হিট স্ট্রোক ও দিবাস্বপ্ন

বাসায় সবাই অসুস্থ। বলা ভালো গরমে আক্রান্ত। ইংরেজীতে হিট স্ট্রোক। বমি, ডায়ারিয়া এইতো। আমিও আক্রান্ত। বাসায় চালের স্যালাইন কিনে আনা হয়েছে। পানিতে গুলিয়ে সেবন করা হচ্ছে।

জিনিসটা উপকারী হতে পারে। দেখতে ভাতের মাড়ের মতন। খেতেও কাছাকাছি। তবে হঠাৎ করে দেখলে বাংলা মদের মতন লাগতে পারে। উপাদানে তেমন কোন ডিফারেন্স আসলে নাই।

রাঙ্গামাটিতে চাকমা বারে এক ধরনের ট্যাবলেট কিনতে পাওয়া যায়। ঢাকায় সেই ট্যাবলেট আর চাল গুলিয়ে রেখে রাইস বিয়ার বানানো হয়। বিলেতি যে কোন বোতলের চেয়ে এর ধাক বেশি। নতুন কেউ এক গ্লাস খেলে বমির মতন হয়।


বাসায় সবাই অসুস্থ। বলা ভালো গরমে আক্রান্ত। ইংরেজীতে হিট স্ট্রোক। বমি, ডায়ারিয়া এইতো। আমিও আক্রান্ত। বাসায় চালের স্যালাইন কিনে আনা হয়েছে। পানিতে গুলিয়ে সেবন করা হচ্ছে।

জিনিসটা উপকারী হতে পারে। দেখতে ভাতের মাড়ের মতন। খেতেও কাছাকাছি। তবে হঠাৎ করে দেখলে বাংলা মদের মতন লাগতে পারে। উপাদানে তেমন কোন ডিফারেন্স আসলে নাই।

রাঙ্গামাটিতে চাকমা বারে এক ধরনের ট্যাবলেট কিনতে পাওয়া যায়। ঢাকায় সেই ট্যাবলেট আর চাল গুলিয়ে রেখে রাইস বিয়ার বানানো হয়। বিলেতি যে কোন বোতলের চেয়ে এর ধাক বেশি। নতুন কেউ এক গ্লাস খেলে বমির মতন হয়।

কলেজে যাইনাই। অসুস্থ শরীর নিয়ে পাঁচ ঘন্টা টানা ক্লাস করার চেয়ে না গিয়ে ঝাড়ি শোনা ভালো। তবে কাছাকাছি লুবনান থেকে পাঞ্জাবী কেনা হয়েছে।

পাঞ্জাবীটা সুন্দর। আমার আর ছোট ভাইয়ের খুব পছন্দ হয়েছে। তাঁর এইচ এস সি পরীক্ষা। আমি তাঁকে ধরে নিয়ে গেছি।

আমার এইচ এস সি এর সময়ে আমি পালিয়ে বলাকায় অনন্ত জলিলের “খোঁজ – দ্য সার্চ” দেখে এসেছিলাম। মজার ব্যাপার হল, আমরা বের হচ্ছি, তখন এক বন্ধু মাকে নিয়ে দোতলায় এসিতে যাচ্ছে সিনেমা দেখতে।

এখন বলাকায় অগ্নি চলছে হয়তো। দেখি চান্স পেলে ছোট ভাইকে সাথে নিয়ে একদিন বাং মারা যাবে। সাথে হয়তো হাত জড়িয়ে কেউ থাকতে পারে। তাঁর পরনে থাকবে লাল সাদা শাড়ি। আমার পরনে লাল সাদা পাঞ্জাবী। ছোট ভাইয়ের সাথে আরেকজন লেপ্টে থাকতে চাইবে। সে তাঁকে লজ্জা পেয়ে দূরে ঠেলে দিতে চাইবে। আমি আর আমার বাহুলগ্না তা দেখে হাসতে হাসতে গড়িয়ে পড়ব।

আমি চালের স্যালাইন খাচ্ছি। ডায়রিয়া হয়েছে। স্যালাইন খেতে খেতে আমি ভাবছি। 😀

(মাইক্রোপোস্ট)

১ thought on “হিট স্ট্রোক ও দিবাস্বপ্ন

  1. জিনিসটা উপকারী হতে
    জিনিসটা উপকারী হতে পারে।
    দেখতে ভাতের মাড়ের মতন। খেতেও
    কাছাকাছি। তবে হঠাৎ
    করে দেখলে বাংলা মদের মতন
    লাগতে পারে। উপাদানে তেমন কোন
    ডিফারেন্স আসলে নাই।

    হাহাহাহা..।।।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *