“দি বাস্টার্ড চাইল্ড”গনহত্যা ও নির্যাতনের গল্প….

ভারতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ নিয়ে মৌলিক চলচ্চিত্র এটাই প্রথম।এর আগে ২০০৭ সালে “1971” নামে একটি ছবি মুক্তি পেলেও সেটাতে পাক-ভারত দ্বন্দটাই বেশী মুখ্য হয়ে উঠেছে।অখন্ড ভারতবর্ষের স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে বাংলাদেশের পটভুমিতে নির্মিত হয়েছে “Chittagong”ছবিটি।এর বাইরে এই ছবিটাই প্রথম।উন্নত নির্মানশৈলীতে যেখানে ফুটে উঠেছে মুক্তিযুদ্ধের অনেক নির্মম রূপ।



ভারতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ নিয়ে মৌলিক চলচ্চিত্র এটাই প্রথম।এর আগে ২০০৭ সালে “1971” নামে একটি ছবি মুক্তি পেলেও সেটাতে পাক-ভারত দ্বন্দটাই বেশী মুখ্য হয়ে উঠেছে।অখন্ড ভারতবর্ষের স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে বাংলাদেশের পটভুমিতে নির্মিত হয়েছে “Chittagong”ছবিটি।এর বাইরে এই ছবিটাই প্রথম।উন্নত নির্মানশৈলীতে যেখানে ফুটে উঠেছে মুক্তিযুদ্ধের অনেক নির্মম রূপ।

★★★
ছবিঃ দি বাস্টার্ড চাইল্ড(জারজ সন্তান)
পরিচালকঃ মৃত্যুঞ্জয় দেবব্রত
ভাষাঃ হিন্দি,বাংলা
শ্রেষ্ঠাংশেঃ ঋদ্ধি সেন, রাইমা সেন, ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত, ভিক্টর বন্দোপাধ্যায়, ফারুক শেখ, রুচা ইনামদার, পবন মালহোত্রা, তিলোত্তমা সোম,প্রমুখ।
সম্ভাব্য মুক্তি তারিখঃ সাতাশ ডিসেম্বর।
★★★

প্লটঃ ছবিটির প্লট খানিকটা কথা একাত্তরের স্টাইলে এগোয়,এখানে খন্ড খন্ড কিছু ঘটনাবলী এক করে এক সুত্রে গাঁথা হয়েছে।ধর্ষনকে কিভাবে অস্ত্র হিসেবে ব্যাবহার করা হয় যুদ্ধের মাঠে এটাই মূলত প্রমিনেন্টলি উঠে এসেছে এ ছবিতে।নির্যাতিতা বিরাঙ্গনাদের মানবেতর জীবন যাপন।সবমিলিয়ে ছবিটিতে উঠে এসেছে সেই সময়ের পূর্ন রেশ। যদিও সেন্সর জটিলতায় খোদ ভারতেই আটকে আছে ছবিটি।ছবিটির শিরোনামে “বাস্টার্ড ” শব্দটা যুক্ত থাকাতে আপত্তি তুলেছে সে দেশের সেন্সরবোর্ড। ছবিতে বেশ কিছু যৌন ও খোলামেলা ধর্ষন দৃশ্য থাকাতে বাংলাদেশে প্রচারের ব্যাপারেও জটিলতায় পড়তে পারে ছবিটি।
ছবি প্রসঙ্গে এর পরিচালক বলেন,
” দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন গণহত্যা নিয়ে প্রচুর ছবি নির্মিত হয়েছে হলিউডে। কিন্তু বাংলাদেশের গণহত্যা নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে খুব একটা আলোচনা হচ্ছে না। গণহত্যার পাশাপাশি এখানে ধর্ষণ ও ধর্মকে যে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে তাই আমি তুলে ধরার চেষ্টা করেছি”

সিনেমাটির গল্প নিয়ে রাইমা সেন বলেন,
“এটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক নির্বিচারে বাঙালি নারী ধর্ষণের ওপর ভিত্তি করে নির্মাণ করা একটি ছবি। সেই সময় ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছিল পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। চলচ্চিত্রটিতে ফোকাস করা হয়েছে দগ্ধ করা, সহিংসতা, প্রতিরোধসহ এমন ছোট ছোট তিন বা চারটি সমান্তরাল গল্প। সিনেমার শেষের দিকে এসে সবগুলো জীবন একত্র হয়। প্রথম গল্পে, বাংলাদেশের একটি গ্রামে যুদ্ধাবস্থার মধ্যে এক ব্যক্তি পরিবার নিয়ে যাচ্ছিলেন। আরেকজন আছেন সাংবাদিক, তিনি যুদ্ধে যোগ দিয়েছেন। তার স্ত্রী-ই সিনেমাটির মূল চরিত্র। একটি ধর্ষণ ক্যাম্পে আটকে রাখা হয় তাকে। ওই সময়ে বাংলাদেশের মেয়েদের অবস্থা ছিল এমন। টানা ২১ দিন ধরে পুরো রাত ধরে শুটিং করেছি। দিনের আলো দেখতে পারিনি। ওই সময় তারা যে অবস্থার মধ্য দিয়ে গেছেন আমি সেটা অনুভব করছি। আমার চরিত্রটা বেশ কঠিন। একজন ধর্ষিতার শারিরীক ভাষা এবং চোখ দিয়ে সঠিক অবস্থাটিকে ফুটিয়ে তুলতে হয়েছে। একাত্তরের যুদ্ধে নির্যাতিত নারীর ব্যথা টের পাচ্ছি আমি। কীভাবে ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে, সেটি সুন্দরভাবে তুলে ধরা হয়েছে।”

নিঃসন্দেহে আশাজাগানিয়া দেশপ্রেমের অনুভূতি বাঙ্গালীর ভেতর থেকে বের করে এনেছে এই ছবির ট্রেইলার। মূল ছবি দেখতে প্রচুর মানুষ আগ্রহ প্রকাশ করছেন। অপেক্ষায় আছেন কবে মুক্তি পাবেন ছবিটি। সবকিছু ঠিক থাকলে আশা করি অচিরেই দর্শক নন্দিত হবে চলচ্চিত্রটি।
★★★
সুত্রঃ উইকিপিডিয়া,বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম, পশ্চিমবঙ্গ সংবাদ সংস্থা।

ট্রেলার লিংকঃ

উইকি লিংকঃ http://wikipedia.org/wiki/The_Bastard_Child

২৪ thoughts on ““দি বাস্টার্ড চাইল্ড”গনহত্যা ও নির্যাতনের গল্প….

  1. এই মুভিটা নিয়ে আমি খুবই
    এই মুভিটা নিয়ে আমি খুবই আগ্রহবোধ করছি। ট্রেইলার দেখেই ভালো লাগছে। এর আগে প্রায় ২ মাস আগে প্রথম ফেসবুকে এদের পেইজের লিংক পেয়ে বিস্তারিত জানতে পারি। আশা করি মুক্তিযুদ্ধের একটি অসাধারণ মুভি হবে এটা। আমি দাবী করছি, এই মুভিটার বাংলা ভার্সন আমাদের দেশের সিনেমা হলে মুক্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য এখন থেকেই উদ্যোগ নেওয়া হোক।

  2. মুভির বর্তমান অফিশিয়াল
    মুভির বর্তমান অফিশিয়াল পোস্টারটি আপনার পোস্টে এড করে দিতে পারেন-

    “দ্যা বাস্টার্ড চাইল্ড” মুভির অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজের লিংক দিলাম। আরও অনেক কিছু জানতে পারবেন এই মুভি সম্পর্কে।

  3. এই ছবিটা নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহ
    এই ছবিটা নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহ তৈরি হয়েছে সবার মাঝে ।। অবশ্যই দেখবো…… ধন্যবাদ রাজু দা…… :থাম্বসআপ:

  4. চমৎকার একটা কাজ করেছেন ভাই…
    চমৎকার একটা কাজ করেছেন ভাই… :তালিয়া: আই ভাবছিলাম এই মুভির ট্রেলার নিয়ে লিখবো, কিন্তু আপনি লিখেছেন দেখে ভালো লাগছে… :থাম্বসআপ: :বুখেআয়বাবুল: :ধইন্যাপাতা: মুভিটা মুক্তির অপেক্ষায়া আছি… :অপেক্ষায়আছি:

    1. অনেক অনেক ধন্যবাদ ডন
      অনেক অনেক ধন্যবাদ ডন ভাই।তারপরেও আপনি লিখেন।আমি তো রিভিউ লেখাতে ওতো দক্ষনা।জাস্ট কাচামাল তুলে দিলাম।ইউ আর এ বস অন দিস লাইন। :গোলাপ:

    2. মুভিটা মুক্তির অপেক্ষায়া
      মুভিটা মুক্তির অপেক্ষায়া আছি… :গোলাপ: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ভালুবাশি: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ:

  5. এই মুভি দেখা প্র​য়োজন। আর
    এই মুভি দেখা প্র​য়োজন। আর খুশি হলাম জেনে ভারতে ফাইনালি তাদের দ্বন্ধের চাইতে আমাদের প্রেক্ষাপটটি গুরুত্বপূর্ণ হ​য়ে পর্দায় ফুটে উঠেছে…..

    1. আর খুশি হলাম জেনে ভারতে

      আর খুশি হলাম জেনে ভারতে ফাইনালি তাদের দ্বন্ধের চাইতে আমাদের প্রেক্ষাপটটি গুরুত্বপূর্ণ হ​য়ে পর্দায় ফুটে উঠেছে…

      — :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :bow: :ফুল: :ফুল: :ফুল: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *