মাদ্রাসা কি সারাজীবন জামায়াত বিএনপির ভোট ব্যাংক হয়ে থাকবে?

আমাদের অচেতনতার কারণে মাদ্রাসাকে জামায়াত বিএনপির বিশাল ভোটব্যাংক তৈরি করে দিচ্ছি। কোন মাদ্রাসার ছেলে দেখলেই আমরা ধরে নিই এই ছেলে শিবিরের নিজ দলের দিকে আকর্ষণ করার মত কিছুই না করে ছাগু বলে ছাগলের খোয়ারে পাঠিয়ে দিচ্ছি আর এভাবে মাদ্রাসার ছেলেদের আমরা নিজের হাতে জামায়াত শিবির করতে বাধ্য করছি আর তাদের ভোট গুলো জামাতীদের বাক্সে যাচ্ছে। কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে যেমন ছাত্রলীগের কমিটি আছে মাদ্রাসাতেও তেমন করে ছাত্রলীগের কমিটি তৈরি করতে হবে। এবং এখানে দলীয় কার্যক্রম চালালে হয়তো জামায়াত বিএনপির ভোট ব্যাংক হিসেবে মাদ্রাসাগুলো হয়তো আর এদের ভোটব্যাংক হিসেবে থাকবে না। আমি নিজে শুনেছি মাদ্রাসার অনেকে আছে যারা মওদুদ এর জামায়াত ঘৃণা করে কিন্তু আওয়ামী লীগের লোক তাদের বিশ্বাস করে না বলে তারা বাধ্য হয়ে ভোট দেয় জামায়াত বিএনপিকে। এসব ভোট গুলো আমাদের অবহেলার কারনে হারাচ্ছি। তাই এসব মাদ্রাসার ছেলেদের দিকে আমরা সচেতন হলে হয়তো ভবিষ্যতে আমাদের ভোটের পরিমাণ বাড়বে। আর কমিটির মাধ্যমে এদের বুঝাতে হবে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের গুরুত্ব মুক্তিযোদ্ধার আত্নত্যাগ কি ছিল। রাজাকারদের নিষ্ঠুরতা। আর দেশপ্রেম ধর্মের সাথে সাংঘর্ষিক নয়। এদের যে ধর্মের বিষয় ভুল বুঝানো হয়েছে তা প্রমাণ করে দিতে হবে। একাজের মাধ্যমে জামায়াত বিএনপির বিশাল ভোটব্যাংক নষ্ট হবে।
জয় বাংলা
জয় বঙ্গবন্ধু

৮ thoughts on “মাদ্রাসা কি সারাজীবন জামায়াত বিএনপির ভোট ব্যাংক হয়ে থাকবে?

  1. এই কাজে ছাত্রলীগকে কাজে
    এই কাজে ছাত্রলীগকে কাজে লাগানো যাইতে পারে। এরা মনে হয় ইদানিং কামকাজ পাইতেছে না। তাই নিজেরা কামড়াকামড়ি কইরা মরতেছে। অলস মস্তিষ্ক শয়তানের কারখানা বুঝেনই তো… :চুম্বন:

  2. এসব ভোট গুলো আমাদের অবহেলার

    এসব ভোট গুলো আমাদের অবহেলার কারনে হারাচ্ছি। তাই এসব মাদ্রাসার ছেলেদের দিকে আমরা সচেতন হলে হয়তো ভবিষ্যতে আমাদের ভোটের পরিমাণ বাড়বে।

    খাটি একটি আওয়ামী পোস্ট দেয়ার জন্য আপনাকে ধইন্যবাদ!

    :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি:

  3. এখানে অনেক সমস্যা আছে যার
    এখানে অনেক সমস্যা আছে যার মধ্যে প্রথম হলো বেশভুষা। ইতোমধ্যেই দেখা যাচ্ছে সরকার বদলের সাথে সাথে সুযোগসন্ধানীরা দলে এসে ভীড় করে তাদের অকাম সুসম্পন্ন করে দলের নাম ডুবাচ্ছে, সেখানে যদি মাদ্রাসাকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয় তাহলে নিঃসন্দেহে নিজস্ব বেশ-ভুষায় শিবিরের জন্য ছাত্রলীগে প্রবেশ ও গুপ্তচর বৃত্তি সহজসাধ্য হবে।

    যদিও আপনার এইসব চিন্তাধারায় অনেক আগে থেকেই দল মনোনিবেশ করেছে। যার ফলে আমরা দেখতে পারছি সরাসরি শিবির কর্মীদের তওবা পড়িয়ে ছাত্রলীগে আনছে,মদীনার সনদ অনুযায়ী দেশ পরিচালনা করবে।

  4. হা থাকবে , জতদিন না আপনারা
    হা থাকবে , জতদিন না আপনারা তাদের কাছা কাছি যেতে না পারবেন। আর তাদের অভাব অভিযোগের জন্য টাকা না দিবেন

  5. ছাত্রলীগ নিয়ে এত চুলকানি কেন?
    ছাত্রলীগ নিয়ে এত চুলকানি কেন? আর কি করবে ছাত্রলীগ কত লাশ চাই ছাত্রলীগের? ডাঃ আতিক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *