বন্ধ করুন

নিজের বাড়ি, নিজের পিতৃভিটা এই জিনিসগুলার মুল্য অনেক বেশি, যাদের আছে প্রত্যেকেই জানেন এ জিনিস টা। আর সবচেয়ে বেশি জানে কারা জানেন যাদের এই নিজের বলতে পরিচয় দেওয়ার কিচ্ছু নেই। নিজের বাড়ি বলতে কিছু নেই।

সেই নেই পরিচয় মানুষদের মধ্যে আমি একজন, আমাকে বাইরে থেকে দেখলে অনেক শক্ত মনে হয় এটা অনেকটা ভান বলতে পারেন আসলে ভিতর টা একদম পুরাই ভাঙ্গাচুরা তাই নিজেকে শক্ত রাখার অভিনয় টা চালিয়ে যেতে হয়, নাহলে বাঙ্গালীরা একদম মেরে ফেলবে, টিকে থাকতে দিবে না।


নিজের বাড়ি, নিজের পিতৃভিটা এই জিনিসগুলার মুল্য অনেক বেশি, যাদের আছে প্রত্যেকেই জানেন এ জিনিস টা। আর সবচেয়ে বেশি জানে কারা জানেন যাদের এই নিজের বলতে পরিচয় দেওয়ার কিচ্ছু নেই। নিজের বাড়ি বলতে কিছু নেই।

সেই নেই পরিচয় মানুষদের মধ্যে আমি একজন, আমাকে বাইরে থেকে দেখলে অনেক শক্ত মনে হয় এটা অনেকটা ভান বলতে পারেন আসলে ভিতর টা একদম পুরাই ভাঙ্গাচুরা তাই নিজেকে শক্ত রাখার অভিনয় টা চালিয়ে যেতে হয়, নাহলে বাঙ্গালীরা একদম মেরে ফেলবে, টিকে থাকতে দিবে না।

অন্যের বাসায় ভাড়া থাকা জিনিসটা যে কি সেটা যারা থাকে মোটামুটি সবারই অভিজ্ঞতা আছে, শহর বন্দী মানুষগুলো প্রতিদিন অন্তত একবার হলেও মন থেকে চায় সব ফেলে বেরিয়ে যেতে, যাদের আছে তাড়া হয়ত কয়েকদিনের জন্যে হারিয়ে নিজেকে নস্টালজিক করে আসে। আর যাদের নেই তাড়া ইচ্ছেগুলো কবর দিয়ে আসে প্রতিনিয়ত।

অবশ্য আমাদের তথাকথিত সভ্য সমাজের বা মধ্যবিত্ত পরিবারের খুব কম মানুষের ই এই অনুভুতি আছে কারন বেশিরভাগের নিজের বলতে কিছু হলেও আছে, হয়ত আমরা হাতে গোনা কয়েকজনের নেই। কিন্তু একটু নিচে নামুন, ওই রেল লাইনে শীতে কুঁকড়ে থাকা মানুষ গুলোর দিকে যান দেখবেন বেশিরভাগ ই ঘরহারা মানুষ, নিজের নিজস্বতা হারিয়ে এখানে পড়ে আছে।

খুব বেশি যখন এই অনুভূতিটা তাড়া দেয় চুপচাপ বেরিয়ে পড়ি ঘর থেকে, ওই মানুষগুলোর জীবনযাত্রা দেখি, নিজেকে বুঝাই অন্তত ওদের চেয়ে তো আমি ভালো আছি।

এই নিজের সম্পর্কে এতগুলা কথা বলার একটাই কারন এই নিজের বাড়ি/ভিটা। আমি বুঝতে পারি না মানুষের টার্গেট আজকাল ওই হিন্দুরা কেন হচ্ছে ??? বুঝলাম সে হিন্দু তাই, কিন্তু ওদের ঘর বাড়ি ধ্বংস করে কি এমন মজা ? কি লাভ ওদের ??? অবশ্য লাভ ক্ষতির হিসেব ওদের সাথে করেও লাভ নেই, ওরা যদি এইটা বুঝত তাহলে অন্তত এই কাজ কোনদিন করত না।

চোখের সামনে দিয়ে নিজের ঘর বাড়ি ধ্বংস হতে দেখা, নিজের পরিবার কে মারধর করতে দেখা এর অনুভুতি যে কি বিষাক্ত এটা বোধহয় ওদের চেয়ে বেশি কেউ জানেনা। তাই সবাইকে বলছি চুপ করে থাকার সময় টা শেষ হয়ে গেছে।

সরকারের আশায় বসে থাকবেন না, আমাদের দেশের সরকার বা পুলিশ বাংলা ছবি তে যা দেখেন তা ই, ওরা ঘটনা ঘটে যাওয়ার পড় আসে, আর নির্দিষ্ট কিছু মানুষ কে ট্যাগ দিয়েই ওদের কাজ শেষ কিন্তু ব্যাপার টা বন্ধ করার তেমন কোন উদ্যেগ ওরা কখনই নিবে না, এটা ওদের জন্যে একটা শক্ত ইস্যু ছাড়া আর কিছুই না। কিন্তু যার যাচ্ছে সে জানে তার কি যাচ্ছে।

তাই সবার প্রতি অনুরোধ আপনারা চুপ করে থাকবেন না আপনার এলাকার দায়িত্ব আপনাদের, চোখের সামনে অন্যায় টা হতে দিবেন না, কেন দিবেন ওরা হিন্দু বলে ??? এটা ভুলবেন না আমরা একে অপরের পরিপুরক, ছোট বেলায় অনেকেই পড়েছেন হয়ত খাদ্য শৃঙ্খল এর কথা আমাদের টাও অনেক টা এরকম মাঝখানে কিছু একটা না থাকলে কোন কিছুই পরিপূর্ণ হয় না। তেমন ওরা না থাকলে আমরাও অপরিপূর্ণ।

সবার প্রতি অনুরোধ থাকবে কারা এই কাজ করছে চিহ্নিত করুন, আপনারা এক হন, আমরা এক না বলেই ওরা এত সাহস পায়।

এক কথায় হিন্দু বলেন বা উপজাতি বলেন সবাই আমরা এক, আমরা বাংলাদেশি। তাই কারো উপরই অন্যায় তা সহ্য করবেন না। ওদের প্রতিহত করুন।

১ thought on “বন্ধ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *