আসুন- আমরা সকলেই বৃক্ষের মত উত্তম ও মানুষের মত মহা-উত্তম হওয়ার চেষ্টা করি।

আমি বৃক্ষ অপেক্ষা অধম। কেন না- বৃক্ষ তার আহারের জন্য কোথাও ছুটাছুটি করে না। সে তার যায়গায় অনড় থেকে তার আহারাদী সহ সকল ক্রীয়া সম্পাদন করে। অথচ আমি মানুষ সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ হওয়া স্বত্বেও, এক যায়গায় অনড় অবস্থান করে সকল চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম নই। বৃক্ষের তলে যে ছায়া নিতে যায়, সে তাকেই ছায়া দেয়। সে কাউকে তার ছায়া নিতে বাধা প্রদান করে না। তার নিচে সাধক সাধনা করে, সে তাকে বাধা প্রয়োগ করে না, আবার সে বৃক্ষ সাধকের কাছ হতে কিছুই চাই না। সেই সাথে বৃক্ষ কারও কোন অপকার করে না।


আমি বৃক্ষ অপেক্ষা অধম। কেন না- বৃক্ষ তার আহারের জন্য কোথাও ছুটাছুটি করে না। সে তার যায়গায় অনড় থেকে তার আহারাদী সহ সকল ক্রীয়া সম্পাদন করে। অথচ আমি মানুষ সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ হওয়া স্বত্বেও, এক যায়গায় অনড় অবস্থান করে সকল চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম নই। বৃক্ষের তলে যে ছায়া নিতে যায়, সে তাকেই ছায়া দেয়। সে কাউকে তার ছায়া নিতে বাধা প্রদান করে না। তার নিচে সাধক সাধনা করে, সে তাকে বাধা প্রয়োগ করে না, আবার সে বৃক্ষ সাধকের কাছ হতে কিছুই চাই না। সেই সাথে বৃক্ষ কারও কোন অপকার করে না।

বৃক্ষের তলে বসে চোর চুরির পরিকল্পনা করে, খুনি খুনের পরিকল্পনা করে, ধর্ষক ধর্ষণের পরিকল্পনা করে, প্রতারক প্রতারণার পরিকল্পনা করে, প্রেমিক প্রেমিকা তাদের প্রেমের কথা আলোচনা করে, সত লোক সত্য প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা করে, বৃক্ষ সব শুনে। কিন্তু কাউকে তা বলে দেয় না। অতএব বৃক্ষ কত বড় বিশ্বস্ত যে, সকলেই তার তলে আশ্রয় গ্রহন করে, সে কাউকেই তাড়িয়ে দেয় না। আমি আশরাফুল মাখলুকাত, সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ মানুষ হয়েও সকলকে ছায়া দিতে পারি না। পরি না সকলের কথা গোপন রাখতে। তখন আমার মাথা নিচু হয়ে যায়। আমি তখন ভাবি, আমি বৃক্ষ অপেক্ষা কতই না অধম।

কিন্তু যখন আমি দেখি- কোন দুর্ঘটনা কবলিতকে সাহায্যের জন্য গাছ এগিয়ে আসতে পারে না। আমি পারি। তখন আমার মনে হয় আমি বৃক্ষ অপেক্ষা অনেক উত্তম। যখন আমি দেখি কোন চোর চুরির পরিকল্পনা করছে, আমি তাকে চুরি করার কু-ফল ও চুরি না করার সু-ফল জানিয়ে তাকে চুরি করা হতে বিরত রাখতে পারি। তখন আমার মনে হয় আমি বৃক্ষ অপেক্ষা অনেক উত্তম। যখন আমি খুনের পরিকল্পনাকারীকে খুনের কুফল ও খুন না করার সু-ফল জানিয়ে, তাকে খুন থেকে বিরত রাখতে পারি। যখন আমি ধর্ষককে ধর্ষণ করার কু-ফল ও ধর্ষণ না করার সু-ফল জানিয়ে, তাকে ধর্ষণ হতে বিরত রাখতে পারি, যখন আমি প্রতারককে প্রতারনা করার কু-ফল ও প্রতারনা না করার সু-ফল জানিয়ে, তাকে প্রতারণা হতে বিরত রাখতে পারি, তখন মনে হয় আমি বৃক্ষ অপেক্ষা অনেক উত্তম।

প্রথমতঃ আমি বৃক্ষের মত উত্তম হতে চাই। আমি চাই- আমার কাছে যেই ছায়া নিতে আসুক না কেন, কোন জাতি ধর্ম চিন্তা না করে, তাকে যেন আমি বৃক্ষের মত ছায়া দিতে পারি। আমার কাছে যে- যে কথাই বলুক না কেন, আমি যেন তা বৃক্ষের মত গোপন রাখতে পারি।

সেই সাথে আমি মানুষের মত উত্তম হতে চাই। আমি চাই- আমি যেন সকল অসহায়কে ছুটে গিয়ে সহায়তা করতে পারি। আমি যেন সকল ক্ষতি সাধনকারীর ক্ষতি সাধন পরিকল্পনাকে, ক্ষতি সাধন না করার উপদেশ দিতে পারি। আমি যেন তাদেরকে সকল ক্ষতি সাধন থেকে ফিরিয়ে আনতে পারি। আমি যেন সকলের কথা গোপন রাখতে পারি। তবেই আমি উত্তম। তবেই আমি সৃষ্টির শ্রেষ্ঠজীব, নচেত আমি পশু অপেক্ষাও অধম।

তাই আসুন- আমরা সকলেই বৃক্ষের মত উত্তম ও মানুষের মত উত্তম হওয়ার চেষ্টা করি। আমরা সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ হওয়ার অঙ্গীকার করি।

——————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————
আস্তিক হলো তারাই- যারা বিশ্বাস করে আল্লাহর অস্তিত্ব আছে। আল্লাহ দেহধারী, তাকে দেখা যায় ও তাকে ধরা যায়।
নাস্তিক হলো তারা- যারা মনে করে আল্লাহ নিরাকার, তাকে দেখা ও ধরা যায় না।
আর যারা বিশ্বাস করে স্রষ্টা নাই, তারা মূলতঃ ভণ্ড। সেরু পাগলার বাণী।।

সত্য সহায়। গুরুজী।।

১২ thoughts on “আসুন- আমরা সকলেই বৃক্ষের মত উত্তম ও মানুষের মত মহা-উত্তম হওয়ার চেষ্টা করি।

        1. আমি কোন যুক্তি নিয়ে চলি না।
          আমি কোন যুক্তি নিয়ে চলি না। আমি চলি বাস্তব নিয়ে।

          যারা যুক্তি নিযে চলে- তারা ৫০% ভুলে চলে, আর যারা বাস্তবতা নিয়ে চলে তারা ১০০% সঠিক চলে। তাই আমার টা সঠিক।

          বিশ্বাস না হলে যাচাই করে নিতে পারেন।

          ——————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————
          যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

          আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

          সত্য সহায়। গুরুজী।।

          1. নারায়ে তাকবির তো , ইসলাম
            নারায়ে তাকবির তো , ইসলাম ধর্মের শ্লোগান,
            এই শ্লোগান দিয়ে যারা গাড়িতে আগুন দেয় মানুষের মাথায় বাড়ি দেয়, তারাও কি ইসলাম ধর্মের লোক, শান্তি প্রতিষ্ঠার কাজে নিয়োজিত??

          2. না! তারা ইসলাম ধর্মের লোক
            না! তারা ইসলাম ধর্মের লোক না।
            ——————————————————————————————————————————————————————————————————————–
            যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

            আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

            সত্য সহায়। গুরুজী।।

          3. তারা অ-ইসলাম পন্থি বা
            তারা অ-ইসলাম পন্থি বা কাফের।

            ——————————————————————————————————————————————————————————————————————–
            যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

            আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

            সত্য সহায়। গুরুজী।।

          4. যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম

            যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

            ——————————————————————————————————————————————————————————————————————–
            যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

            আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

            সত্য সহায়। গুরুজী।।

      1. না! আপনি তো আমাকে শুধু ধারণা
        না! আপনি তো আমাকে শুধু ধারণা করছেন। বাস্তব কিছুই বুঝতে পারছেন না।

        তবে আপনি যে ধারণা করছেন, তাহা যে ভুল তা প্রমান করতে, আরও কিছু দিন পর্যবেক্ষণ করতে হবে।
        ——————————————————————————————————————————————————————————————————————————————————
        যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন।

        আর-যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়োজিত, সেই অ-ইসলাম ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।।

        সত্য সহায়। গুরুজী।।

Leave a Reply to সিরাজুল ইসলাম Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *