তথাকথিত আন্দোলনঃ কিছু কাগুজে বাঘের মিথ্যে হুঙ্কার। পর্ব-২

অবশ্য চাইলেই হিসেব মেলানো যায় না।
কিছু হিসেবের মধ্যে গরমিল থেকেই যায়। রাতভর তেল পুড়ে সাদা কাগজে হিসেবের আঁকিবুঁকি করেও শেষ পর্যন্ত কিছু হিসেব নিকেশের কুল কিনারা খুঁজে পাওয়া যায় না। এ বড় সরল অঙ্কের জটিল হিসাব!

অবশ্য চাইলেই হিসেব মেলানো যায় না।
কিছু হিসেবের মধ্যে গরমিল থেকেই যায়। রাতভর তেল পুড়ে সাদা কাগজে হিসেবের আঁকিবুঁকি করেও শেষ পর্যন্ত কিছু হিসেব নিকেশের কুল কিনারা খুঁজে পাওয়া যায় না। এ বড় সরল অঙ্কের জটিল হিসাব!
কার ডাকে গনজাগরন মঞ্চ একত্রিত হয়েছিল এ নিয়ে এখনও ধুম্রজাল সৃষ্টি আর জল ঘোলা করার অপপ্রয়াস চলছেই। আমার যতদূর জানা, অনলাইনে প্রথম আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন রাকিবুল বাশার রাকিব নামের এক ভদ্রলোক (অবশ্য বয়স বিচারে তাকে ভদ্রলোক না বলে ভদ্রছেলে বলাই যুক্তিসঙ্গত) আর প্রথম জমায়েতে উপস্থিত ছিলেন সেলিনা মওলা ম্যাডাম, তখন ইমরান এইচ সরকার ছিলেন একেবারে সাইড লাইনে । মাইকে ঘোষণার দায়িত্বে ছিলেন আল আমিন বাবু। আল আমিন বাবু ছিলেন একসময়ের ডাকসাইটে ছাত্রলীগ নেতা, বাংলাদেশে ব্যান্ড সঙ্গীতে দেশাত্মবোধক গানের প্রচলন এবং জনপ্রিয়তা পায় তাঁর হাত ধরেই। এখনো তিনি সরাসরি আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত আছেন।
আজ কোথায় রাকিবুল বাশার রাকিব? কোথায় সেলিনা মওলা, কোথায় সেই আল আমিন বাবু? ফেব্রুয়ারির ৮ তারিখেই উনারা মঞ্চ থেকে বিতাড়িত হয়েছেন। যেভাবে অপমান করে মঞ্চ থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের “মামা বাহিনী”র প্রধান শহিদুল হক মামাকে তেমনি ভাবেই অপমানিত হতে হয়েছে আরও অনেক মুক্তিযোদ্ধাদের, বোতল-ও ছুঁড়ে মারা হয়েছে তাঁদের দিকে। বাম ঘরানার মদদপুষ্ট নেতাকর্মীদের দখলে চলে গেল পুরো জাগরন মঞ্চ; ঠুঁটো জগন্নাথের মত মাইক হাতে তাঁদের তাঁবেদারিতে ব্যাস্ত হয়ে পড়লেন ইমরান এইচ সরকার।
মহাত্মা গান্ধীর অহিংস আন্দোলনের আদলে শুরু হল তথাকথিত আন্দোলন। সাধারন মানুষের দীর্ঘদিনের জমে থাকা পুঞ্জিভুত ক্ষোভের মূলধনে শুরু হল ব্যক্তিগত লাভ ক্ষতির হিসাব, নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু ঘুটি চালতে চালতে সেটা দাঁড় করিয়ে দিলেন এক্কেবারে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সামনে। একদিকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে সাধারন মানুষের আবেগ কে পুজি করে নিজেদের আখের গোছানোর চেষ্টা, অন্যদিকে বাম-জামাতের সাথে গোপন আঁতাতের ভিত্তিতে অভিনব আন্দোলনের পাঁয়তারা। জামাতের নতুন নতুন মারণাস্ত্রের প্রতিরোধে আবিস্কার হল মোমবাতি প্রজ্বলন, বেলুন উড়ানো, শপথ বাক্য পাঠের মত হাস্যকর সব কর্মসূচি। মঞ্চের নেতারা খুব ভাল করেই জানতেন, মঞ্চের পক্ষ থেকে কোন শক্ত প্রতিরোধের ডাক দিলে সংঘাত অনিবার্য এবং তাতে মঞ্চের জয় সু নিশ্চিত। সে কারনে প্রথাগত আন্দোলনে না গিয়ে কেবল আই ওয়াশের জন্য তরুন প্রজন্মকে আফিম গেলানো হল, শাহবাগের মোড়ে ঝিম মেরে পরে থাকা তরুণদের এর বেশি আর কিছু করার ছিলনা!
ইমরান বা ওর সহযোগীরা কৌশলগত ভাবে গনজাগরন মঞ্চকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছিল। মঞ্চের ইমেজকে কাজে লাগিয়ে আর ইমরান এইচ সরকার এর কাঁধে বন্ধুক রেখে গোপন এজেণ্ডা বাস্তবায়নের পরিকল্পনা চালিয়ে যাচ্ছিল বাম পন্থিরা। খেয়াল করুন, আসিফ মহিউদ্দিনের নামে নাস্তিকতাসহ আরও নানা রকম অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও তাঁকে ফেব্রুয়ারির ৮ তারিখে বাংলাভিশনের একটা টক শোতে গনজাগরন মঞ্চের প্রতিনিধি করে পাঠানো হল। এতো থাকতে তাকে কেন? এর পরপরই বিরোধী দল ও জামাত শিবিরেরা মঞ্চের গায়ে নাস্তিকতার ট্যাগ টাঙ্গিয়ে দিল। এটা কার মাস্টার প্ল্যান ছিল? বুঝতে খুব কষ্ট হওয়ার কথা নয়!

(চলমান)

১৫ thoughts on “তথাকথিত আন্দোলনঃ কিছু কাগুজে বাঘের মিথ্যে হুঙ্কার। পর্ব-২

    1. অপেক্ষা করুন বন্ধু। শেষতক
      অপেক্ষা করুন বন্ধু। শেষতক দেখে যান, হয়তো আপনার ধারনা মিথ্যে হতে পারে। আরও আট পর্ব বাঁকি, শুধু লেখার ভুলত্রুটি গুলি দেখতে থাকুন। সম্ভব হলে জানিয়ে দিন, খুশি হব।

    1. আশা করি, নিরপেক্ষ থেকে
      আশা করি, নিরপেক্ষ থেকে বাস্তবতার আলোকে পক্ষ বিপক্ষের দিকে না গিয়ে সত্য তুলে ধরার চেষ্টা করব। আপনাদের মূল্যবান পরামর্শ পেলে বাধিত হব।

  1. অনেকে দেখছি এই আন্দোলন নিয়ে
    অনেকে দেখছি এই আন্দোলন নিয়ে নিজস্ব মতামত দানের নাম করে অহেতুক বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন/করছেন ।
    আপনি নিজেও বলতেছেন নিরপেক্ষ থেকে আসল ও প্রকৃত সত্য ইতিহাসটি তুলে ধরবেন ।
    ভাল কথা, আপনার লিখার শেষ লাইনটি পর্যন্ত পড়ার অপেক্ষায় থাকলাম ।দেখি কেমন সত্য ইতিহাস বেরিয়ে আসে ।

  2. শেষের অপেক্ষায়
    শেষের অপেক্ষায় রইলাম।

    —————————————————
    বন্ধু শক্ত হাতে ধর হাল,
    পাড়ি দিতে হবে অনন্ত পথ দূর পারাবার।…….
    http://www.facebook.com/sbuchchhwas

  3. আপনার নাম সার্থক। আমার ব্লগে
    আপনার নাম সার্থক। আমার ব্লগে আইউজুদ্দিন যাহা করে আপনিও তাহা শুরু করিয়াছেন। করেন।
    ছাগল ম্য ম্য করবে, এটাই স্বাভাবিক। আপনার তথাকথিত “সত্য উদ্ঘাটন” দিয়া তো মানুষের চোখ কান বিবেক বুদ্ধি চলে না!

    1. আপনি ঠিকটাই বলেছেন। ছাগল ম্য
      আপনি ঠিকটাই বলেছেন। ছাগল ম্য ম্য করবেই, এটাই স্বাভাবিক। তারপরও, চোখ বন্ধ করলেই প্রলয় ঠেকানো যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *