‘ শুরুর কবিতা ‘

ধুর ! কি যে বল !
রবি ঠাকুর আর আমি – এক হলাম থুড়ি ?
জানো না, তিনি তো অমর ‘শেষের কবিতা’য় ,
আর আমি সাদা কগজে এলেবেলে শুরু করি ।
রবি কবির লেখা সাহিত্যের শেষ ধ্রুবতারা ;
আর অ-কবিদের নার্সারিতে আমার শুন্য
থেকে শুরু করা ।

এভাবেই শুন্য থেকে জীবনের অঙ্কও যদি পারতাম কষতে –
হাজার রঙে ধেবড়ে যাওয়া ক্যানভাস থেকে



ধুর ! কি যে বল !
রবি ঠাকুর আর আমি – এক হলাম থুড়ি ?
জানো না, তিনি তো অমর ‘শেষের কবিতা’য় ,
আর আমি সাদা কগজে এলেবেলে শুরু করি ।
রবি কবির লেখা সাহিত্যের শেষ ধ্রুবতারা ;
আর অ-কবিদের নার্সারিতে আমার শুন্য
থেকে শুরু করা ।

এভাবেই শুন্য থেকে জীবনের অঙ্কও যদি পারতাম কষতে –
হাজার রঙে ধেবড়ে যাওয়া ক্যানভাস থেকে
আলগোছে মুছতে যদি পারতাম যন্ত্রনার রং ;
ছবিটা ঠিক সত্যিকার কবিতা হত , দেখতে ।

কলম দোয়াত কিছুই যখন দাগ কাটে না,
রিক্ত নিজেকে প্রবোধ দিই –
‘সবাই কবি নয়, কেউ কেউ হয় ।’
হাজার ফালতু শুরু করে,
আর কেউ এক শেষ কথা কয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *