাইপের লোক বসা। দেখে মনে হচ্ছে তারা দিন মজুর।

বেশ কিছুক্ষন বাস চলার পর কন্টাকটার এল ভাড়া নিতে। ঐ দুই জনের একজনের কাছে খুচরা টাকা না থাকায় অন্যজনকে অনুরোধ করল দশ টাকা দিতে কিন্তু ঐ লোক দশ টাকা দিতে নারাজ।

তার এহেন ব্যবহারে তার ঐ বন্ধু, কন্টাকটার এবং আশেপাশের সকল যাত্রী আহাম্মক বনে গিয়েছিল।

সবাই ভাবছে লোকটা তার বন্ধুকে মাত্র দশ টা টাকা দিল না???

কিন্তু কেউ একবারও ভাবল না যে, এই দশ টা টাকাই হয়ত সে তার ছেলে-মেয়ের জন্য নিয়ে যাচ্ছে। তার পকেটের এক কোনায় লুকিয়ে রাখা আধ পুরান ঐ ভাজ করা দশ টা টাকাই হয়ত তার ফ্যামিলির জন্য জমিয়ে রাখা নিখাদ ভালবাসা।

কেউ বুঝল না ঐ দশ টা টাকাই তার কাছে অনেক কিছু।

কারন সে যে দিন মজুর, নিতান্তই ছাপোষা একজন। গরীবের রক্তচোষা বড়লোক নয়।

৭ thoughts on “অন্যভাবে দেখা

  1. এমন অনেকেই এদেশে থাকতে পারে,
    এমন অনেকেই এদেশে থাকতে পারে, যাদের নিজের ইন্টারনেট লাইন, পিসি — কিছুই নেই; তারপরও ব্লগিং করে চলেছে অন্য সবার সাথে সমান তালে।

    —এই ব্যাপারটাও বিশিস্ট ব্লগারদের মাথার উপর দিয়েই যাওয়া উচিত!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *