তসলিমা নাসরিন……….

গত কয়েকদিন যাবৎ তসলিমা নাসরিনের “উতল হাওয়া” পড়ছি. অন্যরকম এক অনুভুতি. যেটা সব সময়ই আমার হয়. যখন কোনো লেখকের বই পরছি তখন নিজের অজান্তেই সেই লেখকের মুখ নিঃসৃত ভাষা, কথা বলার স্টাইল বা বাচন ভঙ্গি আমার মস্তিস্ক নির্ধারণ করে নেয়. মনে হয় আমি পড়ছি না. লেখক যেন নিজে বলছে আর আমি শুনছি.
তাতে সেই লেখকের সাথে বেক্তিগত ভাবে আমার পরিচয় থাকুক বা না থাকুক. তাকে জীবনে আমি দেখি বা না দেখি. এটা কিন্তু যে শুধু সমসাময়িক লেখকদের ক্ষেত্রে ঘটে তা না. রবীন্দ্রনাথ বা শরত্চন্দ্রর ক্ষেত্রেও ঘটে.

গত কয়েকদিন যাবৎ তসলিমা নাসরিনের “উতল হাওয়া” পড়ছি. অন্যরকম এক অনুভুতি. যেটা সব সময়ই আমার হয়. যখন কোনো লেখকের বই পরছি তখন নিজের অজান্তেই সেই লেখকের মুখ নিঃসৃত ভাষা, কথা বলার স্টাইল বা বাচন ভঙ্গি আমার মস্তিস্ক নির্ধারণ করে নেয়. মনে হয় আমি পড়ছি না. লেখক যেন নিজে বলছে আর আমি শুনছি.
তাতে সেই লেখকের সাথে বেক্তিগত ভাবে আমার পরিচয় থাকুক বা না থাকুক. তাকে জীবনে আমি দেখি বা না দেখি. এটা কিন্তু যে শুধু সমসাময়িক লেখকদের ক্ষেত্রে ঘটে তা না. রবীন্দ্রনাথ বা শরত্চন্দ্রর ক্ষেত্রেও ঘটে.
যেমন: আমি গল্প গুচ্ছ পরছি. মনে হচ্ছে রবি ঠাকুর পাশে বসে আছে. আমি শুয়ে শুয়ে পরছি, অমনি রবি ঠাকুরও আমার পাশে শুয়ে শুয়ে গল্প বলতে লাগলেন. অনেকটা ঘোরের মত.
আজ কাল মনে হচ্ছে তসলিমা ঘিরে রেখেছে আমাকে. আর যেহেতু উতল হাওয়া তার নিজের জীবনী গ্রন্থ এবং প্রথম পুরুষে লেখা তাই বিষয়টা একটু বেশিই মনে হচ্ছে.
বইটা পড়ে যে অনুভুতি গুলো হচ্ছে……….
* তার জন্য খুব মায়া হচ্ছে.
* তার সাথে দেখা করার গোপন ইচ্ছাটা দুর্বার হয়ে উঠাছে.
* সবাই যে বলে তার লেখা অশ্লীল. আসলে অশ্লিলতা কোথায়? জানতে ইচ্ছা করছে.
* তার জন্যে গর্ব হচ্ছে.
* তার সততার মুগ্ধতা আমাকে আস্টে-পিস্টে বেধে ফেলছে.

এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা তসলিমা না পড়ে, না জেনে, শুধু অন্যের কাছ থেকে শুনে ভাসা ভাসা ধারণা থেকে তসলিমাকে গালাগাল করে বা সমালোচনার নাম অশোভন ভাষায় মন্তব্য করে তাদের কি করি?

১৭ thoughts on “তসলিমা নাসরিন……….

  1. সহমত প্রকাশ করছি।
    তাসলিমা

    সহমত প্রকাশ করছি।

    তাসলিমা নাসরীনের বেশীরভাগ লিখা বাস্তবধর্মী।
    আর সাধারন মানুষ কাল্পনিক গল্প পড়তে পড়তে কাল্পনিকতায় ডুবে গেছে তাই আর বাস্তবতাকে সহজে গ্রহণ করতে পারছে না।

  2. এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা

    এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা তসলিমা না পড়ে, না জেনে

    তস্লিমা নাচ্রিনের বই একনো পরিনি বাই,
    তাইলে তো আমি আকাট মুরকু!

    দিবেন নি কেউ কয়ডা বই দার?

    1. না পড়িলে মুর্খ হইবেন কেন?
      না

      না পড়িলে মুর্খ হইবেন কেন?
      না বুঝে, না পড়ে অকারণে সমালোচনার নামে গালাগাল করলে আপনাকে জ্ঞানী বলার কোনো কারণ নেই.

          1. কিন্তু গালিগালাজ করিবেন

            কিন্তু গালিগালাজ করিবেন না

            মুখস্ত বিদ্যার মতো একই কথা বার বার বলচেন কেন?

  3. এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা

    এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা তসলিমা না পড়ে, না জেনে, শুধু অন্যের কাছ থেকে শুনে ভাসা ভাসা ধারণা থেকে তসলিমাকে গালাগাল করে

    সমহত।

  4. তসলিমা নাসরিনের বিরোধীতা করা
    তসলিমা নাসরিনের বিরোধীতা করা এখন একটা স্টাইল। তবে আমি শিওর যারা তসলিমা নাসরিনের বিরোধীতা করে তারা কেউই তসলিমা নাসরিনের একটা বইও পড়ে নাই।

    তসলিমা নাসরিনের মত স্পষ্টবাদী সুলেখিকা বার বার জন্ম নেয় না।

  5. * সবাই যে বলে তার লেখা

    * সবাই যে বলে তার লেখা অশ্লীল. আসলে অশ্লিলতা কোথায়? জানতে ইচ্ছা করছে.
    * তার জন্যে গর্ব হচ্ছে.
    * তার সততার মুগ্ধতা আমাকে আস্টে-পিস্টে বেধে ফেলছে.
    এখন মনে হচ্ছে যে সকল মুর্খরা তসলিমা না পড়ে, না জেনে, শুধু অন্যের কাছ থেকে শুনে ভাসা ভাসা ধারণা থেকে তসলিমাকে গালাগাল করে বা সমালোচনার নাম অশোভন ভাষায় মন্তব্য করে তাদের কি করি?

    অসংখ্য ধন্যবাদ । দারুন লিখেছেন । প্রতিটা শব্দের সাথে সহমত আমি ।

  6. তসলিমা আমারও প্রিয় একজন
    তসলিমা আমারও প্রিয় একজন লেখিকা ।
    লিখালিখির উপর একমাত্র নোবেল ছাড়া এমন কোন প্রসিদ্ধ পুরস্কার নেই যা তসলিমা অর্জন করেননি ।নোবেলও পেতে পারতেন কিন্তু আমি মনে করি উনাকে নোবেল দিলে বিশ্বের প্রতিক্রিয়াশীল লেখক/লেখিকা ও জনতার রোষানলে পড়ার সম্ভাবনা আছে বলেই নোবেল কমিটি সাহস করতে পারছে না ।
    যাইহোক, এই লেখিকাকে নিরাপদে দেশে ফেরত আনার ব্যবস্থার জন্য সরকারের প্রতি দাবী জানাইলাম ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *