আমাদের দেশের কর্পোরেট জব পোস্ট!

আমি খুব একটা লেখালেখি করি না। টেকনোলজির বিভিন্ন ব্লগ আর ফোরামেই ঘুরাফেরা করি।
এই ইস্টিশনে খুব বেশিদিন আমার আনাগোনা নয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার কাছের বন্ধুর লেখা পড়েই আসলে আমার এখানে আসা।
যেহেতু খুব বেশি লেখার অভ্যাস নেই তাই আমার লেখায় খুব বেশি মজা পাবেন কি’না জানি না। বাংলার অতি কঠিন শব্দ আসলে আমার আয়ত্তে আসতে চায় না। তাই সহজ সরল ভাষায় ইস্টিশনে আমার নিজের প্রথম লেখাটা আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম।
লেখাটা সম্পূর্ণ আমার নিজের ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে। আসা করি বানানজনিত ভুলগুলো ক্ষমা করে আমাকে ধরিয়ে দিবেন।


আমি খুব একটা লেখালেখি করি না। টেকনোলজির বিভিন্ন ব্লগ আর ফোরামেই ঘুরাফেরা করি।
এই ইস্টিশনে খুব বেশিদিন আমার আনাগোনা নয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার কাছের বন্ধুর লেখা পড়েই আসলে আমার এখানে আসা।
যেহেতু খুব বেশি লেখার অভ্যাস নেই তাই আমার লেখায় খুব বেশি মজা পাবেন কি’না জানি না। বাংলার অতি কঠিন শব্দ আসলে আমার আয়ত্তে আসতে চায় না। তাই সহজ সরল ভাষায় ইস্টিশনে আমার নিজের প্রথম লেখাটা আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম।
লেখাটা সম্পূর্ণ আমার নিজের ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে। আসা করি বানানজনিত ভুলগুলো ক্ষমা করে আমাকে ধরিয়ে দিবেন।

প্রথমেই বলে নেই আমি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স বিবিএ ‘র ছাত্র। আমাদের ব্যাচের প্রায় সবারই গ্রাজুয়েশান শেষ। বাংলাদেশে যে বড় বড় জব পোর্টাল গুলো আছে যেমন বিডিজবস,প্রথমআলোজবস সহ আরও অনেক, সেখানে হাজারো কোম্পানির জব সার্কুলার থাকে কিন্তু একজন গ্র্যাজুয়েট ছেলের জন্য আসলে কতটুকু ? গত কয়েক মাসে আমার কাছের এক বন্ধুর কাছ থেকে এব্যাপারে খুব ভালো একটা অভিজ্ঞতা পেলাম।

ম্যাক্সিমাম কোম্পানিগুলো তাদের মিনিমাম রিকুয়ারমেন্ট হিসেবে বিবিএ/এমবিএ লিখে রাখে। কিন্তু এক্ষেত্রে প্রধাণত এমবিএ সার্টিফিকেটধারীরাই বেশি প্রেফার পেয়ে থাকে।

রিকুয়ারমেন্টগুলা যদি ভালোভাবে খেয়াল করি তাহলে দেখি যে,
যদি কোনও পদ থাকে ‘মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ’ এর তাহলে সেই কোম্পানিতে জয়েনের আগেই ওই কোম্পানির প্রোডাক্ট/সার্ভিসের উপর পূর্ব-অভিজ্ঞতা থাকা লাগবে।

আমার প্রশ্ন হলঃ এটা কেন ?
আমরা যখন মার্কেটিং পড়ি তখন আমাদের আসলে মার্কেটিঙের পুরো প্রসেসটা বুঝানো হয়। প্রোডাক্ট/সার্ভিস ভেদে একেক কোম্পানির স্ট্রেটেজি একেকরকম হতেই পারে। ওই কোম্পানির হয়ে কাজ না করে বা ওইকোম্পানি থেকে কোনও রকম ট্রেনিং না নিয়ে কিভাবে ওগুলো শিখবো ? নাকি আমরা কি ওগুলা স্বপ্নে পাবো ???

আচ্ছা এই কোম্পানিগুলোর রিক্রুটমেন্টে যারা থাকেন উনারা কি ভাবেন যে সবাই শুধু উনাদের কোম্পানিতে কাজ করার জন্য আলাদা ভাবে পড়াশুনা করে এসেছে ? অবশ্যই ইন্টার্ভিউয়ের সময় কোম্পানি সম্পর্কে আর কাজের ব্যাপারে বেসিক ধারণা নেয়া দরকার কিন্তু জব পোস্টেই যদি এভাবে কিছু ধরাবাঁধা নিয়ম করে ফেলেন তাহলে ফ্রেশাররা কই যাবে ? নাকি যারা এই নিয়ম গুলো করে উনারা কখনই ফ্রেশার ছিলেন না। জন্মের পর থেকেই এক্সপার্ট!!!???

চাকরির অভিজ্ঞতা আর প্রাথীর বয়সে চোখ পরলে তো আরও খারাপ লাগে।
ধরেন বলা আছে যে, আবেদনকারীর বয়স ম্যাক্সিমাম ২৫ বছর কিন্তু সেইম কাজে অভিজ্ঞতা মিনিমাম ২/৩ বছর হতে হবে।
আরে ভাই ২/৩ বছর আগে তো সে ফ্রেশার ছিল, তাকে কোন কোম্পানি অভিজ্ঞতার জন্য চাকরি দিবে ? সবাই তো আপনার কোম্পানির মতই অভিজ্ঞ লোক চায়।

মাঝে মাঝে মনে হয় আমাদের পড়াশুনার কোর্সকে আরও অনেক ভাঙ্গানো দরকার। যেমন আমরা বিবিএ করি মার্কেটিং এ। এই মার্কেটিং এর আবার ভাগ করা উচিৎ, মার্কেটিং ইন কেমিক্যাল, মার্কেটিং ইন গার্মেন্টস, মার্কেটিং ইন কখগঘ… কারণ সব কোম্পানি চায় ওর কোম্পানির প্রোডাক্টের জন্য বেস্ট মার্কেটার।

তাহলে কি এখনকার কোম্পানি তাদের HRM না রেখে সরাসরি কাজের সবচেয়ে উপযুক্ত লোক খুঁজে বেড়ায় ? একজন HR অফিসার যদি থাকে তাহলে আপনারা জব পোস্টের সময় এত্ত ত্যানা পেঁচান কেন ? ইন্টারভিউ বা প্রাথমিক ট্রেইনিং এর সময় এগুলো বুঝে নিন।

কর্পোরেট মার্কেটে জব কম্পিটিশান বাড়ছে আর সেই সাথে কোম্পানিগুলোতে যারা নিয়োগদাতা তাদের ডিম্যান্ডও। অনেক জব পোস্টে দেখা যায় অমুক ট্রেইনিং থাকতে হবে, তমুক ট্রেইনিং থাকতে হবে… এইটা সেইটা আরও কত কি। মনে হয় কোম্পানিতে জব না বরং কোম্পানি পুরোটাই লিখে দিবে :/

তাহলে আমাদের জীবনে শুধু কলেজ,ভার্সিটির লেখাপড়া পর্যন্তই ইনভেস্টমেন্ট শেষ নয় ? সেই সাথে দেশের কিছু দামি দামি ইন্সটিটিউট থেকে ট্রেইনিং ও করতে হবে ? এত্ত টাকা দিয়ে লেখাপড়া আর পরে আবার এসব। এরপর এসব করার পর জব হলে আমাদের ইনকাম আসবে কত ? কত টাকা দিবে আমাদের মাসিক বেতন ?

যদি বিবিএ কমপ্লিট করা একটা মানুষের বেতন ধরা হয় প্রাথমিকভাবে ২০,০০০ টাকা । যদি এরকম কোনও চাকরি কপালে জুটে ; তাহলে কি ধরে নিবো ওই মানুষ সারাদিনে টোটাল ১০ ঘণ্টা (৮ ঘণ্টা অফিস আর যাওয়া-আসা সহ) টাইম দিয়ে আর মাসে ২৫ দিন অফিস ধরলে মাত্র ৮০ টাকা ঘণ্টা বেতন পাবে ? মানে এত্তকষ্ট করে পড়ালেখা করার পর ঘণ্টা প্রতি এই সামান্য টাকা দিয়ে কেউ একজন বিবিএ করা ছেলেকে নিজের জন্য খাঁটাতে পারবে ? এত্ত নিচে পরে গেলাম আমরা বিজনেস স্টাডিজ গ্রুপের স্টুডেন্টরা ?

এইতো হল অলরেডি বিবিএ কমপ্লিট করাদের কথা। আমরা যারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স-বিবিএ করছি আমাদের ফিউচার জব সেক্টর কেমন হবে ? আমাদের রেজাল্ট যাই হোক না কেন কিছু সবক্ষেত্রেই আমরা বাকিদের থেকে অনেক পিছিয়ে। ভালো ভালো জবের পোস্টে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সাথে কিছু অনেক রিচ হাই লেভেলের প্রাইভেট ভার্সিটির নাম উল্লেখ থাকে। কিন্তু আমাদের… ???

অনেকদিন ধরে চিন্তা করার এই কথা গুলো। আমি এখনও এসব ফেস করি নাই। কিন্তু আমার যেসব বন্ধুরা কিছুদিন ধরেই এগুলো দেখে যাচ্ছে তাদের এই প্রবলেম গুলো খুব কাছ থেকে দেখছি।
হতে পারে আমার কিছু কথা ভুল। হতে পারে পুরাটাই ভুল। কিন্তু এগুলা আমাদের মত ভুক্তভুগিদের কথা।

এত্ত কষ্ট করে লেখাটা পরার জন্য ধন্যবাদ। গঠনমূলক সমালোচনা আর উপদেশ কাম্য 🙂

২৫ thoughts on “আমাদের দেশের কর্পোরেট জব পোস্ট!

  1. তাহলে কি ধরে নিবো ওই মানুষ

    তাহলে কি ধরে নিবো ওই মানুষ সারাদিনে টোটাল ১০ ঘণ্টা (৮ ঘণ্টা অফিস আর যাওয়া-আসা সহ) টাইম দিয়ে আর মাসে ২৫ দিন অফিস ধরলে মাত্র ৮০ টাকা ঘণ্টা বেতন পাবে ?

    শুরুটা কিন্তু সব সেক্টরেই এমন, তাই মন খারাপ করার কিছু নেই । :আমারকুনোদোষনাই:

    1. প্রথমের আপনাকে অনেক অনেক
      প্রথমের আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আমার প্রথম লেখায় প্রথম কমেন্টটি করার জন্য 😀

      আসলে আমাদের শুরুটা এত্ত মর্মান্তিক কেন হবে এটা ভাবতেই কষ্ট লাগে :মনখারাপ:
      মন খারাপ করে লাভ নেই জানি কিন্তু নিজের ভেতরের আগুনটা একটু প্রকাশ করলাম এই আর কি…

  2. বাহ বেশ ভালো লিখেন তো আপনি…
    বাহ বেশ ভালো লিখেন তো আপনি… ভালো লাগলো লেখাটা। ইস্টিশনে স্বাগতম। :ফুল: :ফুল: :ফুল:

    বেশীর ভাগ পেশাতেই শুরুতে একটু ফাইট দিতে হয়। তবে সিনিওর হিসেবে আমার পরামর্শ থাকবে …………………………………………………………………………..
    ……………………………………………………………………………
    ………………………………………………………………………….
    ………………………………………………………………………….
    …………………………………………………………………………..
    …………………………………………………………………………..
    …………………………………………………………………………..
    …………………………………………………………………………..
    ………………………………………………………………………….
    ………..লেগে থাকুন। 😀

    1. বেশীর ভাগ পেশাতেই শুরুতে একটু

      বেশীর ভাগ পেশাতেই শুরুতে একটু ফাইট দিতে হয়। তবে সিনিওর হিসেবে আমার পরামর্শ থাকবে ………………………………………………………………………….. …………………………………………………………………………… …………………………………………………………………………. …………………………………………………………………………. ………………………………………………………………………….. ………………………………………………………………………….. ………………………………………………………………………….. ………………………………………………………………………….. …………………………………………………………………………. ………..লেগে থাকুন।

      :বুখেআয়বাবুল:

    2. ধন্যবাদ আতিক সাহেব
      তবে

      ধন্যবাদ আতিক সাহেব 😀

      তবে আমার কথাটা ছিল চাকুরী পাবার আগেই যে রিকুয়ারমেন্ট চাওয়া হয় সেটা নিয়ে।
      যদিও চাকুরী নিয়ে আমার তেমন মাথাবেথা নেই। সাড়ে ৩ বছর চাকুরী করেছি, চাকুরীর প্রতি একটা Negative Belief আছে।
      অনেকেই আবার চাকুরী করেও সফল, তবে বেশির ভাগই Head Shacking Bull এ পরিনত হয়।
      যাইহোক, জীবনে আর চাকুরী নামক তথাকথিত সোনার হরিণ চাই না।
      তবে সিনিয়র হিসেবে আপনি যে লেগে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন সেটা মানতেই হবে :থাম্বসআপ:

  3. তুই যে আমারে এইরাম চমকায়া
    তুই যে আমারে এইরাম চমকায়া দিবি, আমি স্বপ্নেও ভাবি নাই। বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ফ্রিলান্সার আসিফ সাব হঠাৎ ইষ্টিশনে একটা নিক খুইলা প্রানে প্রান মেলাবার ইচ্ছা পোষণ করবেন, এইটা সত্যিই আমার ভাবনায় ছিল না। বুকে আয় আগে… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

    তোর লেখাটা খুব চমৎকার হইছে দোস্ত… :তালিয়া: এরকম সুচিন্তিত আরও লেখা চাই তোর কাছ থেকে… :অপেক্ষায়আছি: আপাতত কর্লিওনি পরিবারের পক্ষ থেকে ইষ্টিশনে স্বাগতম… :ফুল: :ফুল: :ফুল: :গোলাপ: :বুখেআয়বাবুল:

    1. দোস্ত তুমি কিন্তু অনেক বেশি
      দোস্ত তুমি কিন্তু অনেক বেশি কইয়া ফালাইসো। আমি ফ্রিলেন্সার কিন্তু খুবী ছোটখাট। আর তোর কথাতেই আসলে ইস্টিশনের টিকিট কাটা যেটা প্রথম প্যারাতেই বলেছি 😉

      তোর কাছ থেকে তারিফ পাওয়া আসলেই অনেক বড় ব্যাপার ডন :নৃত্য:
      সাহস দেয়ার জন্য ধন্যবাদ দিমুনা, বন্ধু বলে কথা :ভালুবাশি:

  4. প্রাইভেট সেক্টরে সব জায়গায়
    প্রাইভেট সেক্টরে সব জায়গায় এমন অবস্থা। শুরুতে ২০০০০ অনেক ভাল। এর চেয়ে কমও আছে। তবে হ্যাঁ, ভাল কাজ দেখাতে পারলে উন্নতি অবধারিত।
    যেখানে যেটা নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে, সেখানে সে ভাবেই তো চলতে হবে। চাকরি ছাড়া চলা সম্ভব না, তাই যেভাবে হোক চাকরি লাগবেই।

    1. শুরুতে ২০,০০০ আমি কাল্পনিক
      শুরুতে ২০,০০০ আমি কাল্পনিক ধরেছি। যেখানে চাকরিই পাওয়া যাচ্ছেনা ঘুস আর স্বজনপ্রীতি ছাড়া সেখানে ভালো কাজ করে পরবর্তীতে উন্নতির কথা অনেক পরের কথা।

      “যেখানে যেটা নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে, সেখানে সে ভাবেই তো চলতে হবে। চাকরি ছাড়া চলা সম্ভব না, তাই যেভাবে হোক চাকরি লাগবেই।”

      একটা ব্যাপার জানেন, চাকুরী নিয়ে আমাদের এরকম চিন্তাভাবনাই আসলে চেঞ্জ করা দরকার।
      নিয়ম আছে কিন্তু আমরা এই নিয়ম পরিবর্তন করবো। উদ্যোগী মনোভাব আর ঝুঁকি নেয়ার মানুষিকটা তৈরি করবো নিজেদের মধ্যে।
      আমাদের জেনারেশন অনেক কিছুই চেঞ্জ করবে। স্কুলের ছোট ছোট ভাই-বোনেরা এখন বাংলা রচনা পড়ে ‘বেকারত্ব আমাদের অভিশাপ ‘। এই বিষয়টাই চেঞ্জ হয়ে যাবে। হয়তো অনেক সময় লাগবে, অনেক কষ্ট হবে কিন্তু এটা হবেই। আমার বিশ্বাস। ইনশাআল্লাহ্‌ আমরা সবাই মিলে এটা সম্ভব করবোই করবো।

      1. যেখানে চাকরিই পাওয়া যাচ্ছেনা

        যেখানে চাকরিই পাওয়া যাচ্ছেনা ঘুস আর স্বজনপ্রীতি ছাড়া সেখানে ভালো কাজ করে পরবর্তীতে উন্নতির কথা অনেক পরের কথা –

        দ্বিমত।
        অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। না কোন স্বজনপ্রীতি লেগেছে না কোন ঘুষ।

        উদ্যোগী মনোভাব আর ঝুঁকি নেয়ার মানুষিকটা তৈরি করবো নিজেদের মধ্যে। –

        সহমত।

  5. অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। না কোন

    অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। না কোন স্বজনপ্রীতি লেগেছে না কোন ঘুষ।

    আপনি আলাদা আর ভাগ্যবান। আপনার এই অভিজ্ঞতাকে উদাহরণ হিসেবে মানতে পারছিনা।
    ধন্যবাদ!

  6. শুরুতে ২০০০০ এখন সোনার হরিণ
    শুরুতে ২০০০০ এখন সোনার হরিণ কারণ অভিজ্ঞতা থাকলেও আজকাল মামা খালার জোর লাগে না হয় সোনার হরিণ ধরা দেই না ।। আর একটি কথা লেখাপড়া করেও বেকার হয়ে আছে অনেকেই সুতরাং শুধুমাত্র লেখাপড়া দিয়ে কিচ্ছু হয়না এটা চিরন্তন সত্য ……

    1. যথোপযুক্ত কাজের জন্য লেখাপড়ার
      যথোপযুক্ত কাজের জন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি অভিজ্ঞতা দরকার। কিন্তু এই অভিজ্ঞতা কে দিবে ?
      যেখানেই যাওয়া হয় সেখানেই অভিজ্ঞতা নিয়ে প্রশ্ন। তাহলে যারা একেবারে ফ্রেশার তারা কি করবে ?

      শুধুমাত্র লেখাপড়া দিয়ে কিচ্ছু হয়না এটা চিরন্তন সত্য ……

      সহমত

      1. একটা ব্যাপার খেয়াল কইরেন
        একটা ব্যাপার খেয়াল কইরেন ব্যাংক কিংবা কোন বড় প্রতিষ্টানে চাকরীর কোন এ্যাড দেখলে দেখবেন ওখানে লিখা থাকে ৫ অথবা তারও বেশি অভিজ্ঞতা দরকার।। আমার প্রশ্ন পোলাপাইন কি অভিজ্ঞতা মায়ের পেট থেকে শিখে আসবে নাকি ?? ইন্টারনি করতে দেওয়া হয় ৩ থেকে ৪ মাস তাহলে ি ৩ মাসের মধ্য কি সব কাজ শিখে ফেলা যায় ?? এক্ষেত্রে অবশ্যই ফ্রেশ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত ।। আমার পরিচিত এক বড় ভাই চিটাগাং ভার্সিটি এমবিএ করে আজ বেকার হয়ে বসে আছেন চাকরী হচ্ছেনা একটাই কারণ অভিজ্ঞতা নাই আর একজনের চাকরী হয়ে গেছে ব্যাংকে তার অভিজ্ঞতা আছে কিন্তু শুধুমাত্র গেজুয়েট !!

  7. যেহেতু আমি চাকরি-বাকরি থেকে
    যেহেতু আমি চাকরি-বাকরি থেকে কয়েক ক্রোশ দূরে তাই এই বিষয়ে মন্তব্য করতে পারছি নাহ্।

    …..যাই হোক ইস্টিশনে স্বাগতম। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *