শেখচযচ

তখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযমাদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পযচদের নাভ টচর পকট যতখট টছাএক পয

৪ thoughts on “শেখচযচ

  1. আওয়ামী লীগ তেমনি একটি দল যারা

    আওয়ামী লীগ তেমনি একটি দল যারা যুগে যুগে প্রমাণ করেছে যে তারা এদেশের মা, মাটি ও মানুষের দল। বাংলার মানুষের জন্য যা কিছু সত্য ও সুন্দর তা আমরা আওয়ামী লীগের হাত ধরেই পেয়েছি, আগামীতেও পাবো।

    সত্যিই মজা পেলুম দাদা।

    বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।

    এটি শুধু কাগজ-কলম, বিলবোর্ড আর টিভি এড’র মধ্যেই সীমাবদ্ধ।

    অর্থনীতিতে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের উদীয়মান তারকা

    ভাই শেয়ারবাজার কি অর্থনীতির বাইরে?

    আওয়ামী লীগ সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশের অঙ্গিকার আজ পূরণ হওয়ার পথে। সরকার যেভাবে উন্নয়ন কর্মকান্ড করে চলছে যার সুফল আমরা পাচ্ছি।

    কিছুটা একমত কিন্তু ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে গিয়ে গড়ার কারিগরের নির্বুদ্ধিতার কারনে টাল বাংলাদেশে পরিণত হচ্ছে। বাংলাদেশের সরকারী ওয়েবসাইট গুলোর অবস্থা বেহাল। সবগুলার সিকিউরিটি নিম্নমানের।

    সাংবিধানিকভাবে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব নিয়ে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। ২০১৮ সাল পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত থাকবে ইনশা আল্লাহ। পরবর্তীতে আবারও বঙ্গবন্ধু তনয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে এগিয়ে যাবে আমাদের সোনার বাংলাদেশ। জয় বাংলা।

    সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদে তো ক্ষমাতা পাকা করার উপায় করেই নিয়েছে। কীভাবে বলছেন ২০১৮ পর্যন্ত ধারা অব্যাহত থাকবে? তার মানে কি আরো কিছু ৫ ফেব্রুয়ারির মত সার্কাস দেখাবে আওয়ামীলীগ।

  2. এম এ আমিন খান ভাই, আপনার
    এম এ আমিন খান ভাই, আপনার পোস্ট টি পড়ে কেমন জানি লাগল!

    এইভাবে আওয়ামী সরকারের গুন গান গাওয়ার প্রয়োজন কি?
    বরং আপনার উচিত “বাংলাদেশের রাজনীতিতে ভাইয়া’র অবদান” শীর্ষক নাতিদীর্ঘ প্রবন্ধ রচনা করা,
    “হাওয়া থেকে পাওয়া” হাজার হাজার কোটি টাকার গল্প লেখা,
    “দশ ট্রাক অস্ত্র উদ্ধারের ইতিকথা” নামে একটা ফ্যান্টাস্টিক নাটক রচনা করা,
    “আমরা কেন জঙ্গি হইলাম” নামে একটি আত্মজীবনী লেখা,
    “শহীদ হওয়ার দশটি সেরা পদ্ধতি” নামে সত্তর পৃষ্ঠার একটা বই লেখা।

    এগুলো বাদ দিয়ে আপনি এসব কি যা তা নিয়ে লিখছেন?
    ভাল লাগল নাহ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *