মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের বিকৃত কবে থেকে?

একটা জাতিকে ধবংস
করে দিতে হলে প্রথমে সেই জাতির
স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃত
করে জনগনের কাছে তুলে ধরতে হবে।
স্বাধীনতার সংগ্রামকে প্রশ্নবিদ্ধ
করে তুলতে হবে। ঠিক
এভাবে পাকিস্তানিদের ষড়যন্ত্রের
মাধ্যমে আমাদের স্বাধীনতার পরও
এদেশ থেকে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের
ইতিহাস বিকৃত করে আমাদের
কাছে তুলে ধরা হয়েছে ১৯৭৫
থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত। ১৯৭৫ সালের
দিকে স্বাধীনতা বিজয় দিবসেই
শুধুমাত্র টেলিভিশনে কিছু নাটক
দেখানো হতো যা দ্বারা ইতিহাস
বিকৃত ছিল। সেই সব
নাটকে দেখানো হয়তো ১৯৭১
সালের একটা দৃশ্য যেখানে কিছু
মুক্তিযোদ্ধা চরিত্রে অভিনয়কারী মানুষ
বর্তমানে প্রচলিত “সবুজ জমিনে লাল
সূর্য”

একটা জাতিকে ধবংস
করে দিতে হলে প্রথমে সেই জাতির
স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃত
করে জনগনের কাছে তুলে ধরতে হবে।
স্বাধীনতার সংগ্রামকে প্রশ্নবিদ্ধ
করে তুলতে হবে। ঠিক
এভাবে পাকিস্তানিদের ষড়যন্ত্রের
মাধ্যমে আমাদের স্বাধীনতার পরও
এদেশ থেকে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের
ইতিহাস বিকৃত করে আমাদের
কাছে তুলে ধরা হয়েছে ১৯৭৫
থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত। ১৯৭৫ সালের
দিকে স্বাধীনতা বিজয় দিবসেই
শুধুমাত্র টেলিভিশনে কিছু নাটক
দেখানো হতো যা দ্বারা ইতিহাস
বিকৃত ছিল। সেই সব
নাটকে দেখানো হয়তো ১৯৭১
সালের একটা দৃশ্য যেখানে কিছু
মুক্তিযোদ্ধা চরিত্রে অভিনয়কারী মানুষ
বর্তমানে প্রচলিত “সবুজ জমিনে লাল
সূর্য”
পতাকাটি নিয়ে “বাংলাদেশ
জিন্দাবাদ” শ্লোগান দিচ্ছে।
যেখানে প্রকৃত ঘটনা ছিল ১৯৭১ সালের
পতাকা ছিল সবুজ জমিনের
ভিতরে লাল
সূর্য্য এবং তার ভিতরে হলুদ রংগের
বাংলাদেশের মানচিত্র্
এবং শ্লোগান ছিল “জয় বাংলা”।
সেসব নাটকে রাজাকারদের তেমন
কোন আলোকপাত করা হত না।
এবং স্বাধীনতার ঘোষক
হিসেবে জিয়াকে তুলে ধরা হত।
তাছাড়া বিভিন্ন
মুক্তিযোদ্ধা বিরুদ্ধেদের সুক্ষ
প্রপাগাণ্ডার কারনে জনগণের
মনে প্রশ্ন জাগে শহীদদের
সংখ্যা বীরাঙ্গনাদের
সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন
তুলে তুলে জনগনকে দ্বিধান্বিত
করা হয়েছে আসলে শহীদদের
সংখ্যা কি ৩০ লক্ষ নাকি ৩ লক্ষ? সত্যিই
কি এত নারীর ইজ্জত হারিয়েছ?
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুর
নাম জাতীয় চার নেতাদের নাম খুব
সুক্ষভাবে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।
যাতে পাকিস্তানিদের
প্রতি আমাদের ঘৃণাবোধ না জাগে।
এদেশের মুক্তিযুদ্ধের
প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সাধারণ
জনমনে কোন ভাবাবেগ না হয়। এই
ইতিহাস বিকৃতের কাজ শুরু
করে জিয়া আর তার
ধারাবাহিকতা এখনো তারেক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *