মুভি রিভিউঃ The Secret in Their Eyes (2009) “El secreto de sus ojos” (original title) মুভি তো নয় যেন নিরব ঘাতক।


এ এক মহাকাব্যিক মুভি। মুভিটি ২০১০ সালে বিদেশী ভাষার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে অস্কার জয়ী মুভি। এটি একটি স্প্যানিশ ভাষার আর্জেন্টাইন মুভি।



এ এক মহাকাব্যিক মুভি। মুভিটি ২০১০ সালে বিদেশী ভাষার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে অস্কার জয়ী মুভি। এটি একটি স্প্যানিশ ভাষার আর্জেন্টাইন মুভি।


মুভিটি দেখার পর মনে হচ্ছিল আর্জেন্টাইনরা শুধু ফুটবলই খেলে না মুভিও বানাতে পারে… অসাধারন এবং অনন্য রকম মুভি।


“চোখ” মানব দেহের অনেক গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যা না থাকলে আমরা পৃথিবীর সকল সুখ থেকেই এক প্রকার বঞ্ছিত হতাম। আচ্ছা চোখ কি শুধু দেখার কাজেই ব্যবহৃত হয়? তবে যে আমরা একটা গান শুনি “চোখ যে মনের কথা বলে” এটি কি নিছকই গানের লাইন??? কিন্তু অনেকেই যে বলে চোখের নাকি আলাদা ভাষা আছে। যাতে কিনা খুব সহজেই মনের অন্তঃস্থলে থাকা কথা গুলো ধরা পড়ে। যার কারনে কিনা মানুষ কষ্ট পেলে চোখ সবার আগে তা জানান দেয়… চোখ দেখে কি সত্যিই মানুষের মনের গভীরের কথা ধরা যায়। আপনি কি পারবেন কারো চোখ দেখে তার মনের খবর ধরতে??? জানতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে মুভিটি দেখতে হবে…

গল্পের শুরুতে দেখবেন এক অবসর প্রাপ্ত আইনজীবী তার জীবনের অতীতের অসমাপ্ত ফেলে আসা এক ধর্ষণ ও খুনের তদন্ত ও তার নিজের অসমাপ্ত ভালবাসার ঘটনা নিয়ে উপন্যাস লিখে মনের মাঝে রয়ে যাওয়া যন্ত্রণার উপসংহারে পৌছানোর চেষ্টা করছে।

এর বেশি কাহিনী থেকে বলে গল্পটিকে নষ্ট করার কোন ইচ্ছা নেই। কি এমন হয়েছিল অতীতে যে তাকে ভালবাসা অসমাপ্ত রেখে আসতে হল কিংবা কি এমন কারনে খুনের তদন্তও সমাপ্ত করতে পারল না??? কি ছিল রহস্য??? শেষ পর্যন্ত উপন্যাস লিখেই বা কি হয়???

এখানে অবসর প্রাপ্ত আইনজীবী চরিত্রে আর্জেন্টাইন অভিনেতা রিকারডো ডারিনের কথা না বললেই নয় বেশ সাবলীল এবং মনোমুগ্ধকর অভিনয় করেছেন। ডারিনের সাথে প্রথম পরিচয় হয়েছিল নাইন কুইনস নামের আরেক অসাধারন আর্জেন্টাইন মুভিতে। সত্যি বলতে তারপর থেকেই তার ফ্যান হয়ে গিয়েছি। খুব চমৎকার একজন অভিনেতা।

পুরো মুভি জুড়ে খুনের তদন্তের পাশাপাশি না বলা অনন্য এক ভালবাসা সত্যিই দারুন ভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন আর্জেন্টাইন পরিচালক Juan José Campanella ।

আর চমৎকার স্ক্রীন প্লে সেইরকম ক্যামেরার কাজ এবং খুতহীন চিত্রায়ন আর মনমুগ্ধকর অভিনয়… আপনাকে সত্যিই দিবে অসাধারন বিনোদন… আমি একটুও বাড়িয়ে বলছি না… থ্রিলার দেখতে যারা পছন্দ করেন তাদের জন্য এটি অতি মাত্রায় আবশ্যিক…

আর একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন “Passion Never Dies”, কি বিশ্বাস হল না তাহলে দেখে ফেলুন “The Secret in Their Eyes”…

“A guy can change anything. His face, his home, his family, his girlfriend, his religion,his God. But there’s one thing he can’t change. He can’t change his passion… ”

মুভির নামঃ The Secret in Their Eyes (2009)
http://www.imdb.com/title/tt1305806

টরেন্ট ডাউনলোড লিঙ্কঃ
http://kickass.to/the-secret-in-their-eyes-2009-720p-brrip-x264-stylishsalh-t5690832.html

http://kickass.to/the-secret-in-their-eyes-2009-dvdrip-xvid-lap-no-rars-t3419209.html

ধন্যবাদ। 🙂

১৭ thoughts on “মুভি রিভিউঃ The Secret in Their Eyes (2009) “El secreto de sus ojos” (original title) মুভি তো নয় যেন নিরব ঘাতক।

  1. “A guy can change anything.

    “A guy can change anything. His face, his home, his family, his girlfriend, his religion,his God. But there’s one thing he can’t change. He can’t change his passion… ”

    :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ফুল: :ফুল: :ফুল: :ফুল:
    খুব খুব খুব খুব খুব খুব পছন্দের একটি ছবি আমার। রিভিউ ভাল লাগল… তবে আরও তথ্যবহুল হতে পারত!! ইস্টিশনে আপনাকে স্বাগতম… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :bow: :bow: :bow: :bow: :ফুল: :ফুল: :ফুল: :ফুল:

  2. বেশ কিছুদিন ধরে ছবিটা খুঁজছি।
    বেশ কিছুদিন ধরে ছবিটা খুঁজছি। কিন্তু পাচ্ছি না। আমি আবার টরেন্ট থেকে ডাউনলোড করার লোক না। থরে থরে সাজানো ডিভিডি দেখতেও আমার ভালো লাগে। শেষ কথা, রিভিউ বেশ ভালো হয়েছে। শুভেচ্ছা নিবেন।

  3. A guy can change anything.

    A guy can change anything. His face, his home, his family, his girlfriend, his religion,his God. But there’s one thing he can’t change. He can’t change his passion…

    চমৎকার এই মুভিটার চমৎকার এই কথাগুলো এখনও মনে আছে… :মাথানষ্ট: লেখাটা মোটামুটি ভালো হয়েছে, তবে ছবির আধিক্যের চেয়ে আপনার মতামত কিংবা চলচ্চিত্রটার বিশ্লেষণ আরেকটুঁ বেশি হলে পারফেক্ট হত… :ভাবতেছি: বেটার লাক নেক্সট টাইম… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :বুখেআয়বাবুল: ভালো লাগা রেখে গেলাম… :ফুল: :ফুল: :খুশি:

    1. খুব বেশি ভাল লাগা মুভি গুলো
      খুব বেশি ভাল লাগা মুভি গুলো দেখার পরই ২-৪ লাইনে নিজের অনুভূতি লিখে ফেলা পর্যন্তই দৌড়। চলচ্চিত্র বিশ্লেষণ করার মত এখনও হতে পারি নাই ভাই। ধন্যবাদ। 🙂

  4. জোশ মুভি। যারা দেখেননি তাদের
    জোশ মুভি। যারা দেখেননি তাদের দেখে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছি।
    রিভিউ খুব বেশি সুবিধার হয় নাই। তবে খারাপও হয় নাই। অন্তত আমার লেখা রিভিউ এর চাইতে বেটার হয়েছে। চালিয়ে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *