লজ্জা কেন পুরো জাতির হবে?

[এখানে আগেই একটু পরিষ্কার করে বলে রাখি, আমি ব্যক্তিগতভাবে কোন দলের সমর্থক নই। ]

হেফাজত সমর্থক এক বড় ভাই একদিন গল্পের মাঝখানে বলে বসলেন, আসলে ৭১ এর যুদ্ধে ৩০ লাখ নয় ৩ লাখ লোক মৃত্যুবরন (শহীদ নয়) করেছিলেন। তিনি নাকি কোন বইতে পড়েছিলেন ছোটোবেলায়। যদিও সেই বইয়ের নাম কিংবা লেখকের নামটা বলতে পারেননি আদৌ। কিন্তু তিনি স্বীকার করেছেন ২ লাখ মা-বোনের ইজ্জত হারানোর কথা। অর্থাৎ, উনার কথার সূত্রমতে বাকী ২৭ লাখ লোক পুকুরে ডুব দিয়েছিল মাছ ধরার জন্য অথবা নাসার কোন স্পেসে করে মহাকাশ-ভ্রমনে গিয়েছিল।


[এখানে আগেই একটু পরিষ্কার করে বলে রাখি, আমি ব্যক্তিগতভাবে কোন দলের সমর্থক নই। ]

হেফাজত সমর্থক এক বড় ভাই একদিন গল্পের মাঝখানে বলে বসলেন, আসলে ৭১ এর যুদ্ধে ৩০ লাখ নয় ৩ লাখ লোক মৃত্যুবরন (শহীদ নয়) করেছিলেন। তিনি নাকি কোন বইতে পড়েছিলেন ছোটোবেলায়। যদিও সেই বইয়ের নাম কিংবা লেখকের নামটা বলতে পারেননি আদৌ। কিন্তু তিনি স্বীকার করেছেন ২ লাখ মা-বোনের ইজ্জত হারানোর কথা। অর্থাৎ, উনার কথার সূত্রমতে বাকী ২৭ লাখ লোক পুকুরে ডুব দিয়েছিল মাছ ধরার জন্য অথবা নাসার কোন স্পেসে করে মহাকাশ-ভ্রমনে গিয়েছিল।

আরেকদিন একজন বললেন, জামায়াত-শিবির কোনদিন কারো রগ কাটেনি। কেউ কোনদিন প্রমান দেখাতে পারেনাই, পারবেও না। আরেকজনকে বলতে শুনলাম, বাংলাদেশে ইসলামের পতাকার প্রবর্তক জামায়াত-শিবির।
এগুলো আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। অনলাইনে অর্থাৎ ফেসবুকে, ব্লগে এবং নিউজ পেপারে প্রতিদিনই এরকম অনেক অভিজ্ঞতা হয়।

মজার কথা হল, এগুলোর কোন একটির বিরোধীতা করলেই আপনি আম্পি সমর্থক কিংবা নাস্তিক হয়ে যাবেন। সে অর্থে আমি আম্পি সমর্থক কিংবা একজন নাস্তিক। আগেই যেহেতু বলেছি আমি ব্যক্তিগতভাবে কোন দলের সমর্থক নই, তাহলে প্রথম শব্দটি আমার জন্যে খাটে না। তাহলে রয়ে যাচ্ছে দ্বিতীয়টি।
নাস্তিকদের তো আবার মতের ঠিক থাকেনা। তবুও সজ্ঞানে মতটা ঠিক রেখে একটা কথা বলব, পাকিস্তানিরা আমাদের ২ লাখ (কম/বেশি হতে পারে) মা-বোনের ইজ্জত নিয়েছে, সে কথা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু কেউ চোখে দেখি নাই। অথবা অনেকেই দেখেছি। অধিকাংশই কানে শুনেছি। লোকমুখে।
প্রবাদ চালু আছে, শোনা কথায় কান দিতে নেই। তাহলে প্রশ্নটা কি দাঁড়ায় এখন?
প্রধ্ন দাঁড়িয়ে যায়- “আমি কি তাহলে ৭১ কে অস্বীকার করব? আমার মা-বোন যে ধর্ষিতা সে কথাও অস্বীকার করব?”
যদি আপনি তর্ক করতে শুরু করেন, তাহলে বলব আপনার দাদা-দাদী বেঁচে থাকলে তাকে জিজ্ঞেস করতে পারেন ধর্ষন হয়েছে কি হয় নি?

আসলে মাঝে মাঝে অবাক লাগে রাজাকারেরাই দেশ চালায়। আম্পিতেও রাজাকারের অভাব নেই, বিম্পি-জাম্পির কথা তো সবাই জানে। যেহেতু রাজাকারেরা ছিল এদেশে, এখনো আছে, তাহলে অবশ্যই স্বীকার করে নিতে বাধ্য ৭১ হয়েছে, ধর্ষনও হয়েছে। প্রমাণিত এই কথার উপর ভিত্তি করেই একটা বাজে কথা বলব। জানিনা শুনলে আপনাদের কেমন লাগবে।

৭১ এ পাকিস্তানিরা শুধু আমাদের মা-বোনদেরকেই ধর্ষন করেনি, করেছিল কিছু বেশ্যাদের সঙ্গেও সঙ্গলীলা। আর তাই এখনো রাজাকারেরা বাংলার হাওয়া-পানি খেয়ে বেঁচে আছে। এজন্যেই বোধ হয় এ ধরনের শিরোনাম দেখতে হয় “জামায়াতে ইসলামের জনাব কাদের মোল্লাকে বাকশালী প্রহসনের রায় কর্যকর থেকে রক্ষা করতে আজ রাতের মধ্যে পাকিস্তান ও সৌদি আরব থেকে সেনাবাহিনী আসবে। কাল নাগাদ আর্মি পৌছে যাবে।” [সূত্রঃ বাশেরকেল্লা]
যদিও এই সূত্র উল্লেখ করেও কোন লাভ নেই। হুট করে বলে বসবেন “ফটোশপিং”
তাহলে আরেকটা প্রশ্ন করে ফেলি। আপনাদের মা-বোনের ইজ্জতও কি ফটশপিঙের মাধ্যমে নষ্ট করা হয়েছিল?
কি, শরীর কামড়াচ্ছে কথাটা শুনে??

রাজাকার যেমন বিম্পি-জাম্পিতেও আছে, আম্পিতেও আছে। কম-বেশি নিয়ে প্রধান সমস্যা নয়। সমস্যা হল- এদেশের কিছু সাইনবোর্ডধারী শিক্ষিত সমাজ (পরিচয়টা আরো খারাপ ভাবে বলতে পারতাম) তাদের লেখনী কিংবা গায়ের তাজা রক্ত ঢেলে হলেও মরিয়া হয়ে থাকেন কাদেরের মতন হায়েনাগুলোকে বাঁচাতে এবং তারাই সবার আগে মস্তিষ্কের চলাচলকে অতিরিক্ত মত্রায় কাজে লাগাতে বসেছেন।
আবার বলতেও শোনা যায়, কাদেরের ফাঁসিতে পুরো জাতি আজ লজ্জিত।
লজ্জা কেন পুরো জাতির হবে? হওয়া তো উচিত আপনাদেরদই।
কেন, শুনবেন? কারন, শিক্ষিতের লেবাস ধরে যুগ যুগ ধরে আপনারাই এই দেশটাকে নিয়ে খেলেছেন।
আর হ্যাঁ, একটা কথা, দুই-তিন পাতা সূরা মুখস্থ করলেই ইসলামের রক্ষক হওয়া যায় না।

৪ thoughts on “লজ্জা কেন পুরো জাতির হবে?

  1. , দুই-তিন পাতা সূরা মুখস্থ

    , দুই-তিন পাতা সূরা মুখস্থ করলেই ইসলামের রক্ষক হওয়া যায় না।

    সহমত।

    ,——————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————
    যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

    আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

    সত্য সহায়। গুরুজী।।

  2. মজার কথা হল, এগুলোর কোন একটির

    মজার কথা হল, এগুলোর কোন একটির বিরোধিতা করলেই আপনি আম্পি সমর্থক কিংবা নাস্তিক হয়ে যাবেন।

    আমার প্রশ্ন হল আম্পি বলতে আপনি কি আওয়ামী লীগ ও বিম্পি কে বুঝিয়েছেন????

    …… যদি তাই হয় তবে আপনার জেনে রাখা উচিত তাদের চোখে বিম্পি করলে কেউ নাস্তিক হয় না।নাস্তিক হয় শুধুমাত্র স্বাধীনতার পক্ষে কথা বললে আর আওয়ামী করলে।

  3. রাজাকার যেমন বিম্পি-জাম্পিতেও

    রাজাকার যেমন বিম্পি-জাম্পিতেও আছে, আম্পিতেও আছে।

    এই কথা অনেকের মুখে শুনি, আমার জানার জন্য আপনাকে প্রশ্ন করলাম আম্পিতে দুই একজন রাজাকারের নাম বলবেন??

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *