কি দরকার বলো……

হাঁটতে হাঁটতে প্রচণ্ড ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম,
না না, আমি রসিকতা করছি না।
তোমার সাথে সময় ভুলে অবিরাম সেই পথচলা আজ নিষ্প্রাণ অতীত।
সেই যে পাশাপাশি হাঁটতে হাঁটতে অসম্ভব সব দুষ্টোমি করার অজান্তেই ভালবাসা বুনতে থাকা…
সব কেমন যেন অদ্ভুতুড়ে কল্পনা বলে মনে হয় আজকাল।
আজ আমি আর মাইলের পর মাইল নির্দ্বিধায় হাঁটতে পারি না।
আজকাল বড্ড বুড়িয়ে গেছি।

তোমার সাথে আজ এভাবে দেখা হয়ে যাবে, এটা আমার কল্পনাতেও ছিল না।
বিশ্বাস করো , যদি জানতাম তুমি এতটা বিব্রত হবে,
আমি ওখানে যেতামই না।
তোমাকে আমি অর্থহীন কিছু বিব্রতকর কষ্ট দিতে চাইনি।
যে ভালোবাসার স্বর্গউদ্যান আমরা রচনা করেছিলাম,

হাঁটতে হাঁটতে প্রচণ্ড ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম,
না না, আমি রসিকতা করছি না।
তোমার সাথে সময় ভুলে অবিরাম সেই পথচলা আজ নিষ্প্রাণ অতীত।
সেই যে পাশাপাশি হাঁটতে হাঁটতে অসম্ভব সব দুষ্টোমি করার অজান্তেই ভালবাসা বুনতে থাকা…
সব কেমন যেন অদ্ভুতুড়ে কল্পনা বলে মনে হয় আজকাল।
আজ আমি আর মাইলের পর মাইল নির্দ্বিধায় হাঁটতে পারি না।
আজকাল বড্ড বুড়িয়ে গেছি।

তোমার সাথে আজ এভাবে দেখা হয়ে যাবে, এটা আমার কল্পনাতেও ছিল না।
বিশ্বাস করো , যদি জানতাম তুমি এতটা বিব্রত হবে,
আমি ওখানে যেতামই না।
তোমাকে আমি অর্থহীন কিছু বিব্রতকর কষ্ট দিতে চাইনি।
যে ভালোবাসার স্বর্গউদ্যান আমরা রচনা করেছিলাম,
বিপুলা বিস্তৃত মহাবিশ্ব সে তুলনায় কিছুই নয়।
নিয়তির অদ্ভুতুড়ে খেলায় আজ সে স্বর্গউদ্যান বিলীনপ্রায়,
যেখানে শ্মশানের নীরবতার মাঝে অব্যক্ত আর্তনাদ করে যায় কিছু বকেয়া অভিমান।
সব যেখানে শেষ হয়ে গেছে,
সেখানে অনর্থক শুকিয়ে যাওয়া পুরনো ক্ষতে হাত বোলাবার কি প্রয়োজন ?
তোমার সাথে আমার যতবার দেখা হবে,
ততবার সেই জমাট বেঁধে যাওয়া ক্ষতকে চাপ দিয়ে জাগিয়ে তোলা হবে মাত্র।
কি দরকার বল?

তোমার সাথে আমার ভালোবাসা ছিল মহাবিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে অদ্ভুতুড়ে ব্যাপার।
স্রষ্টা কেন এ অর্থহীন সম্পর্কের সুত্রপাত করেছিলেন, আমি জানি না।
তবে এর আগে আমি জানতাম স্রষ্টা খেলতে ভালবাসেন।
আমি এখন জানি স্রস্টার সবচেয়ে প্রিয় খেলার নাম ভালোবাসা।

প্রিয়তমা, মনে আছে তোমার?
কলেজে পড়বার সময় আমি পুরো একদিন তোমার সাথে কথা বলতে পারিনি।
আমি হাসপাতালে ছিলাম, অক্সিজেনের নল ছিল আমার নাকে,
তুমি মুঠোফোনে হাজারবার চেষ্টা করেও যখন পেলে না,
কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে গেলে, পাগলের মতো চষে ফেললে পুরো শহর।
তারপর হাসপাতালে যখন পৌঁছুলে, তোমার সমস্ত রাগ-অভিমান
অশ্রু হয়ে ভিজিয়ে দিয়েছিল আমার মুখখানা।
কি এক অদ্ভুত পাগলামি করেছিলে বল তো…
অক্সিজেনের সামান্য নলের উপর বিশ্বাস রাখতে পারোনি।
ডক্টরকে বলেছিলে, আপনি কি কোনভাবে আমার অক্সিজেনগুলো ওকে দিতে পারেন?
ডক্টর প্রথমে বুঝতে পারেননি।
এরকম কথা কে কবে শুনেছে, বল?
কোন উপায় থাকলে তুমি তোমার ফুসফুসের সব অক্সিজেন আমাকে দিয়ে দিতে।

আজ নিতান্তই দুর্ঘটনাবশত যখন তোমার সাথে আমার দেখা হয়ে গেল,
আমি হৃদয়ের জমাটবাঁধা কষ্টগুলো নিদারুন নিষ্ঠুরতায় হঠাৎ যেন জীবন্ত হয়ে উঠল।
তোমার মুখখানার দিকে আমি যতবার তাকিয়েছি,
ততবার স্রস্টাকে বলতে ইচ্ছে হয়েছে,
কোন অপরাধে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে এভাবে যন্ত্রণা দিচ্ছ?
অসহ্য নীরবতায় কাটানো প্রতিটা মুহূর্ত চিৎকার করে বলেছে,
ভালোবাসা পৃথিবীর সবচেয়ে বড় নির্মম পরিহাসের নাম।
অনুভূতিগুলোকে তুমি দোষ দিয়ো না।
তোমার দুর্ভাগ্য, পৃথিবীর সবচেয়ে অভিশপ্ত ভালোবাসার রানী ছিলে তুমি।
কথা দিচ্ছি প্রিয়তমা,
কিছু নিদারুন কষ্টের উপাখ্যান হয়ে
কিংবা অনর্থক বিব্রতকর যন্ত্রণা হয়ে
আর কোনদিন তোমার সামনে আসব না।
কোনদিন না…

১৫ thoughts on “কি দরকার বলো……

  1. আমাদের ভালবাসা হয়ে গেলো

    আমাদের ভালবাসা হয়ে গেলো ঘাস,
    খেয়ে গেলো গরু দিয়ে গেলো বাঁশ ।। :ভেংচি:

    ডন দা কিছু মনে করবেন না একটু রসিকতা করলাম :বুখেআয়বাবুল:

  2. “নিয়তির অদ্ভুতুড়ে খেলায় আজ
    “নিয়তির অদ্ভুতুড়ে খেলায় আজ সে স্বর্গউদ্যান বিলীনপ্রায়,
    যেখানে শ্মশানের নীরবতার মাঝে অব্যক্ত আর্তনাদ করে যায় কিছু বকেয়া অভিমান।”

    অ-সা-ধা-র-ণ! :বুখেআয়বাবুল:
    কীভাবে পারেন, ম্যান?

  3. চিঠি হিসেবে নেব???? নাকি অন্য
    চিঠি হিসেবে নেব???? নাকি অন্য কিছু!!!!!

    চমৎকার লেখা
    তোমার সাথে আমার ভালোবাসা ছিল
    মহাবিশ্বের
    ইতিহাসে সবচেয়ে অদ্ভুতুড়ে ব্যাপার।
    স্রষ্টা কেন এ অর্থহীন সম্পর্কের সুত্রপাত
    করেছিলেন, আমি জানি না।
    তবে এর আগে আমি জানতাম
    স্রষ্টা খেলতে ভালবাসেন।
    আমি এখন জানি স্রস্টার সবচেয়ে প্রিয়
    খেলার নাম ভালোবাসা

  4. আগে আমি জানতাম স্রষ্টা খেলতে

    আগে আমি জানতাম স্রষ্টা খেলতে ভালবাসেন।
    আমি এখন জানি স্রস্টার সবচেয়ে প্রিয় খেলার নাম ভালোবাসা।

    :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

  5. ভালো হয়েছে ডন । ফেবুতে কমেন্ট
    ভালো হয়েছে ডন । ফেবুতে কমেন্ট করি নাই ?

    আমি হাসপাতালে ছিলাম, অক্সিজেনের নল ছিল আমার নাকে,
    তুমি মুঠোফোনে হাজারবার চেষ্টা করেও যখন পেলে না,
    কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে গেলে, পাগলের মতো চষে ফেললে পুরো শহর।
    তারপর হাসপাতালে যখন পৌঁছুলে, তোমার সমস্ত রাগ-অভিমান
    অশ্রু হয়ে ভিজিয়ে দিয়েছিল আমার মুখখানা। – See more at: http://www.istishon.com/node/6215#sthash.ybNDZSLa.dpuf

    – এই লাইগুলো পড়ে একটা পুরনো স্মৃতি মনে পড়ে গেলো …

  6. দারুণ লাগলো। প্রেমের লুতুপুতু
    দারুণ লাগলো। প্রেমের লুতুপুতু কথাও কি দারুণ দক্ষতায় লিখে ফেলা যায় না দেখলে বিশ্বাস হয় না। :ভালুবাশি:

  7. প্রেম!!! সে তোঁ আমার নিয়তিতে
    প্রেম!!! সে তোঁ আমার নিয়তিতে নাই, আতিক ভাই। যা আছে তা হল নিতান্তই অভিশপ্ত কিছু সম্পর্ক… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *