টেলিছবি “নিমন্ত্রণ” : বাংলা ব্লগের সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হতে যাচ্ছে নতুন পালক

২০১২ সালের কথা। নাগরিক ব্লগে একটা গল্প লিখেছিলাম “শেষ নিমন্ত্রণ” নামে। গল্পটা ব্লগে প্রকাশ হওয়ার মাসখানেক পর একদিন সন্ধ্যায় মোবাইলে একটা ফোন আসল। ফোনদাতা নিজেকে পরিচয় দিলেন নূর নবী দুলাল নামে। তিনি একজন সৌখিন চলচ্চিত্র নির্মাতা। আমার গল্পটা থেকে টেলিছবি বানাতে ইচ্ছুক।



২০১২ সালের কথা। নাগরিক ব্লগে একটা গল্প লিখেছিলাম “শেষ নিমন্ত্রণ” নামে। গল্পটা ব্লগে প্রকাশ হওয়ার মাসখানেক পর একদিন সন্ধ্যায় মোবাইলে একটা ফোন আসল। ফোনদাতা নিজেকে পরিচয় দিলেন নূর নবী দুলাল নামে। তিনি একজন সৌখিন চলচ্চিত্র নির্মাতা। আমার গল্পটা থেকে টেলিছবি বানাতে ইচ্ছুক। আমার আপত্তি আছে কি না জানতে চাইলেন। এমন প্রস্তাবে আপত্তি করবার প্রশ্নই আসে না। সানন্দে অনুমতি দিলাম। সেই থেকে অপেক্ষা করছিলাম কবে শুটিং শুরু হবে। বিভিন্ন ঝামেলার কারণে শুটিং বিলম্বিত হচ্ছিল। অবশেষে সপ্তাহখানেক আগে আবারও দুলাল ভাই ফোন দিলেন। জানালেন সব তৈরি। ২৪-২৬ অক্টোবর এই তিনদিন শুটিং হবে চট্টগ্রামে। শুটিং দেখার নিমন্ত্রণ জানালেন। অফিসে প্রচণ্ড ব্যস্ততা চলছে। তারপরেও একদিন ছুটি ম্যানেজ করে ছুটলাম চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে।

এর আগে কখনও একটা শুটিং ইউনিট এর সাথে থেকে শুটিং দেখার সুযোগ হয়ে উঠে নি। এইবার সেই সুযোগ পেয়ে ভালোভাবেই কাজে লাগিয়েছি। এবং অসাধারণ কিছু স্মৃতি নিয়ে ঢাকায় ফিরেছি। আপনাদের সাথে সেই অভিজ্ঞতা বিনিময়ের জন্যই লিখতে বসলাম।

“নিমন্ত্রণ” এর কাহিনী সংক্ষেপঃ

নন্দিনী ভালোবাসে রবীন্দ্রনাথকে এবং ভালোবাসে তার স্বামী শামসকেও। কিন্তু শামস মানসিকভাবে সুস্থ নয়। সহ্যের শেষ সীমায় পৌঁছে নন্দিনী আশ্রয় নেয় সাইক্রিয়াটিস্ট নওশাদের কাছে। নন্দিনীর সাথে বিপত্নীক নওশাদের গড়ে ওঠে এক উদ্দেশ্যপূর্ন সম্পর্ক। ওদিকে, শামস কি ধরে ফেলে নন্দিনীর এই নতুন সম্পর্কের কথা?

সায়েন্টিফিক সেমিনার শেষে দেশে ফিরে নওশাদ যাচ্ছে নন্দিনীর নিমন্ত্রন রক্ষা করতে। কিন্তু নন্দিনীর বাড়ির গলির অন্ধকারময়তা থেকে শুরু করে, রহস্য আবৃতা নারী- নন্দিনীর ফার্মের দারোয়ান- নওশাদকে দূবর্ল করে ফেলে আতঙ্কে। এই আতঙ্ক চূড়ান্ত ভয়ে রূপ নেয়, যখন নওশাদ নন্দিনীর ঘরে নন্দিনীর বদলে মুখোমুখি হয় শামসের। শামসের রহস্যের সাথে প্রশ্ন হিসেবে যোগ হয় শামসের জোরালো দাবী- তবে কি নন্দিনীও পাগল?

নওশাদের মানসিক দ্বন্দ্ব দর্শকের দিকে ছুঁড়ে দেয় চূড়ান্ত প্রশ্ন- এটি কি আসলে নিমন্ত্রন নাকি নিপুণ কোন ফাঁদ???

টেলিছবিতে অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ, সানজিদা প্রীতি, নাসির উদ্দিন খান, আবুল হাসনাত প্রমুখ। টেলিছবির চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন তানভীর পিয়াল এবং পরিচালনা করেছেন নূর নবী দুলাল। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান মিডিয়া কারিগর এর ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে টেলিছবিটি। গতানুগতিক কাহিনী এবং লোকেশনের জালে যখন বাংলা নাটক এবং টেলিছবি আবদ্ধ হয়ে পড়ছে, তখন দর্শকদের বৈচিত্র্য দেওয়ার জন্যই এগিয়ে এসেছে মিডিয়া কারিগর ভিন্নধর্মী গল্প দ্বারা নির্মিত টেলিছবি নিমন্ত্রণ নিয়ে।

ইষ্টিশনের যাত্রিদের জন্য শুটিং চলাকালীন তোলা কিছু ছবি শেয়ার করার লোভ সামলাতে পারছি না। প্রথমেই পরিচালক সহ টিম মেম্বারদের ছবি।

সবাই প্রস্তুত? রেডি থ্রি, টু, ওয়ান; অ্যাকশন –

লাইটিং বেশ ভালই ছিল।

মনিটরে মনোযোগী পরিচালক।

একই ফ্রেমে বন্দী ৪ জন (বাম থেকে ডানে) সহকারী পরিচালক ডাঃ আতিকুল হক, পরিচালক নূর নবী দুলাল, কাহিনীকার ফাহমিদুল হান্নান রূপক এবং চিত্রনাট্যকার তানভীর পিয়াল

শুটিং এর ব্যস্ততার ফাঁকেই খাওয়ার কাজটা সেরে নিচ্ছে সবাই।

নওশাদ চরিত্রে শতাব্দী ওয়াদুদ এর অভিনয় ছিল বরাবরের মতই দুর্দান্ত। নতুন হলেও শামস চরিত্র নিয়ে তাঁর সাথে পাল্লা দিয়ে অভিনয় করেছেন নাসির উদ্দিন খান। বাংলাদেশী মিডিয়া খুব ভালোমাপের একজন অভিনেতা পেতে যাচ্ছে সেটা নিশ্চিত করেই বলা যায়। সানজিদা প্রীতি তাঁর সু-অভিনয় দিয়ে খুব চমৎকার ভাবেই নন্দিনী চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে পেরেছেন। চরিত্রের দাবী অনুযায়ী বিভিন্ন সময়ে তাঁর মুখের অভিব্যক্তি ছিল একদম পারফেক্ট।

এতক্ষণ আপনারা শুটিং ইউনিটের ছবি দেখলেন। এইবার আপনাদের জন্য রয়েছে টেলিছবির বিশেষ মুহূর্তের স্পেশাল কিছু ছবি।

মূল গল্পে চরিত্র ছিল তিনটি। গল্প থেকে টেলিছবিতে রূপান্তরের জন্য কয়েকটি চরিত্র বাড়ানো হয়েছে এবং কাহিনীতে কিছু টুইস্ট আনা হয়েছে। তাই নিশ্চিতভাবেই বলা যায় পুরোটা সময় জুড়ে দর্শক একটা সাসপেন্সের চাদরে আবৃত থাকবেন এবং শেষ দৃশ্যের চমকে বলতে বাধ্য হবেন “এটা কি হল?”

আর কিছু বলতে চাইছি না। বাকিটা না হয় পর্দাতেই দেখলেন। টেলিছবির শুটিং প্রায় ৮০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে। আগামী মাসেই বাকি কাজটুকু শেষ করে পোস্ট প্রোডাকশনে যাবেন পরিচালক। টেলিছবির বিভিন্ন আপডেট পেতে চাইলে আপনারা চোখ রাখতে পারেন নিমন্ত্রণ এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ এ। ‘নিমন্ত্রণ’র অনলাইন পার্টনার ‘ইস্টিশন ব্লগ‘।

নিমন্ত্রণ শেষ পর্যন্ত যদি সম্প্রচার হয় তাহলে সেটা হবে অনলাইনে লেখালেখির জয়। এ তো কেবল শুরু। বাংলা ব্লগ জগত অন্তত গল্পের ক্ষেত্রে যে একটা পর্যায়ে পৌঁছাতে পেরেছে সেটা অস্বীকার করবার কোন উপায় নেই। ব্লগগুলোতে তাই এখন গল্পের জয় জয়কার। সেদিন আর দূরে নয় যেদিন পরিচালকেরা ভালো কাহিনীর জন্য ব্লগগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়বে। আমি সেই দিনের অপেক্ষায় প্রহর গুনছি।

৫৪ thoughts on “টেলিছবি “নিমন্ত্রণ” : বাংলা ব্লগের সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হতে যাচ্ছে নতুন পালক

  1. পোস্টের জন্য টেলিছবি
    পোস্টের জন্য টেলিছবি ‘নিমন্ত্রণ’র গল্পকারকে ধন্যবাদ। অভিনেতা, অভিনেত্রীসহ পুরো টিমের প্রতি কৃতজ্ঞতা সহযোগীতা করার জন্য। চিত্রনাট্যকার তানভীর পিয়ালের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল হচ্ছে টেলিছবি ‘নিমন্ত্রণ’। প্রধান সহকারী পরিচালক শিবলী’র প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। সর্বপরি, অনলাইন পার্টনার হিসাবে ইস্টিশন ব্লগ সম্মতি প্রকাশ করায় ব্লগ কর্তৃপক্ষের প্রতি টিমের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

    1. শুটিং দেখার নিমন্ত্রণ জানাবার
      শুটিং দেখার নিমন্ত্রণ জানাবার জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ দুলাল ভাই। অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে আছি টেলিছবিটি টিভির পর্দায় দেখার জন্যে।

  2. আশা করি সেইরম হতে যাচ্ছে
    আশা করি সেইরম হতে যাচ্ছে টেলিফিল্মটা। আগাম শুভেচ্ছা রইল​। 😀 😀 :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ:

  3. গল্পকার, পরিচালক, সহ-পরিচালক,
    গল্পকার, পরিচালক, সহ-পরিচালক, প্রয়োজক সহ সকল কলাকুশলী কে জানাই অভিনন্দন। আসলেই এই টেলিছবি বাংলাব্লগের মুকুটে নতুন পালক যোগ করতে যাচ্ছে। ব্লগের পরিচিতির মাধ্যমে তৈরি হল এক নতুন সিনেমা। ব্লগ শুধু তার অনলাইন আলোচনায় আটকে না থেকে ছড়িয়ে পড়ল সমাজে। অনলাইনের পাশপাশি দেশের সুস্থ ধারার সংস্কৃতিক আন্দোলনের হাত কে শক্তিশালী করবে।

    শুভ হোক ইস্টিশনের পথ চলা। :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ:

    1. আসলেই তাই। ব্লগে আসার আগে
      আসলেই তাই। ব্লগে আসার আগে কাউকেই চিনতাম না অথচ সবাই মিলে কি না একটা টেলিছবি নামিয়ে ফেলতে যাচ্ছি। মাঝে মাঝে অবিশ্বাস্য মনে হয়। কিন্তু এটাই বাস্তব। এ তো কেবল শুরু। দিন এভাবেই আমরা বদলাবো। যারা বলে ব্লগ দিয়ে কিচ্ছু হয় না তাঁদের ঘোর ভাঙতে আশা করছি দেরী হবে না।

  4. টেলিফিল্ম দেখার অপেক্ষায়
    টেলিফিল্ম দেখার অপেক্ষায়

    সেইসাথে আরেকটি বিষয় — পরিচালকরা অনেকেই ব্লগ , ফেবু পেইজ থেকে গল্পের আইডিয়া নিচ্ছে । কিন্তু আমি সন্দিহান কতজন কপিরাইট বিষয়টা মেইন্টেন করে !!

    লেখক সম্মান যেন বলবত থাকে যে কোন মূল্যে

    1. এটা ঠিক যে অনেকেই কপি করে।
      এটা ঠিক যে অনেকেই কপি করে। সেটা তাঁদের নিজেদের বিবেকের উপরই ছেড়ে দিন না। চোর তো নিজে জানে যে সে চোর।

  5. পোস্টের জন্য ধন্যবাদ। আমি
    পোস্টের জন্য ধন্যবাদ। আমি ছিলাম পুরা টীমের মধ্যে সবচেয়ে বাদাইম্মা পাবলিক।
    অধীর আগ্রহে দেখার অপেক্ষায় আছি। শতাব্দী ওয়াদুদ এবং প্রীতির অভিনয় ছিল দেখার মতো। মানুষ হিসেবেও শতাব্দী অসাধারণ। আর বাংলা মিডিয়া জগত নিঃসন্দেহে এক নতুন প্রতিভা পেতে যাচ্ছে। নাসির উদ্দিন খান ভাই। উনি কিন্তু ইস্টিশনের ব্লগার।

    নুর নবী দুলাল ভাইয়ের ডেডিকেশন দেখে মুগ্ধ হয়েছি। আমাদের মিডিয়া জগত আরেকজন পরিশ্রমী এবং মেধাবী নির্মাতা পেতে যাচ্ছে এটা আমি লিখে দিলাম।

    1. মানুষ হিসাবে শতাব্দী দা আসলেও
      মানুষ হিসাবে শতাব্দী দা আসলেও অসাধারণ। এত বড় মাপের অভিনেতা অথচ কোন অহংকার নেই। নাসির ভাই এর অভিনয় দেখে আমি মুগ্ধ। আর প্রীতির expression এর কথা আর কি বলব। নন্দিনী হিসাবে তাঁর থেকে ভাল অভিনয় মনে হয় আর কেউ করতে পারতেন না। দুলাল ভাই এর ডেডিকেশন নিয়েও নতুন কিছু বলার নেই। আর নিজেরে বাদাইম্মা বলছেন? ৩ রাত না ঘুমিয়ে যেই পরিশ্রমটা করলেন সেইটা কি মিয়া বাদাইম্মারা করতে পারে নাকি? এত বিনয় না দেখালেও চলবে আতিক ভাই।

  6. এই টেলিছবি নিয়ে নুর নবী দুলাল
    এই টেলিছবি নিয়ে নুর নবী দুলাল ভাইয়ের পোস্ট পড়েছিলাম মুভি লাভারজ পোলাপাইন গ্রুপে। তখন থেকেই অগ্রহে ছিলাম কবে দেখতে পাবো তা নিয়ে।
    এখন এই পোস্ট পড়ে ইস্টিশনের সম্পৃক্ততা দেখে আগ্রহ চরমে উঠলো। :গোলাপ: :ফুল: :গোলাপ:

    1. আমিও দেখেছি পোস্টটা… পড়েই
      আমিও দেখেছি পোস্টটা… পড়েই টেলিছবিটা দেখার আগ্রহ চরমে উঠেছে… কবে দেখতে পাব? :চিন্তায়আছি: :চিন্তায়আছি:

  7. আশাকরি, চমৎকার একখান কাজ হবে।
    আশাকরি, চমৎকার একখান কাজ হবে। :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: অপেক্ষায় থাকলাম…
    কবে কোথায় রিলিজ দিবেন জানাবেন? আর ব্লগ পার্টনার ইস্টশনের যাত্রীদের জন্য কি আলাদা একটা প্রিমিয়ার-শো অথবা স্পেশাল কোন প্রদর্শনী আয়োজন করা যায় না?

    1. ব্লগ পার্টনার ইস্টশনের

      ব্লগ পার্টনার ইস্টশনের যাত্রীদের জন্য কি আলাদা একটা প্রিমিয়ার-শো অথবা স্পেশাল কোন প্রদর্শনী আয়োজন করা যায় না?

      ইষ্টিশন মাস্টার প্রস্তাবটা ভেবে দেখতে পারেন। :অপেক্ষায়আছি:

  8. প্রীতির অভিনয় খুব এনজয় করি।
    প্রীতির অভিনয় খুব এনজয় করি। প্রীতিরে দেখার জন্য এই টেলিফ্লিম দেখতে হবে। কবে এবং কোন চ্যানেলে অনএয়ার হবে? তাড়তাড়ি জানান।

    1. চ্যানেল এখনও ঠিক হয় নি। সময়মত
      চ্যানেল এখনও ঠিক হয় নি। সময়মত জানতে পারবেন। বিভিন্ন আপডেট পেতে চাইলে “নিমন্ত্রণ” এর ফেসবুক পেইজে ভিজিট করতে পারেন।

  9. আমার নন্দিনীকে নিয়ে লেখা
    আমার নন্দিনীকে নিয়ে লেখা চমৎকার একটি কাহিনী। শঙ্খচিলের ডানা ভাইকে অন্তরের অন্তস্থল থেকে অভিনন্দন।টেলিছবিটি দেখার অপেক্ষায় রইলাম। এমন সুন্দর একটি গল্প বেছে নেবার জন্য দুলাল ভাইকে ধন্যবাদ।সেই সাথে ইস্টিশন ব্লগকেও। :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ:

  10. শুভ কামনা রইল টেলিছবি
    শুভ কামনা রইল টেলিছবি “নিমন্ত্রণ” এর জন্য । কাহিনী চমৎকার এবং টিম এর সকলকে আমার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা রইল।অপেক্ষায় আছি দেখার ।

  11. আতিক ভাই’র মত একজন ‘বাদাইম্মা
    আতিক ভাই’র মত একজন ‘বাদাইম্মা পাবলিক’ নিরবে-নিরবে কত যে কাজ সামলেছেন, বলে বোঝানো যাবে না। শুধু যে কাজ তা না, যাকে যেভাবে সম্ভব ঠিক সে ভাবেই তিনি ম্যানেজ করেছেন।
    টেলিছবি “নিমন্ত্রণ” এর সাথে জড়িত সকলের প্রতি শুভ কামনা রইল। সেই সাথে সকলকে ‘আধা-ধন্যবাদ’ (কিছু কাজ বাকী আছে, ওটা শেষ হলে পুরাটাই দিব)।

    1. যাক, অবশেষে নাটকের অন্যতম
      যাক, অবশেষে নাটকের অন্যতম প্রধান চরিত্রের আগমন। নাসির ভাই, আপনার অভিনয়ের ভক্ত হয়ে গেলাম। সেলিব্রেট হয়া গেলে মনে রাইখেন।

    2. একটা অটোগ্রাফের খাতা দরকার
      একটা অটোগ্রাফের খাতা দরকার এহন… :ভেংচি: সবার একটা কইরা অটোগ্রাফ নিয়া রাখুম… 😀 :বুখেআয়বাবুল:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *