তাবেদার রাষ্ট্রের ভূমিকা কি নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ?

১৯৭১ এ ৯ মাস জীবনপণ যুদ্ধের পর লাল সবুজের একটি স্বাধীন পতাকা পেয়েছি আমরা। সেই হতে আমরা জাতি হিসেবে কোমর সোজা করে বার বার দাড়াতে চেষ্টা করে যাচ্ছি । কিন্তু দেশের ও বাহিরের কিছু ষড়যন্ত্রকারীর বার বার বিশ্বাসঘাতকতা এবং দেশপ্রেম আর সঠিক নেতৃত্বের অভাবে আমরা আমাদের কোমর আর সোজা করে দাড়াতে পারছি না।

১৯৭১ এ ৯ মাস জীবনপণ যুদ্ধের পর লাল সবুজের একটি স্বাধীন পতাকা পেয়েছি আমরা। সেই হতে আমরা জাতি হিসেবে কোমর সোজা করে বার বার দাড়াতে চেষ্টা করে যাচ্ছি । কিন্তু দেশের ও বাহিরের কিছু ষড়যন্ত্রকারীর বার বার বিশ্বাসঘাতকতা এবং দেশপ্রেম আর সঠিক নেতৃত্বের অভাবে আমরা আমাদের কোমর আর সোজা করে দাড়াতে পারছি না।
আমাদের নেতাদের ক্ষমতার লোভ, অসার নেতৃত্ব আর বন্ধু বলে পরিচয় দানকারী ২ দেশের তাবেদারি করে ক্ষমতার মসনদে যেতে বারবারই উৎসাহী। তারা (বন্ধু বলে পরিচয় দানকারী ২ দেশের)এদের বলয় হতে মুক্ত হয়ে স্বাধীন ভাবে দেশপ্রেমের আদর্শে বলীয়ান হয়ে দেশ পরিচালনায় চুড়ান্ত ব্যর্থ। ক্ষমতার মসনদে যেতে নেতারা বেহায়ার মত অন্য দেশের স্বার্থ রক্ষার প্রতিশ্রুতে বার বারই উৎসাহী। এদের ক্ষমতার লোভের কাছে দেশপ্রেম জাতিপ্রেম বারবারই উপেক্ষিত।
এগুলির নগ্ন উদাহরণ —-

১।সুন্দর বনের বুকে যখন ভারতের স্বার্থে যখন অসম মালিকানা স্বার্থে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র হয়।

২। যখন দেখি সিমান্তে আমাদেরই এক ভাই , এক বোন কে গুলি করে মেরে ফেলা হয়, অথচ সরকার জন্ত্রের দেশপ্রেমিক নেতারা একটা টু শব্দ করে না।

৩। শ্রম বাজারের রমরমা বাজার যখন আমাদের একটি সামান্য পদক্ষেপে হারিয়ে বসি বা তুলে দেয় ভারতের হাতে।

৪। তেমনি পোশাক শিল্পের ধ্বংস করে দেয় ভারতের স্বার্থে।

—————————————- এমনি হাজারও বিষয় একটু খেয়াল করেই বুঝা যায়। বুঝা যায় আমাদের বিদেশ নিতি ও স্বদেশ নিতির দিকে একটু খেয়াল করলেই। তেমনি নগ্ন হয়ে পড়ে ইউকিলিস এ ফাঁস হওয়া বার্তায় আমাদের নিয়ে ভারত ও বড়ভাই আমেরিকার পরিকল্পনা এবং সেই সব পরিকল্পনার বাস্তবায়ন দেখছি চোখের সামনে।

এ সব দেখলে মনে হয় আমরা যেন পরোক্ষ ভাবে অন্য কোন দেশের এজেন্ট । তাদের নীতি বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। তাই ভয় হয় ভাবতে খারাপ লাগে আমাদের দেশ কি তাবেদার রাষ্ট্রে পরিণতির দিকে হাঁটছে হামাগুড়ি দিয়ে।

@@ টীকাঃ তাবেদার রাষ্ট্রঃ যে রাষ্ট্র নামমাত্র স্বাধীন, কিন্তু যে রাষ্ট্র বৈদেশিক ও অভ্যন্তরীণ নিতিসমুহ কার্যত অপর কোন শক্তিশালী রাষ্ট্র কতৃক নিয়ন্ত্রিত, সেই রাষ্ট্রকে বলে তাঁবেদার রাষ্ট্র। উপগ্রহ যেমন গ্রহের বলয়ের মধ্যেই পরিক্রমণ করে, তাঁবেদার রাষ্ট্রও অনুরুপ কোন শক্তিশালী রাষ্ট্রের বলইয়াবদ্ধ হয়ে কাজ করে। এ জন্য আরুপ রাষ্ট্রকে উপগ্রহ রাষ্ট্র বা satellite state ও বলা হয়।

৩ thoughts on “তাবেদার রাষ্ট্রের ভূমিকা কি নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ?

  1. হুদাই ট্যাগটার এর চেয়ে চমৎকার
    হুদাই ট্যাগটার এর চেয়ে চমৎকার ব্যবহার আর হতে পারে না… :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :মানেকি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *