নিয়তি

প্রচন্ড গরমে অস্থির হয়ে আছে সবকিছু। পীচঢালা পথে উষ্ণতা এতটাই বেশি যে, গলিত লাভার কথা মনে পড়ে। ফর্সা মুখ তো বটেই, সাথে সাথে কালো মুখগুলোও লাল হয়ে আছে। চুল যে কখনো কালো ছিলো তা বোঝার উপায় নেই। রোদের ঝলকে সবকিছু ফূটো হয়ে যাওয়ার উপক্রম। এই অবস্থায় যদি একটুখানি থান্ডা বাতাস শরীর ছূয়ে যায়। তখন নিজেকে স্বর্গবাসী মনে হয়।


প্রচন্ড গরমে অস্থির হয়ে আছে সবকিছু। পীচঢালা পথে উষ্ণতা এতটাই বেশি যে, গলিত লাভার কথা মনে পড়ে। ফর্সা মুখ তো বটেই, সাথে সাথে কালো মুখগুলোও লাল হয়ে আছে। চুল যে কখনো কালো ছিলো তা বোঝার উপায় নেই। রোদের ঝলকে সবকিছু ফূটো হয়ে যাওয়ার উপক্রম। এই অবস্থায় যদি একটুখানি থান্ডা বাতাস শরীর ছূয়ে যায়। তখন নিজেকে স্বর্গবাসী মনে হয়।

পেট খালি হয়ে আছে। সর্বাধিক খুদার্থ হয়ে নিজের হাতকে পেটের ওপর বুলিয়ে শান্তিতে থাকার বৃথা চেষ্টা করছি। পানির বোতলের সবাটাই তো আমিই শেষ করে দিলাম। পকেট খালি থাকায় কিছু কেনার কথা মাথায় আনতে পারছি না। এমন সময় কেউ এসে যদি আমার প্রিয় খাবারগুলি পেট ভরে খাওয়ায়। তখন নিজেকে পৃথিবীর সবচেয়ে সুখি ব্যাক্তি মনে হয়।

“বন্ধু ফেল করলে কষ্ট হয়, কিন্তু বন্ধু যখন আমার চেয়ে বেশি নাম্বার পায় তখন আরও বেশি কষ্ট হয়”। কথাটা যেদিন জানলাম সেদিন নিজের সাথে মিলিয়ে হেসেছিলাম। কিন্তু আজ একটু ভিন্ন ধরনের সমীকরণ করব। বন্ধু যখন প্রেম করে তখন কষ্ট লাগে, আহারে আমি প্রেম করতে পারি না। কিন্তু বন্ধু যখন আমার পছন্দ করা নারীর সাথে প্রেম করে তখন আরও বেশি কষ্ট লাগে।

এখন গরমে সবাই পাগল হয়ে বৃষ্টির অপেক্ষায় আছে। কয়দিন পর বৃষ্টি এসে মাঠ-ঘাট ভাসিয়ে দিলে সবাই আবার রোদের জন্য হাহাকার করবে। এক দিকে মাঠ শুকনো হওয়ার কারনে কৃষক হাল দিতে পারছে না। সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করে যাচ্ছে এক পশলা বৃষ্টির জন্যে। আরেক দিকে বাড়ন্ত ধান গাছ একইসাথে পানি শূন্য মাঠ নিয়ে প্রার্থনা করছে অন্য কৃষক।

কি অদ্ভুত আমাদের প্রয়োজনগুলো…
কি অদ্ভুত আমাদের নিয়তি…

৭ thoughts on “নিয়তি

    1. সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা
      সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করে যাচ্ছে এক পশলা বৃষ্টির জন্যে। আরেক দিকে বাড়ন্ত ধান গাছ একইসাথে পানি শূন্য মাঠ নিয়ে প্রার্থনা করছে অন্য কৃষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *