গল্প ( ১৮ – )

একদেশে ছিল এক খারাপ রাজা । তাঁর একটা পচা বউ, পচা ছেলে আর একটা পচা মেয়ে ছিল। তার চোদ্দ গুষ্টির সব পচা। রাজা ছিল অনেক অত্যাচারী আর লোভী। কিভাবে প্রজাদের ঠকিয়ে বেশি টাকা কামানো যায়, সেটা তার মাথায় ঘুরত সব সময়। যেমন, দেশের সব কিছুর উপর সে বিশাল TAX বসাত। জোরে হাসলে TAX, পাদ দিলে TAX, রাস্তা ঘাটে চুম্মা চাট্টি করলে TAX, রাস্তায় দাড়িয়ে হিসু করলে TAX, তিন জনের বেশি রাস্তায় হাঁটলে xtra জনের উপর TAX……… আরও কত কি……পুরা হিন্দি সিনেমার অমরেশ পুরি কিছিমের খারাপ। ….


একদেশে ছিল এক খারাপ রাজা । তাঁর একটা পচা বউ, পচা ছেলে আর একটা পচা মেয়ে ছিল। তার চোদ্দ গুষ্টির সব পচা। রাজা ছিল অনেক অত্যাচারী আর লোভী। কিভাবে প্রজাদের ঠকিয়ে বেশি টাকা কামানো যায়, সেটা তার মাথায় ঘুরত সব সময়। যেমন, দেশের সব কিছুর উপর সে বিশাল TAX বসাত। জোরে হাসলে TAX, পাদ দিলে TAX, রাস্তা ঘাটে চুম্মা চাট্টি করলে TAX, রাস্তায় দাড়িয়ে হিসু করলে TAX, তিন জনের বেশি রাস্তায় হাঁটলে xtra জনের উপর TAX……… আরও কত কি……পুরা হিন্দি সিনেমার অমরেশ পুরি কিছিমের খারাপ। ….

আর তাঁর বউ ছিল ঝগড়াটে। সারাদিন Star-জলশা দেখত। আর ঝগড়া করে বেড়াতো। বউএর এমন প্রতিভা দেখে রাজা দেশের জাতিও TV Channel এ ঝগড়া Reality Show শুরু করেন। আর সেই প্রতিযোগিতায় প্রতি বছর তার বউই।

তার ছেলে, উড়ে বাবা – – পুরাই ফাউল পোলা। বদের হাড্ডি একটা। মিশা সওদাগারের মতো খারাপ। সারাদিন মদ আর জুয়া। এমন কোন নেশা নাই সে করতো না। তার প্রিয় নেশা ছিল টিকটিকির লেজ পুরিয়ে খাওয়া। তার ভয়ে রাজ্যের সব টিকটিকি পালিয়ে বেড়াতো।

আর মেয়ে। উফফ সিরাম একটা জিনিস। পুরাই ফাজিল মেয়ে। ছোট ছোট কাপড় পড়ে রাজ্যের ঘুরে বেড়াতো। কেউ তার দিকে Sexy দৃষ্টিতে তাকালে, ওমনি গিয়ে বাপের কাছে নালিশ দিতো। তার সবথেকে খারাপ অভ্যাস ছিল, সে ছেলেদের মন নিয়ে লুডু খেলত।
রাজ্যের সবাই তাদের ঘৃণা করত আর ভয় পেত বলে কিছুই বলতে পারতো না।

পাশের আর এক রাজ্য ছিল। ভালো রাজা, খবুই ভালো। বাংলা সিনেমার মরহুম আনোয়ার হোসেনের মতো।

তাঁর ছেলে ছিল বিশাল শক্তি The HALK। আর অনেক ভালো। সাকিব খানের মতো ইসমারট।

আর সিরাম সুন্দরি মেয়ে। এত্ত এত্ত এত্ত সুন্দরি যে আমার পক্ষে বর্ণনা দেওয়া সম্ভব না। Extremely Sorry. Readers have to imagine that সৌন্দর্য। রাজ্যের সবাই তাদের বহুত ভালবাসত।

দুই রাজ্যের মাঝে ছিল একটা সুন্দরবন। ওখানে সবাই শিকার করতে যেত। একদিন ভালো রাজার মেয়ে শিকারে গেলেও। Suddenly তাকে একটা ‘বাতি’ (বাঘ আর হাতির মিলনে পয়দা হওয়া বাচ্চা The বাতি) হামলার করলো। মেয়েটা চিৎকার করতে লাগলো, কে কোথায় আছো? Kindly আমাকে বাচাও। আর তাঁর FB তে Status দিল। “বাতি” is running after me. OMG. ওমনি ৫০০ LIKE.

খারাপ রাজার ছেলে ওই বনে বসে টিকটিকির লেজ পুরিয়ে নেশা করছিলো। তার FB Friend List এ ভালো রাজার মেয়ে ADD করা ছিল। Status দেখে সে তাকে বাঁচালও। ভালো রাজার মেয়ে তার সাহসিকতা দেখে তাঁর প্রেম এ পড়লো। back ground এ বাজতে থাকলো “তুমি আজ কথা দিয়েছ, বলেছ— ও ও ও দুটি মন ঘর বাধবে”।

কিন্তু পরক্ষনে সে বুঝতে পারলো এটা খারাপ রাজার তেন্দর পোলা টা। সেই ছেলে তাকে কান্দে করে বাসায় এনে বলল, তোমাকে আমি আজ ইয়ে করবো। ভালো রাজার মেয়ে আবার Status দিল, খারাপ রাজার ছেলে আমাকে Kidnap করেছে। OMG সে কি আমাকে R*P* করবে? I feel so xcited. ওমনি 3069 LIKE.

ওদিকে বোনের FB Status দেখে ভাই তাকে উদ্ধার করতে গেলো। দেখল বসুন্ধরা City এর মতো বিশাল এক বাড়ি। LIFT দিয়ে তাঁর ছাদে উঠলো। ওখান থেকে লাফ দিয়ে পাশের ৫-তলা বাড়িতে পড়লো। জানলা দিয়ে ভেতরে ডুকে দেখে, খারাপ রাজার মেয়ে Sunny Leon এর latest একটা Video দেখছে। ভালো রাজার ছেলে তখন বলল, এই পাজি মেয়ে তোর ভাই আমার বোনকে কোথায় আটকে রেখেছে বল। খারাপ রাজার মেয়ে বলল, যদি না বলি? কি করতে পারবে।
না বললে তোকে আমি মুরগির দুধ খাওয়াব, তোর সাথে বদনার প্রেম হয়ে যাবে। তুই WASHROOM থেকে বের হতে পারবি না… মুহহহহ হাহাহাহাহা… হাসতে লাগলো ভালো রাজার ছেলে। তাঁর হাসি শুনে DB, Police r RAB এসে তাকে বন্দি করে। গুয়ান্তামালায় নিয়ে গেলো।

ভালো রাজা তখন তাঁর ছেলে মেয়ে উদ্ধার এর জন্য যুদ্ধ ঘোষণা করলো খারাপ রাজার বিরুদ্ধে। খারাপ রাজা তখন মিরাক্কেল দেখছিল। তাঁর 3G Smart Mobile এ Call আসলো। সেখানে ভালো রাজার মুখ ভেসে উঠলো। ভালো রাজার বলল, শয়তান তোর বান্দর পোলা আমার মেয়েকে Kidnap করেছে , আমার ছেলে কে…….pppuuuuuuu…..(Call Ended). Network disconnect.
Then খারাপ রাজা Call Back করলো, মুহহহাআআআহহহহাআআ… হাসি দিয়ে বলল, ছাগল Airtel Use করছ নাকি? LUL re LUL. কি হইছে বল? আমার Free Talk time আছে। then তারা যুদ্ধ কোথায় হবে আলাপ করলো। মিরপুর Indoor Stadium যুদ্ধ করতে আসলো। শুরু হল যুদ্ধ-যুদ্ধ-যুদ্ধ-যুদ্ধ-যুদ্ধ-…ধিশুমা, ধিসুমা… suddenly দুই রাজার মাথায় বারি লাগলো, তারা অজ্ঞান হারাই ফেলল।
যখন তারা চোখ খুলল, দেখল তারা Singapore Community Hospital, ভোলা তে। তারা চোখ খুলে বলল, আমরা কারা? আমরা কোথায়? আমাদের কি হইছে? তোমরা কারা? সবাই তো হাসতে হাসতে অস্থির। সবাই বলতে লাগলো, তারা অজ্ঞান হয়ে BCS পরীক্ষা দিছিল নাকি? এতো প্রশ্ন করে ক্যারে?

ওমনি একটা ঠাডা পড়লো (বজ্রপাত with গায়েবি আওয়াজ), তোরা তো সেই হাবুল আর কাবুল দুই ভাই। বাণিজ্য মেলায় হারাই গেছিলি। তাদের সব মনে পরতে লাগলো (flash back). Back ground এ গান ভেজে উঠলো, “আমার লক্ষি ভাইটি মায়ায় ভরা মুখটি ।। ।। ।। লাল্লা লালা লালা লালা”……… তাদের সব মনের পড়ে গেলো।

Then সব ঠিক হয়ে গেলো। রাজারা তাদের সন্তানদের মধ্যে বিয়ে দিয়ে দিলো। সুখে শান্তিতে সবাই গুলিস্তান-যাত্রাবাড়ী উড়ালসড়ক দিয়ে হাঁটতে লাগলো। আর back ground এ গান বাজতে লাগলো “পিচ ঢালা এই পথটারে ভালোবেসেছি তাঁর সাথে এই মনটারে বেধে নিয়েছি”।

৫ thoughts on “গল্প ( ১৮ – )

  1. কেউ আম্রে মাইরালা…
    কেউ আম্রে মাইরালা… :খাইছে: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :চিন্তায়আছি: হেইয়া মুই কি ফরলাম… :মাথাঠুকি: :মানেকি: :টাল: :টাল: :টাল: :কল্কি: :কল্কি: =P~ :ভেংচি: 😀

Leave a Reply to লাল রাজা Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *