সোনার দেশ

কল্পনার এক দেশের কথা- বলবো সবে আসেন,
সোনার দেশের মজার শাসন- শুনতে হলে বসেন।
তর্ক-বাগীশ দেশের রাজা- সারাটা দিন বকেন,
রাষ্ট্র মন্ত্রী কানে খসা- হাসার কথায় কাঁদেন।
সাহেব জাদা মাথার ব্যামোয়- দিনে তারা গুনেন,
সভা কবি কাব্য ভুলে- নেশার ঘোড়ায় চড়েন।
অর্থ মন্ত্রী গীতের রচন- সভার ঘরেই করেন,
সেনা প্রধান ভাঁড়ের রাজা- সকল প্রজা জানেন।
স্বাধীন দেশে ধর্ম কিসের- ধর্ম মন্ত্রী শুধেন,
বছর শেষে শিক্ষা মন্ত্রী- প্রশ্ন নিজেই ফাঁসেন।



কল্পনার এক দেশের কথা- বলবো সবে আসেন,
সোনার দেশের মজার শাসন- শুনতে হলে বসেন।
তর্ক-বাগীশ দেশের রাজা- সারাটা দিন বকেন,
রাষ্ট্র মন্ত্রী কানে খসা- হাসার কথায় কাঁদেন।
সাহেব জাদা মাথার ব্যামোয়- দিনে তারা গুনেন,
সভা কবি কাব্য ভুলে- নেশার ঘোড়ায় চড়েন।
অর্থ মন্ত্রী গীতের রচন- সভার ঘরেই করেন,
সেনা প্রধান ভাঁড়ের রাজা- সকল প্রজা জানেন।
স্বাধীন দেশে ধর্ম কিসের- ধর্ম মন্ত্রী শুধেন,
বছর শেষে শিক্ষা মন্ত্রী- প্রশ্ন নিজেই ফাঁসেন।
পর-রাষ্ট্র মন্ত্রী যিনি- পরের দেশেই থাকেন,
শিল্প ফেলে শিল্প মন্ত্রী- মুখের কথা বেচেন।
পরিবহণ মন্ত্রী কে আজ- দেশের মানুষ খুজেন,
বাহন যত রাস্তা ঘাটের- নৌয়ের মন্ত্রী পোষেন।
নদীতে জল না পাইলেও- মন্ত্রী পানির আছেন,
খাওয়ার অভাব দেখে দেশে- খাদ্য মন্ত্রী হাসেন।
ক্রীড়া মন্ত্রী অর্থ পাগল- বাজার দেশের দেখেন,
অধিক আহার নয় হীতকর- ব্যবসা মন্ত্রী কহেন।
ধান চাউলের মন্ত্রী সাহেব- রাস্তা গরম রাখেন,
নীতির মন্ত্রী নিজের ঘরে- দল ডাকাতের পোষেন।
বর্গীরা সব দিনের আলোয়- করতে চুরি ছোটেন,
করবে এদের বিচার এমন- সাধ্যটা কার বলেন।
বাপের বেটা ডাকাত হলেও- চাকরি তিনি পাবেন,
কইলে কেহ এর বিপরীত- আগে পিঠে সবেন।
ছাত্র যারা রাজার চ্যালা- কু- শিক্ষাটাই শিখেন,
মেধার বড়াই করলে কেহ- বাঁশের ডলায় শোধেন।
দুর্নীতিবাজ খুঁজবে যে জন- ঘুষের টাকা শুঁকেন,
বন বিভাগের কর্তারা সব- বনের সবুজ শোষেন।
থামাই এবার এই আলাপন- পথটা দেখি ছাড়েন,
এই সভাটা সবাই এবার- মাথা থেকে ফেলেন।
কারণ যদি সেই রাজাটা- এসব কভু শুনেন,
সবার তাজা মুণ্ডু গিলে- এক গ্রাসেই খাবেন।

৪ thoughts on “সোনার দেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *