একটি ছোট্ট গপ্পো

একটি জরুরী সার্জারির জন্য তাড়াহুড়ো করে এক
ডাক্তারকে হাঁসপাতালে ডেকে পাঠানো হল ।
সে তড়িৎ গতিতে হাসপাতালে পৌঁছে গেলো ।
হাঁসপাতালে ঢুঁকেই সে নিজেকে দ্রুত প্রস্তুত
করে নিল সার্জারির জন্য ।
এরপর সার্জারির ব্লকে গিয়ে সে দেখল রোগীর
(একটি ছোট্ট ছেলে) বাবা ওখানে
পায়চারি করছে ডাক্তারের অপেক্ষায়, ডাক্তারকে দেখামাত্র লোকটি চেঁচিয়ে উঠল- আপনার
আসতে এত দেরি লাগে? দায়িত্ববোধ বলতে কিছু
আছে আপনার? আপনি জানেন আমার
ছেলে এখানে কতটা শোচনীয় অবস্থায় আছে ?

ডাক্তার ছোট্ট একটা মুচকি হাঁসি হেঁসে বলল- “আমি দুঃখিত, আমি হাসপাতালে ছিলাম না,
বাসা থেকে তাড়াহুড়ো করে এলাম, তাই খানিক

একটি জরুরী সার্জারির জন্য তাড়াহুড়ো করে এক
ডাক্তারকে হাঁসপাতালে ডেকে পাঠানো হল ।
সে তড়িৎ গতিতে হাসপাতালে পৌঁছে গেলো ।
হাঁসপাতালে ঢুঁকেই সে নিজেকে দ্রুত প্রস্তুত
করে নিল সার্জারির জন্য ।
এরপর সার্জারির ব্লকে গিয়ে সে দেখল রোগীর
(একটি ছোট্ট ছেলে) বাবা ওখানে
পায়চারি করছে ডাক্তারের অপেক্ষায়, ডাক্তারকে দেখামাত্র লোকটি চেঁচিয়ে উঠল- আপনার
আসতে এত দেরি লাগে? দায়িত্ববোধ বলতে কিছু
আছে আপনার? আপনি জানেন আমার
ছেলে এখানে কতটা শোচনীয় অবস্থায় আছে ?

ডাক্তার ছোট্ট একটা মুচকি হাঁসি হেঁসে বলল- “আমি দুঃখিত, আমি হাসপাতালে ছিলাম না,
বাসা থেকে তাড়াহুড়ো করে এলাম, তাই খানিক
দেরি হল, এখন আপনি যদি একটু শান্ত হন ,
তবে আমি আমার কাজটা শুরু করি ?

লোকটি এবার যেন আরও রেগে গেলো, ঝাঁঝাঁলো স্বরে বলল- ” ঠাণ্ডা হব ? আপনার
সন্তান যদি আজ এখানে থাকতো ? আপনার
সন্তান যদি জীবন মৃত্যুর মাঝে দাঁড়িয়ে থাকতো,
তাহলে আপনি কি করতেন ? শান্ত
হয়ে বসে থাকতেন ?

ডাক্তার আবার হাঁসলেন আর বললেন “আমি বলব
পবিত্র গ্রন্থে বলা হয়েছে মাটি থেকেই আমাদের
সৃষ্টি আর মাটিতেই আমরা মিশে যাব! ডাক্তার
কাউকে দীর্ঘ জীবন দিতে পারেন না। আপনি আপনার সন্তান এর জন্য
প্রার্থনা করতে থাকুন আমরা আমাদের সর্বোচ্চ
চেষ্টা করব ।”

লোকটি পুনরায় রাগত স্বরে বলল- যখন আপনার
টেনশন না থাকে তখন উপদেশ দেয়া সহজই !!
এরপর ডাক্তার সাহেব সার্জারির রুমে
চলে গেলো, ২ ঘণ্টার মত লাগলো। শেষে ডাক্তার হাসি মুখে বের হয়ে এসে বললেন,
“আলহামদুলিল্লাহ অপারেশন সফল হয়েছে” । এরপর
লোকটির উত্তরের অপেক্ষা না করেই ডাক্তার
আবার বলে উঠলেন- “আপনার কোন প্রশ্ন
থাকলে নার্স কে জিজ্ঞেস করুন,
বলে তিনি চলে গেলেন।

এরপর লোকটি নার্স কে বললেন- ডাক্তার এত
ভাব নেন কেন ? তিনি কি আর কিছুক্ষণ
এখানে দাঁড়াতে পারতেন না?
যাতে আমি ওনাকে আমার সন্তান এর
ব্যাপারে কিছু জিজ্ঞেস করতাম ।
নার্স কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন আর জানালেন-
ডাক্তার এর ছেলে আজ সকালে মারা গেছেন রোড
এক্সিডেন্টে, তিনি আপনার ফোন পেয়ে ওনার
ছেলের জানাজা থেকে উঠে এসেছেন, এখন আবার
দৌড়ে চলে গেলেন- কবর দিতে ।

Moral : একজন মানুষকে তার বাইরের আচরন
দেখে যাচাই করবেন না, কারন আপনি কখনই
জানেন না তিনি কিসের মাঝে আছেন !

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *