আমার বৈরাগী একবেলা

জানিতো চুরি হয়েছে দিনগুলো,
ক্যাম্পাসের এককোেণ যখন উদাস স্বপ্ন বোনা,
নীলাভ পাঞ্জাবীর ছেঁড়াটা চোখ এড়ায় না,
তবে কেমনে মনের ছেঁড়াটা চোখ এড়ালো আজও বুঝি না,
আবার সেই উদাস বেলা।

পথের ফেরিওয়ালাই হিরো তোর,
মলের ঐ এসিতে দমবন্ধ মন,
বারবার ঘুরে যায়,
নীল কাঁচের চুড়ি ছুঁয়ে,
চঞ্চল মন এপার ওপার,
ফেরিওয়ালার বাঁশের ঝুড়িতে পড়েছে যে,
মন আটকা,
সেদিনের মধ্য দুপুরে।

গোত্তা খাওয়া বাতাসে যখন,
মুঠো ভরে ধুলো মাখা ভালোবাসা,
পালায় দূরে পলিথিনটা,
ভেসে যতদূর যাওয়া যায়,
চুরি করে তিল তিল ভালোবাসা ,

কাঁচের নীল চুড়ি,
বাজা ,বাজা রে মানবী,
বাজা রে মন তোর ঘরে,
বৈরাগীর বেলা আজ অনেক দিন,

জানিতো চুরি হয়েছে দিনগুলো,
ক্যাম্পাসের এককোেণ যখন উদাস স্বপ্ন বোনা,
নীলাভ পাঞ্জাবীর ছেঁড়াটা চোখ এড়ায় না,
তবে কেমনে মনের ছেঁড়াটা চোখ এড়ালো আজও বুঝি না,
আবার সেই উদাস বেলা।

পথের ফেরিওয়ালাই হিরো তোর,
মলের ঐ এসিতে দমবন্ধ মন,
বারবার ঘুরে যায়,
নীল কাঁচের চুড়ি ছুঁয়ে,
চঞ্চল মন এপার ওপার,
ফেরিওয়ালার বাঁশের ঝুড়িতে পড়েছে যে,
মন আটকা,
সেদিনের মধ্য দুপুরে।

গোত্তা খাওয়া বাতাসে যখন,
মুঠো ভরে ধুলো মাখা ভালোবাসা,
পালায় দূরে পলিথিনটা,
ভেসে যতদূর যাওয়া যায়,
চুরি করে তিল তিল ভালোবাসা ,

কাঁচের নীল চুড়ি,
বাজা ,বাজা রে মানবী,
বাজা রে মন তোর ঘরে,
বৈরাগীর বেলা আজ অনেক দিন,
কতকাল আর রব এমনে,

দুরন্ত যে ভবঘুরে,
সে যদি আজ নীড় খোজে চোখের মায়ায়,
তবে আমি কে রে,
বৈরাগী তোর বৈরাগ্য নে রে,
আমি এবার চাই সারাবেলা,
নীল চুড়িভরা হাতের স্পর্শে অস্পর্শে ,
উদাসী চোখের মায়ায় তন্দ্রাবিলাশের শেষ বেলা ।

৩ thoughts on “আমার বৈরাগী একবেলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *