লেডিস ফার্স্ট

অনেকদিন আগের কথা । এক দেশে ছিলো এক রাজকুমারী আর এক রাখাল বালক । এরপরের ঘটনা সবার জানার কথা, ছেলেটা গে ছিলো না মেয়েটা ছিলো না লেসবিয়ান । তো প্রেম হয়ে যায়, যৌবন আমার লাল টমেটো মার্কা বাঁশি বাজাতো ছেলেটা আর রাজকুমারী সেই বাঁশি শুনে ইয়ে হয়ে যেতো ।

ইয়ে মানে, এভাবে ইয়ে ইয়ে হতে হতে একদিন বালক বালিকা ইয়ে করে বসে । রাজার কানে এইসব ইয়ের খবর চলে যায় । কারন রাজা আবার তারেক জিয়ার ভক্ত ছিলো । তারেক জিয়ার তালেবানী ভিডিও দেখতে গিয়ে বালক বালিকার ইয়ের ভিডিও দেখে ফেলে

আহা !!!

অনেকদিন আগের কথা । এক দেশে ছিলো এক রাজকুমারী আর এক রাখাল বালক । এরপরের ঘটনা সবার জানার কথা, ছেলেটা গে ছিলো না মেয়েটা ছিলো না লেসবিয়ান । তো প্রেম হয়ে যায়, যৌবন আমার লাল টমেটো মার্কা বাঁশি বাজাতো ছেলেটা আর রাজকুমারী সেই বাঁশি শুনে ইয়ে হয়ে যেতো ।

ইয়ে মানে, এভাবে ইয়ে ইয়ে হতে হতে একদিন বালক বালিকা ইয়ে করে বসে । রাজার কানে এইসব ইয়ের খবর চলে যায় । কারন রাজা আবার তারেক জিয়ার ভক্ত ছিলো । তারেক জিয়ার তালেবানী ভিডিও দেখতে গিয়ে বালক বালিকার ইয়ের ভিডিও দেখে ফেলে

আহা !!!
“আমিও খাই না সুজি, উজির নাজির মন্ত্রি আমিও কিছু যে বুঝি”- এই কথা বলে রাজা নির্দেশ দিলেন রাখাল বালককে খবর দিয়ে কবর দেয়া হোক । যেই কথা সেই কাজ, রাখালকে ধরতে গিয়ে একটি পত্র পাওয়া গেলো ।
পত্রে লেখা “আমি কি কম টাউট??? রাজকুমারীকে রাজ প্রাসাদ হতে করেছি আউট !!! ”

কাহিনী ঘোর কলিকাল, রাখাল বালক এর চে গুয়েভারার ভক্ত ছিলো, ছবির হাতে যাতায়াত ছিলো । চামে দিয়া বামে তাই হিজু মার্কা দাঁড়ি ছিলো । বাট দেশে চলছে ছাগু ধর পাকড় । দাঁড়ি ওয়ালা তাই হোটেলে নাই জায়গা । এই দিকে রাজার গেলামন কফি হুগুরের কাছে হতে তাবিজ নিয়ে খোঁজা শুরু করেছে রাখালকে ।

কি করে? কি করে?
আহা !!!
ছেলে আবার ভালো ছিলো বিড়ি ফুকাইতো না । তাই প্রেমিকাকে ছেড়ে দিতে চাইলো না । কারন প্ল্যান বি তো নাই । গেলো বাকশালী সরকারের বানানো হাতির ঝিলে ।
এখন কিন্তু পুরাই পিক আপ কাহিনী !!!

কে আগে লাফ দিবে, ছেলে নাকি মেয়ে । অনেক দিন আগের কথা , ঐ টাইমে লেডিস ফাস্ট এর কথা প্রচলন ছিলো না । বোকাচোদা বালক মারলো লাফ । শীতের দিন , পানির তাপমাত্রা ৪ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকলেও পানির মাঝে থাকা টক্সিন ছেলেকে মারার জন্য এনাফ ছিলো । ছেলে তুইলা নিলো পটল ।
এদিকে বালিকাও দিলো লাফ, লাফ দেয়ার আগে ফেসবুকে চেক ইন দিলো
“komited cuicaid, at haitrjhil, feeling xcited”

হাসপাতালে কোন কাজ কাম না থাকায় এরশাদ কাকু এই স্ট্যাটাস রিড করলো । এরশাদ কাকু একটু ইয়ে টাইপের । তাই একটা মেয়েকে রক্ষা করতে ইয়ে হয়ে রেব আঙ্কেল কে ফোন দিলো । রেব এসে রাজকুমারীকে উদ্ধার করে ।

আহা !!!
এরপরে হতে ছেলেরা কোন কাজ করার আগে এই রূপকথার গল্পটি মনে করে , আর বলে লেডিস ফার্স্ট !!!

কারন একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না !!!

৫ thoughts on “লেডিস ফার্স্ট

  1. বিলিভ ইট অর নট- আজ সকালে
    বিলিভ ইট অর নট- আজ সকালে পেপারে নিউজটা পড়ে আমার মাথায় প্রথম যে কথাটা এসেছে তা হলো- লেডিস ফার্স্ট!
    😀
    😛

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *