দালালি যখন ক্রিকেটেও

আজ থেকে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট পুরোপুরি বর্জন করলাম …
ব্যাক্তিগত ভাবে আমি ইন্ডিয়ান ক্রিকেট এবং ইন্ডিয়ান ক্রিকেটিয়ো অ্যাটিচিয়ুড প্রচন্ড অপছন্দ করতাম করি । বাংলাদেশের ক্রিকেটকে প্রথম থেকেই গোনায় ধরতো না । এমনকি তাদের বেশকিছু খেলোয়াড় এই ব্যাপারটা পরিষ্কার করেছে ইতোমধ্যে । উদাহারণ হিসেবে বিরেন্দর শেবাগের নাম আমাদের সবার কাছেই পরিচিত । বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম নিয়ে তার সেই কুখ্যাত বক্তব্যের পরপরই আমাদের টিম ভারতকে বাঁশ দিয়েছিল উপহার হিসেবে ।

আজ থেকে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট পুরোপুরি বর্জন করলাম …
ব্যাক্তিগত ভাবে আমি ইন্ডিয়ান ক্রিকেট এবং ইন্ডিয়ান ক্রিকেটিয়ো অ্যাটিচিয়ুড প্রচন্ড অপছন্দ করতাম করি । বাংলাদেশের ক্রিকেটকে প্রথম থেকেই গোনায় ধরতো না । এমনকি তাদের বেশকিছু খেলোয়াড় এই ব্যাপারটা পরিষ্কার করেছে ইতোমধ্যে । উদাহারণ হিসেবে বিরেন্দর শেবাগের নাম আমাদের সবার কাছেই পরিচিত । বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম নিয়ে তার সেই কুখ্যাত বক্তব্যের পরপরই আমাদের টিম ভারতকে বাঁশ দিয়েছিল উপহার হিসেবে ।
শেষ পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এই হঠকারিতা কোনভাবেই বরদাস্ত করার মত না । ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড যে একটা নোংরা সংগঠন এইবার তা দিবালোকের মত পরিষ্কার । ক্রিকেট খেলাকে আইপিএল, আইসিএল এরা ব্যাবসায় পরিণত করেছে এই ইন্ডিয়ান ক্রিকেট বোর্ড । বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলা অনেক পরিচ্ছন্ন হিসেবে বিশ্বে স্বীকৃত ।
আমাদের দেশ ক্রিকেট একটা পরাশক্তি হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছে । এ ব্যাপারে আমরা বরাবরই আশাবাদী ছিলাম এবং আছি । ক্রিকেট শুধু ইন্ডিয়া, অস্ট্রেলীয় বা ইংল্যান্ড এই বৃত্তের মধ্যে আবদ্ধ নয়, কখনো থাকতেও পারে না । এমনই যখন এক পরিস্থিতির উদয় হয়েছে তখন আমাদের নিজ নিজ দ্বায়বদ্ধতার জায়গা থেকে উচিত ইন্ডিয়ান ক্রিকেট বর্জন করা । আমাদের এক বৃহৎ আন্দোলনে নামতে হবে । কোন রকম দালালি আমরা দেখতে চাই না । বাংলাদেশ সরকার এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের উচিৎ এ ব্যাপারে কোন দাঁতভাঙা জবাব দেয়া । এবং বরাবরের মত এ ব্যাপারে কোন রাজনীতি আমরা চাই না ।
তবু আমি জানি এখানে আমাদের নোংরা রাজনীতিটা প্রবেশ করবেই । বোর্ডের একজন পরিচালকের কথায় সেরকমই আভাস পাওয়া গেছে ইতোমধ্যেই ।
কথাটা ছিল এমন-‘সামনে এশিয়া কাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই অবস্থায় সরাসরিঘ ভারতের বিপক্ষে যাওয়া উচিত হবে না আমাদের। এর চেয়ে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেওয়া ভালো ।’ কথাটা শুনে লজ্জিত হয়েছি । নিরবে আমার অন্তরাত্মা কেঁদেছে । এটা কেমন জবাব ??? যেখানে আমাদের স্বজাত্যবোধের বিসর্জন হচ্ছে সেখানে আমরা কিনা পড়ে আছি ‘টি২০ বিশ্বকাপ’ কিংবা বিতর্কিত এশিয়া কাপ নিয়ে !!! মানে এইটা তে তো পকেট ফোলানোর ব্যাপার আছে আরকি, তাই ।
আমরা অন্যকিছু চাই না, আমরা আমাদের প্রাপ্য সম্মান চাই । এর পক্ষে অবস্থান নেওয়া হবে আত্মহত্যার মতো। বিসিবির কোনোভাবেই উচিত হবে না এই প্রস্তাবকে সমর্থন করা। আমরা যদি টেস্টই না খেলব, তাহলে ৫০ বছর ধরে ক্রিকেটটাকে তিলে তিলে এভাবে গড়ে তোলা কেন!

আইসিসির সভাপতি আমাদের লোক, মোস্তফা কামাল । বোর্ডে আমাদের বেশি প্রভাব থাকার কথা । কিন্তু এই মানুষটার উপর বা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের উপর আমার বিন্দুমাত্র আশা-ভরসা নাই । এর একটি উদাহারণ আমরা দেখেছি এর আগে । পাকিস্তানে সহিংসতা চলন্ত অববস্থায় সেখানে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলকে পাঠানোর সেই অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত । পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে দেয়া প্রতিজ্ঞা এবং নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য মোস্তফা কামাল এই জঘন্য কাজটি করেছিলেন । যদিও শেষ পর্যন্ত আমাদের প্রতিবাদ এবং হাইকোর্ট রীট করে আমাদের বাঁচিয়েছিল ।
সাম্রাজ্যবাদীরা আমাদের ক্রিকেটকে ধ্বংস করার পাঁয়তারা শুরু করেছে । বলা হয় টেস্ট ক্রিকেটই হল আসল ক্রিকেট খেলা । অনেক বড় বড় সাবেক ক্রিকেটারই এই মন্তব্য করে গেছে । এমনকি ইন্ডিয়ার লিজেন্ড স্বয়ং সুনীল গাভাস্কারও এই কথা বলেছিল । আর তাই আমরা যদি টেস্ট ক্রিকেট না খেলি, আমাদের যদি টেস্ট ক্রিকেট থেকে আলাদা করে রাখাই হয়, তবে সেটা হবে আমাদের ক্রিকেট থেকেই আলাদা করে রাখা । তাদের যদি এতই সমস্যা তবে তারা ইন্ডিয়া, অস্ট্রেলিয়া আর ইংল্যান্ডকে আলাদা করে দিক । তারা তিন রাজাকার একসাথে খেলুক আর আমরা বাকি দলগুলো একসাথে খেলব ।
তাদের মনে রাখা উচিৎ আমাদের সাকিব-আল-হাসান দীর্ঘদিন থেকে টেস্ট ক্রিকেটের সেরা অলরাউন্ডার । এবং তারপরের দু’তিনজনের মধ্যে এই তিন দলের কেও নাই ।

আমরা সুযোগ কম পাই তাই আমাদের টেস্ট ক্রিকেটে একটু ঘাটতি রয়েছে । কিন্তু ঘাটতিটা পূরণ করতেই বা আর কতক্ষন ??? টেস্ট ক্রিকেটে আমাদের অনেক উজ্জ্বল একটা ভবিষ্যৎ রয়েছে । আমি তাই মনে করি । আমাদের টেস্টে হ্যাটট্রিক করা খেলোয়ার আছে, আছে এক ইনিংসে দুইশত রান পূর্ণ করা খেলোয়ার । আমাদের সাকিব আছে, তামিম আছে, আছে মুশফিক-মাশরাফি, রাজ্জাক-রুবেল । আমাদের সবই আছে । শুধু এখন আমাদের ঘরে বসে থাকার সময় নেই । একটুকু সময় নেই । এর দাঁতভাঙা জবাব দিতে হবে আমাদেরই ।

আমি জানি এই আন্দোলন শুরু হলে আমাদের দেশের ১৬ কোটি বাঙ্গালিই সাড়া দিবে । আমরা সবাই ক্রিকেটকে ভালবাসি, বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমকে ভালবাসি দেশমাতৃকার মতই । আমাদের ক্রিকেট টিমকে যারা অসম্মান দেখায় তারা আমাদের কাছে ঘৃণা ছাড়া আর কিছুই পাবে না । প্রশাসন যেন আর দালালি না করে । আসুন বাংলাদেশের ক্রিকেটকে বাঁচাতে দল, মত নির্বিশেষে আমরা সবাই এগিয়ে আসি ।
আমরাও ক্রিকেট খেলতে পারি এবং যেকোন দেশকে এখন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারি । এখন লড়াইয়ের সময় । কোন দলীয় লড়াই নয় । অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড আর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ের সময় ।
বাংলাদেশ ক্রিকেট দীর্ঘজীবী হোক
বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের জয় হোক

৬ thoughts on “দালালি যখন ক্রিকেটেও

  1. রেনডিয়ান জারজগুলার পু*কির
    রেনডিয়ান জারজগুলার পু*কির ভিতরে ডাবল রোলের পাহাড়ি মুলি বাঁশ ঢোকাতে মুঞ্চাতেছে… :মাথাঠুকি: :এখানেআয়:

  2. এই আন্দোলন শুরু হলে আমাদের

    এই আন্দোলন শুরু হলে আমাদের দেশের ১৬ কোটি বাঙ্গালিই সাড়া দিবে । আমরা সবাই ক্রিকেটকে ভালবাসি, বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমকে ভালবাসি দেশমাতৃকার মতই । আমাদের ক্রিকেট টিমকে যারা অসম্মান দেখায় তারা আমাদের কাছে ঘৃণা ছাড়া আর কিছুই পাবে না ।

    :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  3. আমরাও ক্রিকেট খেলতে পারি এবং

    আমরাও ক্রিকেট খেলতে পারি এবং যেকোন দেশকে এখন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারি । এখন লড়াইয়ের সময় । কোন দলীয় লড়াই নয় । অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড আর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ের সময় । –

    :তালিয়া: :থাম্বসআপ: :তালিয়া:

Leave a Reply to ডন মাইকেল কর্লিওনি Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *