চুমু

অতুল প্রপাত,নিঃসঙ্গ ব-দ্বীপ।
কথা ফুরিয়ে আসে ধীরে,
পানকৌড়ির ডানায়!
কালচে মেঘের মেয়ে,
চিঠি দেবে;
ব্যাসদেবের কাছে!

আলোহীন সেতারে,পাঠিকার এলো চুলের রুক্ষতা!
আমি দশ টাকার নোটে চুমু দেই;
তুমি ধরেছিলে বলে!



অতুল প্রপাত,নিঃসঙ্গ ব-দ্বীপ।
কথা ফুরিয়ে আসে ধীরে,
পানকৌড়ির ডানায়!
কালচে মেঘের মেয়ে,
চিঠি দেবে;
ব্যাসদেবের কাছে!

আলোহীন সেতারে,পাঠিকার এলো চুলের রুক্ষতা!
আমি দশ টাকার নোটে চুমু দেই;
তুমি ধরেছিলে বলে!
তোমার কান্নায় ভেজে মহাকাল,
শিবের জটা ঢিলে হয়ে যায়!
অহল্যার নরম পায়ে তোমার নামে পুজো দেই!
তোমার মুখ এত মলিন কেন?
প্রলেপের আড়ালে মানবতা;
বেসাতির সুরে বেহালা বেজে বেজে;
ঢিলে হয়ে যায় তার!

প্রাণের উপত্যকায় আসে হিমবাহের শীতলতর ধারার এক চিলতে রোদ!
আসো না একবার!
ভেনিস,হেগ,ব্রাসেলস হয়ে
মিউনিখে যেয়ে থামবো;
ও কি?তোমার চোখের নিচে কালসিটে কেন?

ওহ,কাজল গলেছে কৌণিক বেগে।
এই নাও তো এটা,
খুব ভারী!
কি না জেনে নিলে কি হয়??
নাও তো এটা,এটা চুমু!

১১ thoughts on “চুমু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *