আন্দোলনের নামে মানুষ পোড়ানো, ইতিহাসের এক কলঙ্কজনক অধ্যায়–ফটো ব্লগ

আন্দোলনের নানা রূপ আমি দেখেছি, আন্দোলনের নানা রূপ আমার জানা, গনতান্ত্রিক আন্দোলন অনেক ভাবেই করা যায়। যেমন,

প্রাথমিক ভাবে মিটিং, মিছিল, অবস্থান কর্মসুচি করা যায় এবং তাতে যদি দাবী না মানে তারপর অবরোধ, হরতাল, ঘেরাও এসব কর্মসুচি করা যায়।

আর অহিংস আন্দোলনের মধ্যে আছে প্রতীকী অনশন, আমরন অনশন।

কিন্তু ২০১৩ সালের নভেম্বর ও ডিসেম্বরের মত আন্দোলন পৃথিবীতে আর কোন দেশে হয়েছে কিনা আমার জানা নাই।


আন্দোলনের নানা রূপ আমি দেখেছি, আন্দোলনের নানা রূপ আমার জানা, গনতান্ত্রিক আন্দোলন অনেক ভাবেই করা যায়। যেমন,

প্রাথমিক ভাবে মিটিং, মিছিল, অবস্থান কর্মসুচি করা যায় এবং তাতে যদি দাবী না মানে তারপর অবরোধ, হরতাল, ঘেরাও এসব কর্মসুচি করা যায়।

আর অহিংস আন্দোলনের মধ্যে আছে প্রতীকী অনশন, আমরন অনশন।

কিন্তু ২০১৩ সালের নভেম্বর ও ডিসেম্বরের মত আন্দোলন পৃথিবীতে আর কোন দেশে হয়েছে কিনা আমার জানা নাই।

আন্দোলনের রূপ কি মানুষের গায়ে আগুন! হতে পারে। সকল বিবেকবান মানুষের হৃদয় কেঁদেছিলো, এসব ছবি দেখে অনেকে আহত-ব্যথিত হয়েছিলো।

আমার এসব ছবি সংরক্ষন করার উদ্দেশ্য হচ্ছে আমি ইতিহাসকে মনে রাখতে চাই, চিনে রাখতে চাই কারা এসব কর্মকান্ডের সাথে যুক্ত, কারা এসব মানুষের লাশের উপর দিয়ে হেটে ক্ষমতায় যেতে চায় বা ক্ষমতায় থাকতে চায়।

..অনেক ছবি আমার কাছে ছিলো তার মধ্যে নরমাল কিছু এখানে আছে, এসব ছবি কথা বলে..আমাদের দেশের আন্দোলনের ভাষা। এসব ছবি আমাদের বলে দেয় বাংলাদেশের রাজনৈতিক আন্দোলন। এসব ছবি আমাদের বলে দেয় বাংলাদেশে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য কত নির্মম কাজ করতে পারে।

হ্যাঁ, একদিন এসব ছবি কথা বলবে….??

পুড়ে গেছে শরীর, হাসপাতালে শুয়ে আছে শিশু

আগুনে পুড়ে বেঁচে নেই আসাদ গাজী

হাসপাতালে অগ্নিদগ্ধ হয়ে পরে আছে এক বাসের চালক।

শিশুরা সাক্ষী হয়ে থাকলো…

একই পরিবারের সদস্য

সারিসারি পোড়া মানুষের দেহ!

হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি পোড়া মানুষের দেহ!

রাজনীতির হানাহানিতে বলি এক শিশু!

এসব কি মানুষের কাজ?

শুয়ে আছে পোড়া শরীর নিয়ে এক শিশু!

হাসপাতালে শুয়ে আছেন অগ্নিদগ্ধ মন্টু পাল!

স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর সামনে এই সাহসী নারী বলে উঠলো ” আমরা অসুস্থ সরকার চাই না ”

একজন পোশাক শ্রমিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে পরে আছে!

শরীরের প্রায় পুরোটাই পুড়ে গেছে সামন্ত লালের!

সহিংসতা প্রতিরোধে জনতা।

৬ thoughts on “আন্দোলনের নামে মানুষ পোড়ানো, ইতিহাসের এক কলঙ্কজনক অধ্যায়–ফটো ব্লগ

  1. পুরোপুরি পড়তে পারলাম না ভাই।
    পুরোপুরি পড়তে পারলাম না ভাই। লজ্জায়, ক্ষোভে, রাগে আর ঘৃণায় মাথায় আগুন ধরে গেছে। :মানেকি: :মানেকি: পিউর জারজ দেখতে চাইলে এদের দেখা উচিৎ। এদের চেয়ে পিউর জারজ আর হতে পারে না। :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

  2. মাথায় রক্ত চড়ে যাচ্ছে;
    মাথায় রক্ত চড়ে যাচ্ছে; :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:
    এহেন বর্বরোচিত কর্মকান্ড কেবল পাকি বীর্যের জারজদের পক্ষেই করা সম্ভব।

    (যাত্রী ভাই, ছবি বানানটা কয়েক জায়গায় ভুল আছে; ঠিক করে দিলে ভাল হবে। :ধইন্যাপাতা: )

Leave a Reply to অন্ধকারের যাত্রী Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *